অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায়? ...

অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় - অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় : অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় তা হল লিলি গোত্রের বহু বর্ষজীবী গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। আমাদের দেশে এর ব্যবহার নতুন হলেও ইউরোপ আমেরিকাসহ জাপান, চীন ও কোরিয়ায় বহুল ব্যবহৃত একটি জনপ্রিয় সবজি। উন্নত বিশ্বে প্রতি বেলার খাবার মেনুতে অ্যাসপারাগাস খুবই কমন, তবে স্থান কাল পাত্রভেদে এর পরিবেশন পদ্ধতিতে ভিন্নতা রয়েছে। কখনো বা খাবারের আগে অ্যাপিটাইজার হিসেবে, কখনো বা স্যুপে, কখনো সবজির সাথে ব্যবহৃত হয় অ্যাসপ্যারাগাস। পশ্চিমা বিশ্বের হোটেল রেস্তোরাঁগুলোতে হালকা চিকেন বা টোনাফিস স্লাইস সহযোগে অ্যাসপারাগাস সালাদ খুবই প্রচলিত। জাপানে ম্যায়নিজ মিশ্রিত আলু ভর্তায় অ্যাসপারাগাস ব্যবহার খুবই জনপ্রিয়। তবে ফ্রাইপ্যানে হালকা তেলে ভেঁজে বা ভাঁপে সিদ্ধ করে অ্যাসপারাগাস সহজেই খাওয়া যায়। এছাড়া মুরগি বা গরুর মাংস অথবা চিংড়ি বিভিন্ন সস দিয়ে রান্নায় অ্যাসপারাগাস দিলে বেশ সুস্বাদু হয়, পাশাপাশি পরিবেশনের সময় ডিসটাও দেখতে সুন্দর দেখাবে। বিশ্বব্যাপী অ্যাপারাগাসের রকমারি ব্যবহার এটি আরও জনপ্রিয় এবং আবশ্যকীয় হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে দিন দিন। অ্যাসপারাগাস-এর বাংলা নাম শতমূলী। ঔষধি গুণের জন্য পশ্চিমা দেশগুলোতে অ্যাসপারাগাস বহুল সমাদৃত। এর আছে বহুমাত্রিক পুষ্টিগুণ। অ্যাসপারাগাস মূলত প্রোটিনসহ ভিটামিন B6, A, C, E ও K, থায়ামিন, রিভোফ্লাভিন, রুটিন, নায়াসিন, ফলিক এসিড, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, কপার ও ম্যাঙ্গানিজসমৃদ্ধ। অ্যাসপারাগাসে প্রচুর পরিমাণে প্লান্টপ্রোটিন হিস্টোন এবং গ্লটাথিয়ন থাকে, যা এন্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে দেহের ক্ষতিকারক ফ্রিরেডিক্যালের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত কাজ করে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং দেহের টনিক হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ফলিক এসিড থাকার কারণে অ্যাসপারাগাস হার্টে ব্লক সৃষ্টিতে সরাসরি বাধা দেয়। এজন্য হৃদরোগীদের জন্য আ্যাসপ্যারাগাস বেশ উপকারী।
Romanized Version
অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় - অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় : অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় তা হল লিলি গোত্রের বহু বর্ষজীবী গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। আমাদের দেশে এর ব্যবহার নতুন হলেও ইউরোপ আমেরিকাসহ জাপান, চীন ও কোরিয়ায় বহুল ব্যবহৃত একটি জনপ্রিয় সবজি। উন্নত বিশ্বে প্রতি বেলার খাবার মেনুতে অ্যাসপারাগাস খুবই কমন, তবে স্থান কাল পাত্রভেদে এর পরিবেশন পদ্ধতিতে ভিন্নতা রয়েছে। কখনো বা খাবারের আগে অ্যাপিটাইজার হিসেবে, কখনো বা স্যুপে, কখনো সবজির সাথে ব্যবহৃত হয় অ্যাসপ্যারাগাস। পশ্চিমা বিশ্বের হোটেল রেস্তোরাঁগুলোতে হালকা চিকেন বা টোনাফিস স্লাইস সহযোগে অ্যাসপারাগাস সালাদ খুবই প্রচলিত। জাপানে ম্যায়নিজ মিশ্রিত আলু ভর্তায় অ্যাসপারাগাস ব্যবহার খুবই জনপ্রিয়। তবে ফ্রাইপ্যানে হালকা তেলে ভেঁজে বা ভাঁপে সিদ্ধ করে অ্যাসপারাগাস সহজেই খাওয়া যায়। এছাড়া মুরগি বা গরুর মাংস অথবা চিংড়ি বিভিন্ন সস দিয়ে রান্নায় অ্যাসপারাগাস দিলে বেশ সুস্বাদু হয়, পাশাপাশি পরিবেশনের সময় ডিসটাও দেখতে সুন্দর দেখাবে। বিশ্বব্যাপী অ্যাপারাগাসের রকমারি ব্যবহার এটি আরও জনপ্রিয় এবং আবশ্যকীয় হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে দিন দিন। অ্যাসপারাগাস-এর বাংলা নাম শতমূলী। ঔষধি গুণের জন্য পশ্চিমা দেশগুলোতে অ্যাসপারাগাস বহুল সমাদৃত। এর আছে বহুমাত্রিক পুষ্টিগুণ। অ্যাসপারাগাস মূলত প্রোটিনসহ ভিটামিন B6, A, C, E ও K, থায়ামিন, রিভোফ্লাভিন, রুটিন, নায়াসিন, ফলিক এসিড, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, কপার ও ম্যাঙ্গানিজসমৃদ্ধ। অ্যাসপারাগাসে প্রচুর পরিমাণে প্লান্টপ্রোটিন হিস্টোন এবং গ্লটাথিয়ন থাকে, যা এন্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে দেহের ক্ষতিকারক ফ্রিরেডিক্যালের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত কাজ করে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং দেহের টনিক হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ফলিক এসিড থাকার কারণে অ্যাসপারাগাস হার্টে ব্লক সৃষ্টিতে সরাসরি বাধা দেয়। এজন্য হৃদরোগীদের জন্য আ্যাসপ্যারাগাস বেশ উপকারী।Asparagas Kothay Pawa Jay - Asparagas Kothay Pawa Jay : Asparagas Kothay Pawa Jay Ta Hall Lily Gotrer Bahu Barshajibi Gulma Jatiya Udbhid Amader Deshe Aare Byabahar NATUN Haleo Europe Amerikasah Japan Seen O Koriyay Bahul Byabahrit Ekati Janapriya Sabaji Unnat Bishwe Prati Belar Khabar Menute Asparagas Khubai Common Tove Sthan Kaal Patrabhede Aare Paribeshan Paddhatite Bhinnata Rayechhe Kakhano Ba Khabarer Age Apitaijar Hisebe Kakhano Ba Syupe Kakhano Sabajir Sathe Byabahrit Hya Asapyaragas Pashchima Bishwer Hotel Restorangulote Halka Chicken Ba Tonafis Slice Sahajoge Asparagas Salad Khubai Prachalit Japane Myayanij Mishrit Alu Bhartay Asparagas Byabahar Khubai Janapriya Tove Fraipyane Halka Tele Bhenje Ba Bhanpe Siddha Kare Asparagas Sahajei Khawa Jay Echhara Murgi Ba Garur Mans Athaba Chingri Bibhinna Sauce Diye Rannay Asparagas Dile Bash Suswadu Hya Pashapashi Paribeshner Camay Distao Dekhte Sundar Dekhabe Bishwabyapi Aparagaser Rakamari Byabahar AT RO Janapriya Evan Abashyakiya Hisebe Parignit Hachchhe Dinh Dinh Asparagas Aare Bangla NAM Shatamuli Aushadhi Guner Janya Pashchima Deshgulote Asparagas Bahul Samadrit Aare Ache Bahumatrik Pushtigun Asparagas Mulat Protinasah Vitamin B6, A, C, E O K, Thayamin Ribhoflabhin Routine Nayasin Falik Esid Iron Calcium Magnesium Fasafaras Potassium Copper O Myanganijasamriddha Asparagase Prachur Parimane Plantaprotin Histon Evan Glatathiyan Thake Ja Entiaksidenta Hisebe Deher Xatikarak Friredikyaler Biruddhe Pratiniyat Kaj Kare Ja Cancer Pratirodhe Vishesha Bhumika Rakhe Evan Deher Tonic Hisebe Kaj Kare Tachhara Falik Esid Thakur Karne Asparagas Harte Block Srishtite Sarasari Badha Dey Ejanya Hridrogider Janya Ayasapyaragas Bash Upakari
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় : অ্যাসপারাগাস (Asparagus officinalis) লিলি গোত্রের বহু বর্ষজীবী গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। আমাদের দেশে এর ব্যবহার নতুন হলেও ইউরোপ আমেরিকাসহ জাপান, চীন ও কোরিয়ায় বহুল ব্যবহৃত একটি জনপ্রিয় সবজি। উন্নত বিশ্বে প্রতি বেলার খাবার মেনুতে অ্যাসপারাগাস পাওয়া যায় , তবে স্থান কাল পাত্রভেদে এর পরিবেশন পদ্ধতিতে ভিন্নতা রয়েছে। কখনো বা খাবারের আগে অ্যাপিটাইজার হিসেবে, কখনো বা স্যুপে, কখনো সবজির সাথে ব্যবহৃত হয় অ্যাসপ্যারাগাস । পশ্চিমা বিশ্বের হোটেল রেস্তোরাঁগুলোতে হালকা চিকেন বা টোনাফিস স্লাইস সহযোগে অ্যাসপারাগাস সালাদ পাওয়া যায় । জাপানে ম্যায়নিজ মিশ্রিত আলু ভর্তায় অ্যাসপারাগাস ব্যবহার খুবই জনপ্রিয়। তবে ফ্রাইপ্যানে হালকা তেলে ভেঁজে বা ভাঁপে সিদ্ধ করে অ্যাসপারাগাস সহজেই খাওয়া যায় । এছাড়া মুরগি বা গরুর মাংস অথবা চিংড়ি বিভিন্ন সস দিয়ে রান্নায় অ্যাসপারাগাস দিলে বেশ সুস্বাদু হয়, পাশাপাশি পরিবেশনের সময় ডিসটাও দেখতে সুন্দর দেখাবে। বিশ্বব্যাপী অ্যাপারাগাসের রকমারি ব্যবহার এটি আরও জনপ্রিয় এবং আবশ্যকীয় হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে দিন দিন। অ্যাসপারাগাস-এর বাংলা নাম শতমূলী। ঔষধি গুণের জন্য পশ্চিমা দেশগুলোতে অ্যাসপারাগাস বহুল সমাদৃত। এর বহুমাত্রিক পুষ্টিগুণ পাওয়া যায় । অ্যাসপারাগাস মূলত প্রোটিনসহ ভিটামিন B6, A, C, E ও K, থায়ামিন, রিভোফ্লাভিন, রুটিন, নায়াসিন, ফলিক এসিড, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, কপার ও ম্যাঙ্গানিজসমৃদ্ধ। অ্যাসপারাগাসে প্রচুর পরিমাণে প্লান্টপ্রোটিন হিস্টোন এবং গ্লটাথিয়ন থাকে, যা এন্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে দেহের ক্ষতিকারক ফ্রিরেডিক্যালের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত কাজ করে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং দেহের টনিক হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ফলিক এসিড থাকার কারণে অ্যাসপারাগাস হার্টে ব্লক সৃষ্টিতে সরাসরি বাধা দেয়। এজন্য হৃদরোগীদের জন্য আ্যাসপ্যারাগাস বেশ উপকারী। উচ্চতর গবেষণায় প্রতীয়মান হয়েছে যে, মানব দেহের ত্বক ও ফুসফুসের ক্যান্সারসহ কিডনি ইনফেকশান ও পিত্ত থলিতে পাথর প্রতিরোধেও অ্যাসপারাগাস উল্লেখযোগ্য কাজ করে। প্রতিদিন ২ বার সকাল সন্ধ্যায় ২-৩টি অ্যাসপারাগাস স্টিক খেলে ৩-৪ সপ্তাহের মধ্যেই এসব রোগের উপশম হয়। এর স্বাদ চমৎকার। মিষ্টি ও তেতোর মিশেল। দেখতেও আদি অকৃত্রিম ও তাজা। আর অ্যাসপারাগাস এমনই একটি খাবার যে, কেউ চাইলে এটাকে কাঁচা কিংবা রান্না করে খেতে পারবে। এছাড়া ডায়াবেটিসের বিরুদ্ধে লড়তে এটাকে একটি শক্তিশালী রন্ধন অস্ত্র বলা হয়। বিজ্ঞানীরা দেখতে পেয়েছেন, এই ক্রমশ জনপ্রিয় সবজিটাকে নিয়মিত খেলে রক্তে চিনির মাত্রা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং এটি একইসঙ্গে শরীরে ইনসুলিন তৈরির গতিও ত্বরাণি¦ত করে, যে হরমোনটি কিনা শরীরের গ্লুকোজকে শুষে নিতে পারে। গুনাগুণঃ ওষুধি গুণের জন্য পশ্চিমা দেশগুলোতে অ্যাসপারাগাস বহুল সমাদৃত। অ্যাসপারাগাস মূলত, প্রোটিনসহ ভিটামিন B6, A, C, E, I, K, থায়ামিন, রিভোফ্লাভিন, রুটিন, নায়াসিন, ফলিক এসিড, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, কপার ও ম্যাঙ্গানিজসমৃদ্ধ। অ্যাসপারাগাসে প্রচুর পরিমাণে প্লান্টপ্রোটিন হিস্টোন এবং গ্লটাথিয়ন থাকে, যা এন্টিঅক্সিডেণ্ট হিসেবে দেহের ক্ষতিকারক ফ্রিরেডিক্যালের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত কাজ করে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং দেহের টনিক হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ফলিক এসিড থাকার কারণে অ্যাসপারাগাস হার্টে ব্লক সৃষ্টিতে সরাসরি বাঁধা দেয়।এজন্য হুদরোঘীওদর জণ্য আ্যাসপ্যারাগাস বেশ উপকারী। উচ্চতর গবেষণায় প্রতিয়মান হয়েছে যে, মানব দেহের ত্বক ও ফুসফুসের ক্যান্সারসহ কিডনি ইনফেকশান ও পিত্ত্ব থলিতে পাথর প্রতিরোধেও অ্যাসপারাগাস উল্লেখযোগ্য কাজ করে। প্রতিদিন ২বার সকাল সন্ধ্যায় ২-৩টি অ্যাসপারাগাস স্টিক খেলে ৩-৪ সপ্তাহের মাধ্যেই এসব রোগের উপশম হয়।
Romanized Version
অ্যাসপারাগাস কোথায় পাওয়া যায় : অ্যাসপারাগাস (Asparagus officinalis) লিলি গোত্রের বহু বর্ষজীবী গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদ। আমাদের দেশে এর ব্যবহার নতুন হলেও ইউরোপ আমেরিকাসহ জাপান, চীন ও কোরিয়ায় বহুল ব্যবহৃত একটি জনপ্রিয় সবজি। উন্নত বিশ্বে প্রতি বেলার খাবার মেনুতে অ্যাসপারাগাস পাওয়া যায় , তবে স্থান কাল পাত্রভেদে এর পরিবেশন পদ্ধতিতে ভিন্নতা রয়েছে। কখনো বা খাবারের আগে অ্যাপিটাইজার হিসেবে, কখনো বা স্যুপে, কখনো সবজির সাথে ব্যবহৃত হয় অ্যাসপ্যারাগাস । পশ্চিমা বিশ্বের হোটেল রেস্তোরাঁগুলোতে হালকা চিকেন বা টোনাফিস স্লাইস সহযোগে অ্যাসপারাগাস সালাদ পাওয়া যায় । জাপানে ম্যায়নিজ মিশ্রিত আলু ভর্তায় অ্যাসপারাগাস ব্যবহার খুবই জনপ্রিয়। তবে ফ্রাইপ্যানে হালকা তেলে ভেঁজে বা ভাঁপে সিদ্ধ করে অ্যাসপারাগাস সহজেই খাওয়া যায় । এছাড়া মুরগি বা গরুর মাংস অথবা চিংড়ি বিভিন্ন সস দিয়ে রান্নায় অ্যাসপারাগাস দিলে বেশ সুস্বাদু হয়, পাশাপাশি পরিবেশনের সময় ডিসটাও দেখতে সুন্দর দেখাবে। বিশ্বব্যাপী অ্যাপারাগাসের রকমারি ব্যবহার এটি আরও জনপ্রিয় এবং আবশ্যকীয় হিসেবে পরিগণিত হচ্ছে দিন দিন। অ্যাসপারাগাস-এর বাংলা নাম শতমূলী। ঔষধি গুণের জন্য পশ্চিমা দেশগুলোতে অ্যাসপারাগাস বহুল সমাদৃত। এর বহুমাত্রিক পুষ্টিগুণ পাওয়া যায় । অ্যাসপারাগাস মূলত প্রোটিনসহ ভিটামিন B6, A, C, E ও K, থায়ামিন, রিভোফ্লাভিন, রুটিন, নায়াসিন, ফলিক এসিড, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাসিয়াম, কপার ও ম্যাঙ্গানিজসমৃদ্ধ। অ্যাসপারাগাসে প্রচুর পরিমাণে প্লান্টপ্রোটিন হিস্টোন এবং গ্লটাথিয়ন থাকে, যা এন্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে দেহের ক্ষতিকারক ফ্রিরেডিক্যালের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত কাজ করে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং দেহের টনিক হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ফলিক এসিড থাকার কারণে অ্যাসপারাগাস হার্টে ব্লক সৃষ্টিতে সরাসরি বাধা দেয়। এজন্য হৃদরোগীদের জন্য আ্যাসপ্যারাগাস বেশ উপকারী। উচ্চতর গবেষণায় প্রতীয়মান হয়েছে যে, মানব দেহের ত্বক ও ফুসফুসের ক্যান্সারসহ কিডনি ইনফেকশান ও পিত্ত থলিতে পাথর প্রতিরোধেও অ্যাসপারাগাস উল্লেখযোগ্য কাজ করে। প্রতিদিন ২ বার সকাল সন্ধ্যায় ২-৩টি অ্যাসপারাগাস স্টিক খেলে ৩-৪ সপ্তাহের মধ্যেই এসব রোগের উপশম হয়। এর স্বাদ চমৎকার। মিষ্টি ও তেতোর মিশেল। দেখতেও আদি অকৃত্রিম ও তাজা। আর অ্যাসপারাগাস এমনই একটি খাবার যে, কেউ চাইলে এটাকে কাঁচা কিংবা রান্না করে খেতে পারবে। এছাড়া ডায়াবেটিসের বিরুদ্ধে লড়তে এটাকে একটি শক্তিশালী রন্ধন অস্ত্র বলা হয়। বিজ্ঞানীরা দেখতে পেয়েছেন, এই ক্রমশ জনপ্রিয় সবজিটাকে নিয়মিত খেলে রক্তে চিনির মাত্রা পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং এটি একইসঙ্গে শরীরে ইনসুলিন তৈরির গতিও ত্বরাণি¦ত করে, যে হরমোনটি কিনা শরীরের গ্লুকোজকে শুষে নিতে পারে। গুনাগুণঃ ওষুধি গুণের জন্য পশ্চিমা দেশগুলোতে অ্যাসপারাগাস বহুল সমাদৃত। অ্যাসপারাগাস মূলত, প্রোটিনসহ ভিটামিন B6, A, C, E, I, K, থায়ামিন, রিভোফ্লাভিন, রুটিন, নায়াসিন, ফলিক এসিড, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, কপার ও ম্যাঙ্গানিজসমৃদ্ধ। অ্যাসপারাগাসে প্রচুর পরিমাণে প্লান্টপ্রোটিন হিস্টোন এবং গ্লটাথিয়ন থাকে, যা এন্টিঅক্সিডেণ্ট হিসেবে দেহের ক্ষতিকারক ফ্রিরেডিক্যালের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত কাজ করে। যা ক্যান্সার প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা রাখে এবং দেহের টনিক হিসেবে কাজ করে। তাছাড়া ফলিক এসিড থাকার কারণে অ্যাসপারাগাস হার্টে ব্লক সৃষ্টিতে সরাসরি বাঁধা দেয়।এজন্য হুদরোঘীওদর জণ্য আ্যাসপ্যারাগাস বেশ উপকারী। উচ্চতর গবেষণায় প্রতিয়মান হয়েছে যে, মানব দেহের ত্বক ও ফুসফুসের ক্যান্সারসহ কিডনি ইনফেকশান ও পিত্ত্ব থলিতে পাথর প্রতিরোধেও অ্যাসপারাগাস উল্লেখযোগ্য কাজ করে। প্রতিদিন ২বার সকাল সন্ধ্যায় ২-৩টি অ্যাসপারাগাস স্টিক খেলে ৩-৪ সপ্তাহের মাধ্যেই এসব রোগের উপশম হয়। Asparagas Kothay Pawa Jay : Asparagas (Asparagus Officinalis) Lily Gotrer Bahu Barshajibi Gulma Jatiya Udbhid Amader Deshe Aare Byabahar NATUN Haleo Europe Amerikasah Japan Seen O Koriyay Bahul Byabahrit Ekati Janapriya Sabaji Unnat Bishwe Prati Belar Khabar Menute Asparagas Pawa Jay , Tove Sthan Kaal Patrabhede Aare Paribeshan Paddhatite Bhinnata Rayechhe Kakhano Ba Khabarer Age Apitaijar Hisebe Kakhano Ba Syupe Kakhano Sabajir Sathe Byabahrit Hya Asapyaragas Pashchima Bishwer Hotel Restorangulote Halka Chicken Ba Tonafis Slice Sahajoge Asparagas Salad Pawa Jay Japane Myayanij Mishrit Alu Bhartay Asparagas Byabahar Khubai Janapriya Tove Fraipyane Halka Tele Bhenje Ba Bhanpe Siddha Kare Asparagas Sahajei Khawa Jay Echhara Murgi Ba Garur Mans Athaba Chingri Bibhinna Sauce Diye Rannay Asparagas Dile Bash Suswadu Hya Pashapashi Paribeshner Camay Distao Dekhte Sundar Dekhabe Bishwabyapi Aparagaser Rakamari Byabahar AT RO Janapriya Evan Abashyakiya Hisebe Parignit Hachchhe Dinh Dinh Asparagas Aare Bangla NAM Shatamuli Aushadhi Guner Janya Pashchima Deshgulote Asparagas Bahul Samadrit Aare Bahumatrik Pushtigun Pawa Jay Asparagas Mulat Protinasah Vitamin B6, A, C, E O K, Thayamin Ribhoflabhin Routine Nayasin Falik Esid Iron Calcium Magnesium Fasafaras Potassium Copper O Myanganijasamriddha Asparagase Prachur Parimane Plantaprotin Histon Evan Glatathiyan Thake Ja Entiaksidenta Hisebe Deher Xatikarak Friredikyaler Biruddhe Pratiniyat Kaj Kare Ja Cancer Pratirodhe Vishesha Bhumika Rakhe Evan Deher Tonic Hisebe Kaj Kare Tachhara Falik Esid Thakur Karne Asparagas Harte Block Srishtite Sarasari Badha Dey Ejanya Hridrogider Janya Ayasapyaragas Bash Upakari Uchchatar Gabeshnay Pratiyman Hayechhe Je Menabe Deher Tbak O Fusfuser Kyansarasah Kidney Inafekshan O Pitta Thalite Puthur Pratirodheo Asparagas Ullekhajogya Kaj Kare Pratidin 2 Bar Sakal Sandhyay 2 3ti Asparagas Stick Khele 3 4 Saptaher Madhyei Esab Roger Upasham Hya Aare Swad Chamtkar Misti O Tetor Mishel Dekhteo Adi Akritrim O Taaza Are Asparagas Emanai Ekati Khabar Je Keu Chaile Etake Kancha Kingba Ranna Kare Khete Parbe Echhara Dayabetiser Biruddhe Larate Etake Ekati Shaktishali Randhan Astra Bala Hya Bigyanira Dekhte Peyechhen AE Kramash Janapriya Sabajitake Niymit Khele Rakte Chinir Maatra Puropuri Niyantrane Thake Evan AT Ekaisange Sharire Inasulin Tairir Gatio Tbarani¦t Kare Je Haramonti Qina Sharirer Glukojake Shushe Nite Pare Gunagunah Oshudhi Guner Janya Pashchima Deshgulote Asparagas Bahul Samadrit Asparagas Mulat Protinasah Vitamin B6, A, C, E, I, K, Thayamin Ribhoflabhin Routine Nayasin Falik Esid Iron Calcium Magnesium Fasafaras Patashiyam Copper O Myanganijasamriddha Asparagase Prachur Parimane Plantaprotin Histon Evan Glatathiyan Thake Ja Entiaksidenta Hisebe Deher Xatikarak Friredikyaler Biruddhe Pratiniyat Kaj Kare Ja Cancer Pratirodhe Vishesha Bhumika Rakhe Evan Deher Tonic Hisebe Kaj Kare Tachhara Falik Esid Thakur Karne Asparagas Harte Block Srishtite Sarasari Bandha Dey Ejanya Hudroghiodar Janya Ayasapyaragas Bash Upakari Uchchatar Gabeshnay Pratiyman Hayechhe Je Menabe Deher Tbak O Fusfuser Kyansarasah Kidney Inafekshan O Pittba Thalite Puthur Pratirodheo Asparagas Ullekhajogya Kaj Kare Pratidin 2bar Sakal Sandhyay 2 3ti Asparagas Stick Khele 3 4 Saptaher Madhyei Esab Roger Upasham Hya
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Asparagas Kothay Pawa Jay,Where To Get Asparagus?,


vokalandroid