ঝর্ণা কি? ...

ঝর্ণা ! ঝর্ণা ! সুন্দরী ঝর্ণা !” পৃথিবীতে প্রকৃতির যে সব চমৎকার নিদর্শন আছে তার মাঝে ঝর্ণা ও জলপ্রপাত অন্যতম। পাহারের গা বেয়ে জলের ধারা মনমুগ্ধকর সৌন্দর্য তৈরি করে নেমে আসে! এদের কিছুকে বলা হয় ঝর্ণা, আবার কিছুকে বলা হয় জলপ্রপাত। নামের এরকম পার্থক্য হবার কারণ কি? পার্থক্যটা কি উচ্চতায় না বিশালতায়, নাকি জলধারার তীব্রতায়? ব্যাপারটা কি এমন, যে জলরাশি বেশী উঁচু থেকে পড়ে সেটা জলপ্রপাত, আর কম উঁচু থেকে পড়লে ঝর্ণা? অথবা জলপ্রপাত আকারে বিশাল হয়, সে তুলনায় ঝর্ণা ছোট হয়ে থাকে? ব্যাপারটা আসলে এমন নয়। কিছু জলপ্রপাতের পানি প্রবাহের তীব্রতা অনেক ঝর্ণার চেয়েও কম হয়ে থাকে। আবার কিছু কিছু ঝর্ণা অনেক জলপ্রপাতের চেয়েও আকারে বড় হয়, বেশী উঁচু থেকে পতিত হত। তাহলে ঝর্ণা আর জলপ্রপাতের মাঝে মূল পার্থক্যটা কি ? ভূপৃষ্ঠের উপর দিয়ে প্রবাহিত জলধারা যখন কোন খাড়াপ্রান্তে এসে নিচে পতিত হয় তখন তাকে জলপ্রপাত বলে। হয়তো বিশাল একটা নদী অথবা সরু একটা জলপ্রবাহ পাহাড় বেয়ে নামতে নামতে হঠাৎ পাহড়ের খাড়া প্রান্ত থেকে নিচে পতিত হলো, আর তখনই একটি দৃষ্টিনন্দন জলপ্রপাতের সৃষ্টি হয়। বরফের বিশাল বিশাল খন্ডের উপরিতল গলে সৃষ্ট পানি প্রবাহিত হয়ে বরফ খন্ডের কোন খাড়া প্রান্ত দিয়ে নিচে পতিত হয়েও জলপ্রপাতের জন্ম হতে পারে। অন্যদিকে, মাটির নিচে জমা হওয়া পানি পাহাড়ের কোন খাড়া অংশ ফুঁড়ে বেরিয়ে আসলে ঝর্ণার সৃষ্টি হয়। বৃষ্টি, বন্যা, নদীর বা বরফ গলা পানি মাটির কথা ভেদ করে ভূপৃষ্ঠের উপরিতল থেকে নিচের দিকে নামতে থাকে। এই পানিগুলো মাটির নিচের কোন শিলাস্তরে পৌঁছুলে সেগুলো ভেদ করে আর নিচে নামতে পারে না। তখন পানিগুলো শিলাস্তরের উপর জমা হতে হতে একসময় মাটির নীচ দিয়ে শিলাস্তরের ঢালু অংশ বরাবর সরে আসতে থাকে। পাহাড়ি বা উঁচু এলাকায় মাটির নীচে শিলাস্তরের উপর জমে থাকা পানি এভাবে সরতে সরতে কোন খাড়া প্রান্ত পেয়ে গেলে পানিগুলো মাটি ফুঁড়ে বেরিয়ে এসে অপূর্ব ঝর্ণার সৃষ্টি করে। বড় আর বিশাল বিশাল নদী পাহাড়ের গা বেয়ে এঁকেবেঁকে নামতে গিয়ে অনেক জলপ্রপাত তৈরি করে বলে পৃথিবীতে যেমন বিশাল বিশাল জলপ্রপাত আছে, তেমনি বিশাল বিশাল ঝর্ণা নেই। সে হিসেবে ঝর্ণারা জলপ্রপাতদের মত অত বিস্তৃত, উন্মক্ত, আর প্রবল প্রতাপশালী নয়। আবার, কিছু কিছু জলপ্রপাত অনেক ঝর্ণার চেয়েও ছোট, খাটো আর শান্ত! হয়ত পাহাড়ের উপর দিয়ে বয়ে চলা খুব ছোট্ট, খুব শান্ত একটি জলধারা অসংখ্য.পাথরের গা বেয়ে কলকল শব্দ করে অলস ভঙ্গিতে নেমে এসে শান্ত একটি জলপ্রপাত তৈরি করে।
Romanized Version
ঝর্ণা ! ঝর্ণা ! সুন্দরী ঝর্ণা !” পৃথিবীতে প্রকৃতির যে সব চমৎকার নিদর্শন আছে তার মাঝে ঝর্ণা ও জলপ্রপাত অন্যতম। পাহারের গা বেয়ে জলের ধারা মনমুগ্ধকর সৌন্দর্য তৈরি করে নেমে আসে! এদের কিছুকে বলা হয় ঝর্ণা, আবার কিছুকে বলা হয় জলপ্রপাত। নামের এরকম পার্থক্য হবার কারণ কি? পার্থক্যটা কি উচ্চতায় না বিশালতায়, নাকি জলধারার তীব্রতায়? ব্যাপারটা কি এমন, যে জলরাশি বেশী উঁচু থেকে পড়ে সেটা জলপ্রপাত, আর কম উঁচু থেকে পড়লে ঝর্ণা? অথবা জলপ্রপাত আকারে বিশাল হয়, সে তুলনায় ঝর্ণা ছোট হয়ে থাকে? ব্যাপারটা আসলে এমন নয়। কিছু জলপ্রপাতের পানি প্রবাহের তীব্রতা অনেক ঝর্ণার চেয়েও কম হয়ে থাকে। আবার কিছু কিছু ঝর্ণা অনেক জলপ্রপাতের চেয়েও আকারে বড় হয়, বেশী উঁচু থেকে পতিত হত। তাহলে ঝর্ণা আর জলপ্রপাতের মাঝে মূল পার্থক্যটা কি ? ভূপৃষ্ঠের উপর দিয়ে প্রবাহিত জলধারা যখন কোন খাড়াপ্রান্তে এসে নিচে পতিত হয় তখন তাকে জলপ্রপাত বলে। হয়তো বিশাল একটা নদী অথবা সরু একটা জলপ্রবাহ পাহাড় বেয়ে নামতে নামতে হঠাৎ পাহড়ের খাড়া প্রান্ত থেকে নিচে পতিত হলো, আর তখনই একটি দৃষ্টিনন্দন জলপ্রপাতের সৃষ্টি হয়। বরফের বিশাল বিশাল খন্ডের উপরিতল গলে সৃষ্ট পানি প্রবাহিত হয়ে বরফ খন্ডের কোন খাড়া প্রান্ত দিয়ে নিচে পতিত হয়েও জলপ্রপাতের জন্ম হতে পারে। অন্যদিকে, মাটির নিচে জমা হওয়া পানি পাহাড়ের কোন খাড়া অংশ ফুঁড়ে বেরিয়ে আসলে ঝর্ণার সৃষ্টি হয়। বৃষ্টি, বন্যা, নদীর বা বরফ গলা পানি মাটির কথা ভেদ করে ভূপৃষ্ঠের উপরিতল থেকে নিচের দিকে নামতে থাকে। এই পানিগুলো মাটির নিচের কোন শিলাস্তরে পৌঁছুলে সেগুলো ভেদ করে আর নিচে নামতে পারে না। তখন পানিগুলো শিলাস্তরের উপর জমা হতে হতে একসময় মাটির নীচ দিয়ে শিলাস্তরের ঢালু অংশ বরাবর সরে আসতে থাকে। পাহাড়ি বা উঁচু এলাকায় মাটির নীচে শিলাস্তরের উপর জমে থাকা পানি এভাবে সরতে সরতে কোন খাড়া প্রান্ত পেয়ে গেলে পানিগুলো মাটি ফুঁড়ে বেরিয়ে এসে অপূর্ব ঝর্ণার সৃষ্টি করে। বড় আর বিশাল বিশাল নদী পাহাড়ের গা বেয়ে এঁকেবেঁকে নামতে গিয়ে অনেক জলপ্রপাত তৈরি করে বলে পৃথিবীতে যেমন বিশাল বিশাল জলপ্রপাত আছে, তেমনি বিশাল বিশাল ঝর্ণা নেই। সে হিসেবে ঝর্ণারা জলপ্রপাতদের মত অত বিস্তৃত, উন্মক্ত, আর প্রবল প্রতাপশালী নয়। আবার, কিছু কিছু জলপ্রপাত অনেক ঝর্ণার চেয়েও ছোট, খাটো আর শান্ত! হয়ত পাহাড়ের উপর দিয়ে বয়ে চলা খুব ছোট্ট, খুব শান্ত একটি জলধারা অসংখ্য.পাথরের গা বেয়ে কলকল শব্দ করে অলস ভঙ্গিতে নেমে এসে শান্ত একটি জলপ্রপাত তৈরি করে। Jharna ! Jharna ! Sundari Jharna ” Prithibite Prakritir Je Sab Chamtkar Nidarshan Ache Taur Majhe Jharna O Jalaprapat Anyatam Paharer Ga Baie Jaler Dhara Manamugdhakar Saundarjya Tairi Kare Neme Ase Eder Kichhuke Bala Hya Jharna Abar Kichhuke Bala Hya Jalaprapat Namer Erakam Parthakya Habar Karan Ki Parthakyata Ki Uchchatay Na Bishaltay Naki Jaladharar Tibratay Byaparata Ki Eman Je Jalarashi Beshi Unchu Theke Pare SATA Jalaprapat Are Com Unchu Theke Parale Jharna Athaba Jalaprapat Akare Vishal Hya Say Tulnay Jharna Chhot Huye Thake Byaparata Ashley Eman Noy Kichhu Jalaprapater Pani Prabaher Tibrata Anek Jharnar Cheyeo Com Huye Thake Abar Kichhu Kichhu Jharna Anek Jalaprapater Cheyeo Akare Bar Hya Beshi Unchu Theke Patit Hato Tahle Jharna Are Jalaprapater Majhe Mul Parthakyata Ki Bhuprishther Upar Diye Prabahit Jaladhara Jakhan Koun Kharaprante Ese Niche Patit Hya Takhan Take Jalaprapat Ble Hayato Vishal Ekata Nadi Athaba Saru Ekata Jalaprabah Pahad Baie Namte Namte Hathat Pahrer Khara Pranta Theke Niche Patit Holo Are Takhanai Ekati Drishtinandan Jalaprapater Srishti Hya Barafer Vishal Vishal Khander Uparital Galle Srishta Pani Prabahit Huye Baraf Khander Koun Khara Pranta Diye Niche Patit Hayeo Jalaprapater Janma Hate Pare Anyadike Matir Niche Zama Hwa Pani Paharer Koun Khara Angsh Funre Beriye Ashley Jharnar Srishti Hya Wristy Banya Nadir Ba Baraf Gola Pani Matir Katha Bhed Kare Bhuprishther Uparital Theke Nicher Dike Namte Thake AE Panigulo Matir Nicher Koun Shilastare Paunchhule Segulo Bhed Kare Are Niche Namte Pare Na Takhan Panigulo Shilastarer Upar Zama Hate Hate Ekasamay Matir Niche Diye Shilastarer Dhaalu Angsh Barabar Sare Asate Thake Pahadi Ba Unchu Elakay Matir Niche Shilastarer Upar Game Thaka Pani Ebhabe Sarate Sarate Koun Khara Pranta Peye Gele Panigulo Mete Funre Beriye Ese APURVA Jharnar Srishti Kare Bar Are Vishal Vishal Nadi Paharer Ga Baie Enkebenke Namte Giye Anek Jalaprapat Tairi Kare Ble Prithibite Jeman Vishal Vishal Jalaprapat Ache Temni Vishal Vishal Jharna Nei Say Hisebe Jharnara Jalaprapatder Matt Ot Bistrita Unmakta Are Prabal Pratapshali Noy Abar Kichhu Kichhu Jalaprapat Anek Jharnar Cheyeo Chhot Khato Are Shanta Hayat Paharer Upar Diye Be Chala Khub Chhotta Khub Shanta Ekati Jaladhara Asankhya Pathrer Ga Baie Kallakal Shabd Kare Also Bhangite Neme Ese Shanta Ekati Jalaprapat Tairi Kare
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


ঝর্ণা কি : রিছাং ঝর্ণা (সাপ মারা রিসাং ঝর্ণা নামেও পরিচিত) খাগড়াছড়ি জেলায় মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা গ্রামে অবস্থিত একটি পাহাড়ি ঝর্ণা। খাগড়াছড়ি শহর থেকে এর দূরত্ব প্রায় ১০ কি.মি.। এই ঝর্ণার উচ্চতা প্রায় ১০০ ফুট। নামের উৎপত্তি রিছাং শব্দটি এসেছে খাগড়াছড়ির মারমা সম্প্রদায়ের ভাষা থেকে । মারমা ভাষায় রিং শব্দের অর্থ পানি আর ছাং এর অর্থ উঁচু স্থান হতে কোনো কিছু গড়িয়ে পড়াকে বুঝায় । অর্থাৎ রিছাং শব্দ দ্বারা উঁচু স্থান হতে জলরাশি গড়িয়ে পড়াকে বুঝায় ।এর অপর নাম তেরাং তৈকালাই। তৈদুছড়া ঝর্না বাংলাদেশের খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলায় অবস্থিত। ত্রিপুরা ভাষায় তৈদু মানে হল পানির দরজা এবং ছড়া মানে ঝর্ণা । তৈদুছড়া ঝর্ণা ৩০০ ফুট উঁচু। পাহাড়ের গায়ে অসংখ্য পাথরের ধাপ আছে। এই ধাপ বেয়ে জল গড়িয়ে পড়ে নিচে। এই প্রাকৃতিক বৈচিত্রতা তৈদুছড়া ঝর্ণাকে দিয়েছে ভিন্ন মাত্রা। খাগড়াছড়িতে যে কয়টি দর্শনীয় স্থান রয়েছে তৈদুছড়া তাদের মধ্যে অন্যতম। জঙ্গেলর মাঝে আঁকা বাঁকা পাহাড়ের ভাঁজ দিয়ে বয়ে চলে তৈদুছড়া ঝর্ণার জল। শীতল স্বচ্ছ টলমলে জলের কলকল করে ছুটে চলার শব্দে মুখিরত হয় চারপাশ। ৩০০ ফুট উচু পাহাড় হতে গড়িয়ে পড়া পানি এসে পরে পাথুরে ভূমিতে। অন্য সকল ঝর্ণার মত এর পানি সরাসরি উপর হতে নিচে পড়ে না। পাহাড়ের গায়ে সিড়ির মত তৈরি হওয়া পাথুরে ধাপ গুলো অতিক্রম করে নিচে পড়ে তৈদুছড়া ঝর্ণার পানি। তৈদুছড়া ঝর্ণার ডানপাশ দিয়ে পাহাড়ের উপরে থাংঝাং ঝর্ণা নামে আরেকটি ঝর্ণা আছে। থাংঝাং ঝর্ণার পানি একটা ঝিরি তৈরি করেছে। এই ঝিরির পানি থেকে তৈদুছড়া ঝর্ণার সৃষ্টি হয়েছে। খৈয়াছড়া ঝর্ণা চট্টগ্রামের মিরসরাই পাহাড়ে অবস্থিত। মিরসরাই উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়নের বড়তাকিয়া বাজারের উত্তর পাশে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ৪.২ কিলোমিটার পূর্বে এই ঝর্ণার অবস্থান। খৈয়াছড়া এলাকার পাহাড়ে অবস্থান বলে এর নামকরণ করা হয়েছে খৈয়াছড়া ঝর্ণা। একে বাংলাদেশের ‘ঝর্ণা রানী’ বলা হয়। বাংলাদেশের সুউচ্চ জলপ্রপাত মাধবকুন্ড। সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা নামক উপজেলায় এই সুন্দর নয়নাভিরাম জলপ্রপাতটির অবস্থান। যে পাহাড়টির গা বেয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছে এ পাহাড়টি সম্পূর্ণ পাথরের যা পাথারিয়া পাহাড় নামে পরিচিত। এই পাহাড়ের উপর দিয়ে গঙ্গামারা ছড়া বহমান। বর্ষাকাল এলে মূল ধারার পাশেই আরেকটা ছোট ধারা তৈরি হয় এবং ভরা বর্ষায় দুটো ধারাই মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় পানির তীব্র তোড়ে।
Romanized Version
ঝর্ণা কি : রিছাং ঝর্ণা (সাপ মারা রিসাং ঝর্ণা নামেও পরিচিত) খাগড়াছড়ি জেলায় মাটিরাঙ্গা উপজেলার সাপমারা গ্রামে অবস্থিত একটি পাহাড়ি ঝর্ণা। খাগড়াছড়ি শহর থেকে এর দূরত্ব প্রায় ১০ কি.মি.। এই ঝর্ণার উচ্চতা প্রায় ১০০ ফুট। নামের উৎপত্তি রিছাং শব্দটি এসেছে খাগড়াছড়ির মারমা সম্প্রদায়ের ভাষা থেকে । মারমা ভাষায় রিং শব্দের অর্থ পানি আর ছাং এর অর্থ উঁচু স্থান হতে কোনো কিছু গড়িয়ে পড়াকে বুঝায় । অর্থাৎ রিছাং শব্দ দ্বারা উঁচু স্থান হতে জলরাশি গড়িয়ে পড়াকে বুঝায় ।এর অপর নাম তেরাং তৈকালাই। তৈদুছড়া ঝর্না বাংলাদেশের খাগড়াছড়ি জেলার দীঘিনালা উপজেলায় অবস্থিত। ত্রিপুরা ভাষায় তৈদু মানে হল পানির দরজা এবং ছড়া মানে ঝর্ণা । তৈদুছড়া ঝর্ণা ৩০০ ফুট উঁচু। পাহাড়ের গায়ে অসংখ্য পাথরের ধাপ আছে। এই ধাপ বেয়ে জল গড়িয়ে পড়ে নিচে। এই প্রাকৃতিক বৈচিত্রতা তৈদুছড়া ঝর্ণাকে দিয়েছে ভিন্ন মাত্রা। খাগড়াছড়িতে যে কয়টি দর্শনীয় স্থান রয়েছে তৈদুছড়া তাদের মধ্যে অন্যতম। জঙ্গেলর মাঝে আঁকা বাঁকা পাহাড়ের ভাঁজ দিয়ে বয়ে চলে তৈদুছড়া ঝর্ণার জল। শীতল স্বচ্ছ টলমলে জলের কলকল করে ছুটে চলার শব্দে মুখিরত হয় চারপাশ। ৩০০ ফুট উচু পাহাড় হতে গড়িয়ে পড়া পানি এসে পরে পাথুরে ভূমিতে। অন্য সকল ঝর্ণার মত এর পানি সরাসরি উপর হতে নিচে পড়ে না। পাহাড়ের গায়ে সিড়ির মত তৈরি হওয়া পাথুরে ধাপ গুলো অতিক্রম করে নিচে পড়ে তৈদুছড়া ঝর্ণার পানি। তৈদুছড়া ঝর্ণার ডানপাশ দিয়ে পাহাড়ের উপরে থাংঝাং ঝর্ণা নামে আরেকটি ঝর্ণা আছে। থাংঝাং ঝর্ণার পানি একটা ঝিরি তৈরি করেছে। এই ঝিরির পানি থেকে তৈদুছড়া ঝর্ণার সৃষ্টি হয়েছে। খৈয়াছড়া ঝর্ণা চট্টগ্রামের মিরসরাই পাহাড়ে অবস্থিত। মিরসরাই উপজেলার খৈয়াছড়া ইউনিয়নের বড়তাকিয়া বাজারের উত্তর পাশে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ৪.২ কিলোমিটার পূর্বে এই ঝর্ণার অবস্থান। খৈয়াছড়া এলাকার পাহাড়ে অবস্থান বলে এর নামকরণ করা হয়েছে খৈয়াছড়া ঝর্ণা। একে বাংলাদেশের ‘ঝর্ণা রানী’ বলা হয়। বাংলাদেশের সুউচ্চ জলপ্রপাত মাধবকুন্ড। সিলেট বিভাগের মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা নামক উপজেলায় এই সুন্দর নয়নাভিরাম জলপ্রপাতটির অবস্থান। যে পাহাড়টির গা বেয়ে পানি গড়িয়ে পড়ছে এ পাহাড়টি সম্পূর্ণ পাথরের যা পাথারিয়া পাহাড় নামে পরিচিত। এই পাহাড়ের উপর দিয়ে গঙ্গামারা ছড়া বহমান। বর্ষাকাল এলে মূল ধারার পাশেই আরেকটা ছোট ধারা তৈরি হয় এবং ভরা বর্ষায় দুটো ধারাই মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় পানির তীব্র তোড়ে। Jharna Ki : Richhang Jharna Sap Mara Risang Jharna Nameo Parichit Khagrachhri Jelay Matiranga Upajelar Sapmara Grame Abasthit Ekati Pahari Jharna Khagrachhri Sahor Theke Aare Duratba Pray 10 Ki Me AE Jharnar Uchchata Pray 100 Foot Namer Utpatti Richhang Shabdati Esechhe Khagrachhrir Marma Sampradayer Bhasha Theke Marma Bhashay Ring Shabder Earth Pani Are Chhang Aare Earth Unchu Sthan Hate Kono Kichhu Gariye Parake Bujhay Arthat Richhang Shabd Dwara Unchu Sthan Hate Jalarashi Gariye Parake Bujhay Aare Apr NAM Terang Taikalai Taiduchhara Jharna Bangladesher Khagrachhri Jelar Dighinala Upajelay Abasthit Tripura Bhashay Taidu Mane Hall Panir Daraja Evan Chhara Mane Jharna Taiduchhara Jharna 300 Foot Unchu Paharer Gaye Asankhya Pathrer Dhap Ache AE Dhap Beye Jalla Gariye Pare Niche AE Praakritik Baichitrata Taiduchhara Jharnake Diyechhe Bhinna Maatra Khagrachhrite Je Kayati Darshaniya Sthan Rayechhe Taiduchhara Tader Madhye Anyatam Jangelar Majhe Anka Banka Paharer Bhanj Diye Baye Chale Taiduchhara Jharnar Jalla Sheetal Swachchh Talamale Jaler Kallakal Kare Chhute Chalar Shabde Mukhirat Hay Charpash 300 Foot Uchu Pahar Hate Gariye Para Pani Ese Pare Pathure Bhumite Anya Sakal Jharnar Matt Aare Pani Sarasari Upar Hate Niche Pare Na Paharer Gaye Sirir Matt Tairi Hwa Pathure Dhap Gulo Atikram Kare Niche Pare Taiduchhara Jharnar Pani Taiduchhara Jharnar Danpash Diye Paharer Upare Thangjhang Jharna Name Arekati Jharna Ache Thangjhang Jharnar Pani Ekata Jhiri Tairi Karechhe AE Jhirir Pani Theke Taiduchhara Jharnar Srishti Hayechhe Khaiyachhara Jharna Chattagramer Mirasarai Pahare Abasthit Mirasarai Upajelar Khaiyachhara Yuniyner Baratakiya Bajarer Uttar PAUSE Dhaka Chattagram Mahasaraker 4 2 KM Purbe AE Jharnar Abasthan Khaiyachhara Elakar Pahare Abasthan Ble Aare Namakaran Kara Hayechhe Khaiyachhara Jharna Aka Bangladesher ‘jharna Ranio Bala Hya Bangladesher Suuchch Jalaprapat Madhabakund Silet Bibhager Maulbhibajar Jelar Baralekha Namak Upajelay AE Sundar Nayanabhiram Jalaprapattir Abasthan Je Pahartir Ga Beye Pani Gariye Parachhe A Paharati Sampurna Pathrer Ja Pathariya Pahar Name Parichit AE Paharer Upar Diye Gangamara Chhara Bahaman Barshakal Alley Mul Dharar Pashei Arekata Chhot Dhara Tairi Hay Evan Bhara Barshay Duto Dharai Milemishe Ekakar Haye Jay Panir Tibra Tore
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Jharna Ki,What Is The Fountain,


vokalandroid