বাহমনি রাজ্য ? ...

বাহমনি রাজ্য : দিল্লির সালতানাতের ধ্বংসস্তূপের মধ্য থেকে যেসব স্বাধীন রাজ্য মাথা তুলে দাঁড়ায় তার মধ্যে বাহমনী রাজ্য সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ ও শক্তিশালী ছিল। মুহম্মদ বিন তুঘলকের রাজত্বকালে সুলতানের অত্যাচার এবং উত্পীড়নে অতিষ্ঠ হয়ে দাক্ষিণাত্যের অভিজাত শ্রেণি বিদ্রোহী হয়ে ওঠে ও ইসমাঈল মুখের নেতৃত্বে দৌলতাবাদ দুর্গ অবরোধ করে। ইসমাঈল মুখ হাসানের অনুকূলে নিজের অধিকার ত্যাগ করেন এবং হাসান ‘আবুল মুজাফ্ফর আলাউদ্দীন বাহমন শাহ্’ উপাধি ধারণ করে স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তার প্রতিষ্ঠিত বংশের নাম হলো বাহমনি রাজ্য বংশ। হাসান ‘গাঙ্গু’ একজন ব্রাহ্মণ জ্যোতিষীর ভৃত্য ছিলেন এবং তার প্রভু ও পৃষ্ঠপোষকের নামানুসারে তিনি নিজের বংশের নামকরণ করেন বলে যে গল্প প্রচলিত আছে তা পরবর্তী ঐতিহাসিকরা অস্বীকার করেছেন। মুদ্রা ও খোদাইকার্য থেকেও এটি প্রমাণ করা যায় না। হাসান নিজেকে পারস্যের বিখ্যাত বীর বাহ্মন বিন ইসফানদিয়ার বংশধর বলে দাবি করেন। সিংহাসনে আরোহণ করার পর আলাউদ্দীন শাহ্ গুলবরগাতে নিজের রাজধানী স্থাপন করেন। অল্পকালের মধ্যে তিনি এক গৌরবময় বিজয়ের অধিকারী হন। উত্তরে ওয়াঙ্গেনা নদী থেকে দক্ষিণে কৃষ্ণ নদী এবং পশ্চিমে দৌলতাবাদ থেকে পূর্বে ভাঙ্গির (নিজামের রাজ্য ভুক্ত) পর্যন্ত বিস্তৃত সাম্রাজ্যকে চারটি দফতর বা প্রদেশে বিভক্ত করে প্রত্যেক প্রদেশে তিনি একজন করে শাসনকর্তা নিযুক্ত করেন। ‘বুরহান-ই-মাসিক’-এর রচয়িতা বলেন, ‘আলাউদ্দীন একজন ন্যায়বান রাজা, প্রজাপালক ও ধার্মিক ছিলেন। তার রাজত্বকালে প্রজা ও সৈন্যরা পরিপূর্ণ আনন্দের মধ্যে বসবাস করত এবং ইসলামের বাণী প্রচার করার জন্য তিনি অনেক চেষ্টা করেছিলেন।
Romanized Version
বাহমনি রাজ্য : দিল্লির সালতানাতের ধ্বংসস্তূপের মধ্য থেকে যেসব স্বাধীন রাজ্য মাথা তুলে দাঁড়ায় তার মধ্যে বাহমনী রাজ্য সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ ও শক্তিশালী ছিল। মুহম্মদ বিন তুঘলকের রাজত্বকালে সুলতানের অত্যাচার এবং উত্পীড়নে অতিষ্ঠ হয়ে দাক্ষিণাত্যের অভিজাত শ্রেণি বিদ্রোহী হয়ে ওঠে ও ইসমাঈল মুখের নেতৃত্বে দৌলতাবাদ দুর্গ অবরোধ করে। ইসমাঈল মুখ হাসানের অনুকূলে নিজের অধিকার ত্যাগ করেন এবং হাসান ‘আবুল মুজাফ্ফর আলাউদ্দীন বাহমন শাহ্’ উপাধি ধারণ করে স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তার প্রতিষ্ঠিত বংশের নাম হলো বাহমনি রাজ্য বংশ। হাসান ‘গাঙ্গু’ একজন ব্রাহ্মণ জ্যোতিষীর ভৃত্য ছিলেন এবং তার প্রভু ও পৃষ্ঠপোষকের নামানুসারে তিনি নিজের বংশের নামকরণ করেন বলে যে গল্প প্রচলিত আছে তা পরবর্তী ঐতিহাসিকরা অস্বীকার করেছেন। মুদ্রা ও খোদাইকার্য থেকেও এটি প্রমাণ করা যায় না। হাসান নিজেকে পারস্যের বিখ্যাত বীর বাহ্মন বিন ইসফানদিয়ার বংশধর বলে দাবি করেন। সিংহাসনে আরোহণ করার পর আলাউদ্দীন শাহ্ গুলবরগাতে নিজের রাজধানী স্থাপন করেন। অল্পকালের মধ্যে তিনি এক গৌরবময় বিজয়ের অধিকারী হন। উত্তরে ওয়াঙ্গেনা নদী থেকে দক্ষিণে কৃষ্ণ নদী এবং পশ্চিমে দৌলতাবাদ থেকে পূর্বে ভাঙ্গির (নিজামের রাজ্য ভুক্ত) পর্যন্ত বিস্তৃত সাম্রাজ্যকে চারটি দফতর বা প্রদেশে বিভক্ত করে প্রত্যেক প্রদেশে তিনি একজন করে শাসনকর্তা নিযুক্ত করেন। ‘বুরহান-ই-মাসিক’-এর রচয়িতা বলেন, ‘আলাউদ্দীন একজন ন্যায়বান রাজা, প্রজাপালক ও ধার্মিক ছিলেন। তার রাজত্বকালে প্রজা ও সৈন্যরা পরিপূর্ণ আনন্দের মধ্যে বসবাস করত এবং ইসলামের বাণী প্রচার করার জন্য তিনি অনেক চেষ্টা করেছিলেন। Bahamani Rajya : Dillir Saltanater Dhbansastuper Madhya Theke Jesab Sweden Rajya Matha Tule Danray Taur Madhye Bahamani Rajya Sarbapeksha Gurutbapurna O Shaktishali Chhil Muhammed Binh Tughalaker Rajatbakale Sultaner Atyachar Evan Utpirane Atishtha Huye Dakshinatyer Abhijat Shreni Bidrohi Huye Othe O Isamail Mukher Netritbe Daultabad Durg Abarodh Kare Isamail Mukha Hasaner Anukule Nizar Adhikar Tyag Curren Evan HASAN ‘abul Muzaffar Alauddin Bahaman Shaho Upadhi Dharan Kare Swadhinata Ghoshna Curren Taur Pratishthit Bangsher NAM Holo Bahamani Rajya Bangsh HASAN ‘ganguo Ekajan Brahman Jyotishir Bhritya Chhilen Evan Taur Prabhu O Prishthaposhker Namanusare Tini Nizar Bangsher Namakaran Curren Ble Je Galpa Prachalit Ache Ta Parabarti Aitihasikra Aswikar Karechhen Mudra O Khodaikarjya Thekeo AT Praman Kara Jay Na HASAN Nijeke Parasyer Bikhyat Bir Bahman Binh Isafandiyar Bangshadhar Ble Dabi Curren Singhasane Arohan Karar Par Alauddin Shah Gulabaragate Nizar Rajdhani Sthapan Curren Alpakaler Madhye Tini Ec Gaurabamay Bijyer Adhikari Hahn Uttare Wangena Nadi Theke Dakshine Krishna Nadi Evan Pashchime Daultabad Theke Purbe Bhangir Nijamer Rajya Bhukta Parjanta Bistrita Samrajyake Charti Dafatar Ba Pradeshe Bibhakta Kare Pratyek Pradeshe Tini Ekajan Kare Shasanakarta Nijukta Curren ‘burhan E Masiko Aare Rachayita Baleno ‘alauddin Ekajan Nyayaban Raja Prajapalak O Dharmik Chhilen Taur Rajatbakale Praja O Sainyara Paripurna Anander Madhye Basabas Karat Evan Isalamer Vani Prachar Karar Janya Tini Anek Cheshta Karechhilen
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


দিল্লির সালতানাতের ধ্বংসস্তূপের মধ্য থেকে যেসব স্বাধীন রাজ্য মাথা তুলে দাঁড়ায় তার মধ্যে বাহমনি রাজ্য সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ ও শক্তিশালী ছিল। মুহম্মদ বিন তুঘলকের রাজত্বকালে সুলতানের অত্যাচার এবং উত্পীড়নে অতিষ্ঠ হয়ে দাক্ষিণাত্যের অভিজাত শ্রেণি বিদ্রোহী হয়ে ওঠে ও ইসমাঈল মুখের নেতৃত্বে দৌলতাবাদ দুর্গ অবরোধ করে। ইসমাঈল মুখ হাসানের অনুকূলে নিজের অধিকার ত্যাগ করেন এবং হাসান ‘আবুল মুজাফ্ফর আলাউদ্দীন বাহমন শাহ্’ উপাধি ধারণ করে স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তার প্রতিষ্ঠিত বংশের নাম হলো বাহমনি বংশ। হাসান ‘গাঙ্গু’ একজন ব্রাহ্মণ জ্যোতিষীর ভৃত্য ছিলেন এবং তার প্রভু ও পৃষ্ঠপোষকের নামানুসারে তিনি নিজের বংশের নামকরণ করেন বলে যে গল্প প্রচলিত আছে তা পরবর্তী ঐতিহাসিকরা অস্বীকার করেছেন। মুদ্রা ও খোদাইকার্য থেকেও এটি প্রমাণ করা যায় না। হাসান নিজেকে পারস্যের বিখ্যাত বীর বাহ্মন বিন ইসফানদিয়ার বংশধর বলে দাবি করেন। সিংহাসনে আরোহণ করার পর আলাউদ্দীন শাহ্ গুলবরগাতে নিজের রাজধানী স্থাপন করেন। অল্পকালের মধ্যে তিনি এক গৌরবময় বিজয়ের অধিকারী হন। উত্তরে ওয়াঙ্গেনা নদী থেকে দক্ষিণে কৃষ্ণ নদী এবং পশ্চিমে দৌলতাবাদ থেকে পূর্বে ভাঙ্গির (নিজামের রাজ্যভুক্ত) পর্যন্ত বিস্তৃত সাম্রাজ্যকে চারটি দফতর বা প্রদেশে বিভক্ত করে প্রত্যেক প্রদেশে তিনি একজন করে শাসনকর্তা নিযুক্ত করেন। ‘বুরহান-ই-মাসিক’-এর রচয়িতা বলেন, ‘আলাউদ্দীন একজন ন্যায়বান রাজা, প্রজাপালক ও ধার্মিক ছিলেন। তার রাজত্বকালে প্রজা ও সৈন্যরা পরিপূর্ণ আনন্দের মধ্যে বসবাস করত এবং ইসলামের বাণী প্রচার করার জন্য তিনি অনেক চেষ্টা করেছিলেন।’
Romanized Version
দিল্লির সালতানাতের ধ্বংসস্তূপের মধ্য থেকে যেসব স্বাধীন রাজ্য মাথা তুলে দাঁড়ায় তার মধ্যে বাহমনি রাজ্য সর্বাপেক্ষা গুরুত্বপূর্ণ ও শক্তিশালী ছিল। মুহম্মদ বিন তুঘলকের রাজত্বকালে সুলতানের অত্যাচার এবং উত্পীড়নে অতিষ্ঠ হয়ে দাক্ষিণাত্যের অভিজাত শ্রেণি বিদ্রোহী হয়ে ওঠে ও ইসমাঈল মুখের নেতৃত্বে দৌলতাবাদ দুর্গ অবরোধ করে। ইসমাঈল মুখ হাসানের অনুকূলে নিজের অধিকার ত্যাগ করেন এবং হাসান ‘আবুল মুজাফ্ফর আলাউদ্দীন বাহমন শাহ্’ উপাধি ধারণ করে স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। তার প্রতিষ্ঠিত বংশের নাম হলো বাহমনি বংশ। হাসান ‘গাঙ্গু’ একজন ব্রাহ্মণ জ্যোতিষীর ভৃত্য ছিলেন এবং তার প্রভু ও পৃষ্ঠপোষকের নামানুসারে তিনি নিজের বংশের নামকরণ করেন বলে যে গল্প প্রচলিত আছে তা পরবর্তী ঐতিহাসিকরা অস্বীকার করেছেন। মুদ্রা ও খোদাইকার্য থেকেও এটি প্রমাণ করা যায় না। হাসান নিজেকে পারস্যের বিখ্যাত বীর বাহ্মন বিন ইসফানদিয়ার বংশধর বলে দাবি করেন। সিংহাসনে আরোহণ করার পর আলাউদ্দীন শাহ্ গুলবরগাতে নিজের রাজধানী স্থাপন করেন। অল্পকালের মধ্যে তিনি এক গৌরবময় বিজয়ের অধিকারী হন। উত্তরে ওয়াঙ্গেনা নদী থেকে দক্ষিণে কৃষ্ণ নদী এবং পশ্চিমে দৌলতাবাদ থেকে পূর্বে ভাঙ্গির (নিজামের রাজ্যভুক্ত) পর্যন্ত বিস্তৃত সাম্রাজ্যকে চারটি দফতর বা প্রদেশে বিভক্ত করে প্রত্যেক প্রদেশে তিনি একজন করে শাসনকর্তা নিযুক্ত করেন। ‘বুরহান-ই-মাসিক’-এর রচয়িতা বলেন, ‘আলাউদ্দীন একজন ন্যায়বান রাজা, প্রজাপালক ও ধার্মিক ছিলেন। তার রাজত্বকালে প্রজা ও সৈন্যরা পরিপূর্ণ আনন্দের মধ্যে বসবাস করত এবং ইসলামের বাণী প্রচার করার জন্য তিনি অনেক চেষ্টা করেছিলেন।’ Dillir Saltanater Dhbansastuper Madhya Theke Jesab Sweden Rajya Matha Tule Danray Taur Madhye Bahamani Rajya Sarbapeksha Gurutbapurna O Shaktishali Chhil Muhammed Binh Tughalaker Rajatbakale Sultaner Atyachar Evan Utpirane Atishtha Huye Dakshinatyer Abhijat Shreni Bidrohi Huye Othe O Isamail Mukher Netritbe Daultabad Durg Abarodh Kare Isamail Mukha Hasaner Anukule Nizar Adhikar Tyag Curren Evan HASAN ‘abul Muzaffar Alauddin Bahaman Shaho Upadhi Dharan Kare Swadhinata Ghoshna Curren Taur Pratishthit Bangsher NAM Holo Bahamani Bangsh HASAN ‘ganguo Ekajan Brahman Jyotishir Bhritya Chhilen Evan Taur Prabhu O Prishthaposhker Namanusare Tini Nizar Bangsher Namakaran Curren Ble Je Galpa Prachalit Ache Ta Parabarti Aitihasikra Aswikar Karechhen Mudra O Khodaikarjya Thekeo AT Praman Kara Jay Na HASAN Nijeke Parasyer Bikhyat Bir Bahman Binh Isafandiyar Bangshadhar Ble Dabi Curren Singhasane Arohan Karar Par Alauddin Shah Gulabaragate Nizar Rajdhani Sthapan Curren Alpakaler Madhye Tini Ec Gaurabamay Bijyer Adhikari Hahn Uttare Wangena Nadi Theke Dakshine Krishna Nadi Evan Pashchime Daultabad Theke Purbe Bhangir Nijamer Rajyabhukta Parjanta Bistrita Samrajyake Charti Dafatar Ba Pradeshe Bibhakta Kare Pratyek Pradeshe Tini Ekajan Kare Shasanakarta Nijukta Curren ‘burhan E Masiko Aare Rachayita Baleno ‘alauddin Ekajan Nyayaban Raja Prajapalak O Dharmik Chhilen Taur Rajatbakale Praja O Sainyara Paripurna Anander Madhye Basabas Karat Evan Isalamer Vani Prachar Karar Janya Tini Anek Cheshta Karechhilen ’
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bahamani Rajya ?,Bahmani State?,


vokalandroid