বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা? ...

বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা : প্রাত্যহিক জীবনে বিজ্ঞান: প্রতিদিন ঘুম ভাঙার পর থেকে আমরা যেভাবে জীবন শুরু করি তার প্রতিটি ক্ষেত্রে বিজ্ঞানের ছায়াপাত রয়েছে। প্রতিদিন সকালবেলা সবার ঘরে ঘরে পৌঁছে যায় সংবাদপত্র। যার মাধ্যমে সারাবিশ্বের সব ধরনের ঘটনার খবর পাই। গ্রামীণ জীবনের তুলনায় শহরের প্রাত্যহিক জীবনে বিজ্ঞানের ছোঁয়া বেশি। সকালবেলার চা, নাস্তা, সারাদিনের খাবার তৈরির জন্য গ্যাস, স্টোভ, বৈদ্যুতিক চুল্লীর দরকার হয়। খাবার গরম করার জন্য ওভেন, সংরক্ষণের জন্য রেফ্রিজারেটর সবই বিজ্ঞানের আবিষ্কার। তবে বিজ্ঞানের প্রভাব এখন আর শহরে সীমাবদ্ধ নয় গ্রামাঞ্চলেও এর প্রভাব বিস্তৃত হচ্ছে। টেলিভিশন, রেডিও, ভিসিডি, ডিভিডি বিনোদনের অন্যতম উপায়। এছাড়াও দৈনন্দিন প্রয়োজনে ব্যবহৃত টেলিফোন, মোবাইল, ই-মেইল, ফ্যাক্স, বিভিন্ন যানবাহন বিজ্ঞানেরই আবিষ্কার। নিত্যনতুন আরো প্রয়োজনীয় জিনিস আবিষ্কারের জন্য বিজ্ঞান শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। শিক্ষাক্ষেত্রে বিজ্ঞান: প্রাচীন শিক্ষাপদ্ধতির তুলনায় বর্তমানে শিক্ষাক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন এসেছে। বর্তমানে শিক্ষকরা চক, ডাস্টার, ব্ল্যাকবোর্ডের পরিবর্তে মাল্টিমিডিয়া রুমে ক্লাস নিচ্ছেন। বর্তমানে অতি সূক্ষ্ম গাণিতিক হিসাব ক্যালকুলেটরের মাধ্যমে সহজেই করা যায়। টেলিভিশন, বেতার যেমন বিজ্ঞানের আবিষ্কার তেমনি শিক্ষার উপকরণ কম্পিউটারও বিজ্ঞানের এক বিস্ময়কর আবিষ্কার। এটি শিক্ষাক্ষেত্রে অভাবনীয় সাফল্য নিয়ে এসেছে। শিক্ষার্থীরা কম্পিউটারে মাধ্যমে নিজেরাই বিভিন্ন বিষয় শিখতে পারছে যা পূর্বে কখনোই করা যেত না। ইন্টারনেটের মাধ্যমে সারাবিশ্বের বিখ্যাত লেখদের বই, বিভিন্ন দেশের শিক্ষাব্যবস্থা সম্পর্কে মুহুর্তের মধ্যেই জানা যায়। আধুনিক বিজ্ঞাননির্ভর শিক্ষাব্যবস্থায় শিক্ষকরা যেমন পেয়েছে স্বস্তি ছাত্র-ছাত্রীরাও হয়ে উঠেছে স্ব-নির্ভর। এই অবস্থাকে আরো গতিশীল করতে বিজ্ঞান শিক্ষার প্রয়োজনীতা অপরিসীম। চিকিৎসাক্ষেত্রে বিজ্ঞান শিক্ষা: বিজ্ঞান বিশ্বসভ্যতায় অনেক বিস্ময়কর উপহার দিয়েছে। এ বিস্ময়ের অন্যতম হলো আধুনিক বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা চিকিৎসাব্যবস্থা। এইসব কারণে বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে সকলের কাছে ।
Romanized Version
বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা : প্রাত্যহিক জীবনে বিজ্ঞান: প্রতিদিন ঘুম ভাঙার পর থেকে আমরা যেভাবে জীবন শুরু করি তার প্রতিটি ক্ষেত্রে বিজ্ঞানের ছায়াপাত রয়েছে। প্রতিদিন সকালবেলা সবার ঘরে ঘরে পৌঁছে যায় সংবাদপত্র। যার মাধ্যমে সারাবিশ্বের সব ধরনের ঘটনার খবর পাই। গ্রামীণ জীবনের তুলনায় শহরের প্রাত্যহিক জীবনে বিজ্ঞানের ছোঁয়া বেশি। সকালবেলার চা, নাস্তা, সারাদিনের খাবার তৈরির জন্য গ্যাস, স্টোভ, বৈদ্যুতিক চুল্লীর দরকার হয়। খাবার গরম করার জন্য ওভেন, সংরক্ষণের জন্য রেফ্রিজারেটর সবই বিজ্ঞানের আবিষ্কার। তবে বিজ্ঞানের প্রভাব এখন আর শহরে সীমাবদ্ধ নয় গ্রামাঞ্চলেও এর প্রভাব বিস্তৃত হচ্ছে। টেলিভিশন, রেডিও, ভিসিডি, ডিভিডি বিনোদনের অন্যতম উপায়। এছাড়াও দৈনন্দিন প্রয়োজনে ব্যবহৃত টেলিফোন, মোবাইল, ই-মেইল, ফ্যাক্স, বিভিন্ন যানবাহন বিজ্ঞানেরই আবিষ্কার। নিত্যনতুন আরো প্রয়োজনীয় জিনিস আবিষ্কারের জন্য বিজ্ঞান শিক্ষার প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। শিক্ষাক্ষেত্রে বিজ্ঞান: প্রাচীন শিক্ষাপদ্ধতির তুলনায় বর্তমানে শিক্ষাক্ষেত্রে আমূল পরিবর্তন এসেছে। বর্তমানে শিক্ষকরা চক, ডাস্টার, ব্ল্যাকবোর্ডের পরিবর্তে মাল্টিমিডিয়া রুমে ক্লাস নিচ্ছেন। বর্তমানে অতি সূক্ষ্ম গাণিতিক হিসাব ক্যালকুলেটরের মাধ্যমে সহজেই করা যায়। টেলিভিশন, বেতার যেমন বিজ্ঞানের আবিষ্কার তেমনি শিক্ষার উপকরণ কম্পিউটারও বিজ্ঞানের এক বিস্ময়কর আবিষ্কার। এটি শিক্ষাক্ষেত্রে অভাবনীয় সাফল্য নিয়ে এসেছে। শিক্ষার্থীরা কম্পিউটারে মাধ্যমে নিজেরাই বিভিন্ন বিষয় শিখতে পারছে যা পূর্বে কখনোই করা যেত না। ইন্টারনেটের মাধ্যমে সারাবিশ্বের বিখ্যাত লেখদের বই, বিভিন্ন দেশের শিক্ষাব্যবস্থা সম্পর্কে মুহুর্তের মধ্যেই জানা যায়। আধুনিক বিজ্ঞাননির্ভর শিক্ষাব্যবস্থায় শিক্ষকরা যেমন পেয়েছে স্বস্তি ছাত্র-ছাত্রীরাও হয়ে উঠেছে স্ব-নির্ভর। এই অবস্থাকে আরো গতিশীল করতে বিজ্ঞান শিক্ষার প্রয়োজনীতা অপরিসীম। চিকিৎসাক্ষেত্রে বিজ্ঞান শিক্ষা: বিজ্ঞান বিশ্বসভ্যতায় অনেক বিস্ময়কর উপহার দিয়েছে। এ বিস্ময়ের অন্যতম হলো আধুনিক বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা চিকিৎসাব্যবস্থা। এইসব কারণে বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা রয়েছে সকলের কাছে ।Bigyan Pather Prayojniyta : Pratyahik Jibne Bigyan Pratidin Ghum Bhangar Par Theke Amara Jebhabe Jeevan Shuru Kari Taur Pratiti Xetre Bigyaner Chhayapat Rayechhe Pratidin Sakalbela Sawaar Ghare Ghare Paunchhe Jay Sangbadapatra Jar Madhyame Sarabishwer Sab Dharaner Ghatanar Khabar Pai Gramin Jibner Tulnay Shaharer Pratyahik Jibne Bigyaner Chhonya Bedshee Sakalbelar Chau Nasta Saradiner Khabar Tairir Janya Gas Stove Baidyutik Chullir Darakar Hay Khabar Garam Karar Janya Oven Sangrakshaner Janya Refrigerator Sabai Bigyaner Abishkar Tove Bigyaner Prabhab Ekhan Are Shahare Simabaddha Noy Gramanchaleo Aare Prabhab Bistrita Hachchhe Television Radio VCD DVD Binodner Anyatam Upaay Echharao Dainandin Prayojane Byabahrit Telephone Mobile E Mail Fax Bibhinna Janbahan Bigyanerai Abishkar Nityanatun Aro Prayojniya Zeneca Abishkarer Janya Bigyan Shikshar Prayojniyta Aparisim Shikshakshetre Bigyan Prachin Shikshapaddhatir Tulnay Bartamane Shikshakshetre Amul Parivartan Esechhe Bartamane Shikshakara Shock Dastar Blyakaborder Paribarte Multimedia Rume Class Nichchhen Bartamane Atti Sukshma Ganitik Hisab Kyalakuletrer Madhyame Sahajei Kara Jay Television Betar Jeman Bigyaner Abishkar Temni Shikshar Upakaran Kampiutarao Bigyaner Ec Bismayakar Abishkar AT Shikshakshetre Abhabniya Safalya Niye Esechhe Shiksharthira Kampiutare Madhyame Nijerai Bibhinna Vysya Shikhte Parchhe Ja Purbe Kakhanoi Kara Jet Na Intaraneter Madhyame Sarabishwer Bikhyat Lekhder By Bibhinna Desher Shikshabyabastha Samparke Muhurter Madhyei Jaana Jay Adhunik Bigyananirbhar Shikshabyabasthay Shikshakara Jeman Peyechhe Swasti Chhatra Chhatrirao Huye Uthechhe Saw Nirbhar AE Abasthake Aro Gatishil Karate Bigyan Shikshar Prayojnita Aparisim Chikitsakshetre Bigyan Siksha Bigyan Bishwasabhyatay Anek Bismayakar Upahar Diyechhe A Bismayer Anyatam Holo Adhunik Bigyan Pather Prayojniyta Chikitsabyabastha Eisab Karne Bigyan Pather Prayojniyta Rayechhe Sakaler Kachhe
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

জুরিসপ্রুডেন্স বা আইন বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা বা আইনবিজ্ঞানের গুরুত্ব কি কি? ...

জুরিসপ্রুডেন্স বা আইন বিজ্ঞান পাঠের প্রয়োজনীয়তা বা আইনবিজ্ঞানের গুরুত্ব সমূহ নিন্মে সংক্ষেপে আলোচনা করা হলোঃ- আইনের উৎপত্তি, ক্রমবিকাশ তথা আইনের উৎকর্ষ সাধনে আইন বিজ্ঞানের অবদার আইনের ইতিসাসে অম্লান ওजवाब पढ़िये
ques_icon

More Answers


সামাজিক বিজ্ঞান হচ্ছে জ্ঞানের এমন একটি শাখা যা সমাজ ও মানবিক আচরণ নিয়ে আলোচনা করে। সামাজিক বিজ্ঞানকে সাধারণত জ্ঞানের একটি বৃহত্তর ক্ষেত্র হিসেবে বিবেচনা করা যার মধ্যে রয়েছে নৃবিজ্ঞান, প্রত্নতত্ত্ব, অপরাধ বিজ্ঞান, অর্থনীতি, শিক্ষা, ইতিহাস, ভাষাবিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, সমাজবিজ্ঞান, মানবিক ভূগোল, মনোবিজ্ঞান। আইন, পরিবেশ বিজ্ঞান, সমাজকর্ম ও তুলনামূলক-সংস্কৃতি অধ্যয়ন এর মতো বিষয়গুলোও কখনো কখনো সামাজিক বিজ্ঞানে আলোচনা করা হয়। কখনো কখনো বিশেষক্ষেত্রে সামাজিক বিজ্ঞান বলতে শুধুমাত্র সমাজবিজ্ঞান বোঝান হয়। এমিল ডুর্খাইম, কার্ল মার্ক্স ও মাক্স ভেবারকে সাধারণত আধুনিক সামাজিক বিজ্ঞানের মূল স্থপতি বলে বিবেচনা করা হয়। দৃষ্টবাদী সামাজিক বিজ্ঞানীরা বিজ্ঞানকে আধুনিক দৃষ্টিতে দেখেন এবং সমাজকে বোঝার ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক বিজ্ঞানের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ পদ্ধতি ব্যবহার করেন। অন্যদিকে, ব্যাখ্যাবাদী সামাজিক বিজ্ঞানীরা অভিজ্ঞতা দ্বারা যাচাইযোগ্য তত্ত্ব প্রতিষ্ঠার বদলে সামাজিক সমালোচনা বা প্রতীকীমূলক ব্যাখ্যা দেন। তারা বিজ্ঞানকে ব্যাপক অর্থে ধরে নেন। তবে আধুনিক গবেষণার ক্ষেত্রে গবেষকরা সাধারণত বহুদর্শনবাদী হয়ে থাকেন এবং গবেষণার ক্ষেত্রে পরিমাণাত্বক ও গুণাত্বক গবেষণা পদ্ধতির মিশেল ব্যবহার করেন। বিভিন্ন বিভাগ ও বিষয়ের সংশ্লিষ্ট মানুষ বর্তমানে সামাজিক গবেষণার লক্ষ্য ও পদ্ধতি নিয়ে কাজ করছেন যা সামাজিক গবেষণাকে একটি স্বাতন্ত্র্য দান করেছে। ব্যাপক অর্থে সমাজ বিজ্ঞান কে সংজ্ঞায়িত করলে বলা যায় যে সমাজ বিজ্ঞান হল মানবসমাজের একটি বস্তুনিষ্ঠ যুক্তিসিদ্ধ বিচার ও নিয়ম ভিত্তিক চর্চা।
Romanized Version
সামাজিক বিজ্ঞান হচ্ছে জ্ঞানের এমন একটি শাখা যা সমাজ ও মানবিক আচরণ নিয়ে আলোচনা করে। সামাজিক বিজ্ঞানকে সাধারণত জ্ঞানের একটি বৃহত্তর ক্ষেত্র হিসেবে বিবেচনা করা যার মধ্যে রয়েছে নৃবিজ্ঞান, প্রত্নতত্ত্ব, অপরাধ বিজ্ঞান, অর্থনীতি, শিক্ষা, ইতিহাস, ভাষাবিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, সমাজবিজ্ঞান, মানবিক ভূগোল, মনোবিজ্ঞান। আইন, পরিবেশ বিজ্ঞান, সমাজকর্ম ও তুলনামূলক-সংস্কৃতি অধ্যয়ন এর মতো বিষয়গুলোও কখনো কখনো সামাজিক বিজ্ঞানে আলোচনা করা হয়। কখনো কখনো বিশেষক্ষেত্রে সামাজিক বিজ্ঞান বলতে শুধুমাত্র সমাজবিজ্ঞান বোঝান হয়। এমিল ডুর্খাইম, কার্ল মার্ক্স ও মাক্স ভেবারকে সাধারণত আধুনিক সামাজিক বিজ্ঞানের মূল স্থপতি বলে বিবেচনা করা হয়। দৃষ্টবাদী সামাজিক বিজ্ঞানীরা বিজ্ঞানকে আধুনিক দৃষ্টিতে দেখেন এবং সমাজকে বোঝার ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক বিজ্ঞানের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ পদ্ধতি ব্যবহার করেন। অন্যদিকে, ব্যাখ্যাবাদী সামাজিক বিজ্ঞানীরা অভিজ্ঞতা দ্বারা যাচাইযোগ্য তত্ত্ব প্রতিষ্ঠার বদলে সামাজিক সমালোচনা বা প্রতীকীমূলক ব্যাখ্যা দেন। তারা বিজ্ঞানকে ব্যাপক অর্থে ধরে নেন। তবে আধুনিক গবেষণার ক্ষেত্রে গবেষকরা সাধারণত বহুদর্শনবাদী হয়ে থাকেন এবং গবেষণার ক্ষেত্রে পরিমাণাত্বক ও গুণাত্বক গবেষণা পদ্ধতির মিশেল ব্যবহার করেন। বিভিন্ন বিভাগ ও বিষয়ের সংশ্লিষ্ট মানুষ বর্তমানে সামাজিক গবেষণার লক্ষ্য ও পদ্ধতি নিয়ে কাজ করছেন যা সামাজিক গবেষণাকে একটি স্বাতন্ত্র্য দান করেছে। ব্যাপক অর্থে সমাজ বিজ্ঞান কে সংজ্ঞায়িত করলে বলা যায় যে সমাজ বিজ্ঞান হল মানবসমাজের একটি বস্তুনিষ্ঠ যুক্তিসিদ্ধ বিচার ও নিয়ম ভিত্তিক চর্চা।Samajik Bigyan Hachchhe Gyaner Eman Ekati Shakha Ja Samaj O Manbik Acharan Niye Alochana Kare Samajik Bigyanake Sadharanat Gyaner Ekati Brihattar Kshetra Hisebe Bibechana Kara Jar Madhye Rayechhe Nribigyan Pratnatattba Aparadh Bigyan Arthaniti Siksha Itihas Bhashabigyan Rashtrabigyan Antarjatik Sampark Samajbigyan Manbik Bhugol Manobigyan Ain Paribesh Bigyan Samajakarma O Tulnamulak Sanskriti Adhyayan Aare Mato Bishayaguloo Kakhano Kakhano Samajik Bigyane Alochana Kara Hay Kakhano Kakhano Bisheshakshetre Samajik Bigyan Volte Shudhumatra Samajbigyan Bojhan Hay Emil Durkhaim Curl Mark O Max Bhebarake Sadharanat Adhunik Samajik Bigyaner Mul Sthapati Ble Bibechana Kara Hay Drishtabadi Samajik Bigyanira Bigyanake Adhunik Drishtite Dekhen Evan Samajake Bojhar Xetre Praakritik Bigyaner Sathe Sadrishyapurna Paddhati Byabahar Curren Anyadike Byakhyabadi Samajik Bigyanira Abhigyata Dwara Jachaijogya Tattva Pratishthar Badale Samajik Samalochna Ba Pratikimulak Byakhya Than Tara Bigyanake Byapak Arthe Dhare Nen Tove Adhunik Gabeshnar Xetre Gabeshakara Sadharanat Bahudarshanabadi Haye Thaken Evan Gabeshnar Xetre Parimanatbak O Gunatbak Gabeshana Paddhatir Mishel Byabahar Curren Bibhinna Bibhag O Bishyer Sangshlishta Manus Bartamane Samajik Gabeshnar Lakshya O Paddhati Niye Kaj Karachhen Ja Samajik Gabeshnake Ekati Swatantrya Dan Karechhe Byapak Arthe Samaj Bigyan K Sanggyayit Karale Bala Jay Je Samaj Bigyan Hall Manabasamajer Ekati Bastunishtha Juktisiddha Bichar O Niyam Bhittik Charcha
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bigyan Pather Prayojniyta,Science Lesson Requirement?,


vokalandroid