বিজ্ঞান যুক্তবর্ণ? ...

আমরা সাধারণত কোন শব্দ বা বাক্য লিখতে গিয়ে যুক্তবর্ণ লিখে থাকি বা ব্যবাহার করে থাকি। যেমন : অন্ন। এখানে অ এর পরে ন এর সাথে আরেকটি ন এর যুক্তবর্ণ করা হয়েছে। কিন্তু বাংলা বর্ণমালায় এমন কতকগুলো বর্ণ আছে যেগুলো গঠনগত দিক থেকেই দু'টি বর্ণের সংযুক্ত রূপ। একটু খেয়াল করলেই দেখা যায় যে এই বর্ণগুলোর উচ্চারণ এবং ব্যবহারে কিছু ভিন্নমাত্রিকতা রয়েছে। সে সম্পর্কে এখানে কিছু আলোচনা তুলে ধরা হলো।১) ক্ষ = বর্ণটি ক ও ষ বর্ণের যুক্তরূপ। আমরা এই বর্ণটাকে বলি খিয়ো। কিন্তু শব্দের মধ্যে এর ব্যবহার খিয়ো রূপে নয়। বরং অন্য দুই প্রকার উচ্চারণে এটার ব্যবহার হয়ে থাকে। যেমন ঃ শব্দের প্রথমে এর উচ্চারণ খ এর মতো। অর্থাৎ ক্ষমা, ক্ষমতা বা এই জাতীয় শব্দগুলো লিখতে খিয়ো ব্যবহৃত হয়। আবার শব্দের মধ্যে বা শেষে এর উচ্চারণ অন্যরকম। যেমন ঃ দক্ষ, রুক্ষ, লক্ষণ ইত্যাদি।২) জ্ঞ = জ ও ঞ বর্ণের যুক্তরূপ। কিন্তু উচ্চারণে এই দুই বর্ণের কোনটাকে পাওয়া যায়না। শব্দের শুরু এবং শেষে দুই রূপে উচ্চারিত হয়ে থাকে। শব্দের শুরুর উচ্চারণে এতে গ এর প্রাধান্য থাকে। যেমন ঃ জ্ঞান, জ্ঞাপন ইত্যাদি। শব্দের শেষেও এর উচ্চারণে গ এর প্রাধান্য থাকে। তবে এখানে গ এর সাথে গ এর সংযুক্ত রূপে উচ্চারিত হয়। যেমন ঃ বিজ্ঞ, অজ্ঞ, বিজ্ঞান ইত্যাদি। ৩) ঞ্জ = ঞ ও জ বর্ণের যুক্তরূপ। এই বর্ণটি কখনও শব্দের শুরুতে ব্যবহৃত হয়না। উচ্চারণে জ এর অস্তিত্ব অটুট থাকলে ঞ এর কোন অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় না। ঞ বর্ণটি এখানে ন এর মতো উচ্চারিত হয়ে থাকে। যেমন ঃ অঞ্জন, ব্যঞ্জন ইত্যাদি।৪) হ্ম = হ ও ম বর্ণের যুক্তরূপ। কিন্তু উচ্চারণে হ বর্ণের জোড় কম। বরং ম বর্ণের উপর বেশি জোড় দেয়া হয়ে থাকে। শব্দের শুরুতে কখনও এই বর্ণটি ব্যবহৃত হয়না। যেমন ঃ ব্রাহ্মণ, ব্রহ্মপুত্র ইত্যাদি। ৫) দ্ম= দ ও ম এর মিলিত রূপ দ্ম কিন্তু উচ্চারনের সময় ম এর কোন উচ্চারণ হয়না। বরং দ দুই বার অর্থাৎ দ এর সাথে দ সংযুক্তরূপে উচ্চারিত হয়। যেমন ঃ পদ্মফুল, পদ্মানদী। ইত্যাদি। সম্ভবত এই বর্ণটিও শব্দের শুরুতে কখনও উচ্চারিত হয়না।
Romanized Version
আমরা সাধারণত কোন শব্দ বা বাক্য লিখতে গিয়ে যুক্তবর্ণ লিখে থাকি বা ব্যবাহার করে থাকি। যেমন : অন্ন। এখানে অ এর পরে ন এর সাথে আরেকটি ন এর যুক্তবর্ণ করা হয়েছে। কিন্তু বাংলা বর্ণমালায় এমন কতকগুলো বর্ণ আছে যেগুলো গঠনগত দিক থেকেই দু'টি বর্ণের সংযুক্ত রূপ। একটু খেয়াল করলেই দেখা যায় যে এই বর্ণগুলোর উচ্চারণ এবং ব্যবহারে কিছু ভিন্নমাত্রিকতা রয়েছে। সে সম্পর্কে এখানে কিছু আলোচনা তুলে ধরা হলো।১) ক্ষ = বর্ণটি ক ও ষ বর্ণের যুক্তরূপ। আমরা এই বর্ণটাকে বলি খিয়ো। কিন্তু শব্দের মধ্যে এর ব্যবহার খিয়ো রূপে নয়। বরং অন্য দুই প্রকার উচ্চারণে এটার ব্যবহার হয়ে থাকে। যেমন ঃ শব্দের প্রথমে এর উচ্চারণ খ এর মতো। অর্থাৎ ক্ষমা, ক্ষমতা বা এই জাতীয় শব্দগুলো লিখতে খিয়ো ব্যবহৃত হয়। আবার শব্দের মধ্যে বা শেষে এর উচ্চারণ অন্যরকম। যেমন ঃ দক্ষ, রুক্ষ, লক্ষণ ইত্যাদি।২) জ্ঞ = জ ও ঞ বর্ণের যুক্তরূপ। কিন্তু উচ্চারণে এই দুই বর্ণের কোনটাকে পাওয়া যায়না। শব্দের শুরু এবং শেষে দুই রূপে উচ্চারিত হয়ে থাকে। শব্দের শুরুর উচ্চারণে এতে গ এর প্রাধান্য থাকে। যেমন ঃ জ্ঞান, জ্ঞাপন ইত্যাদি। শব্দের শেষেও এর উচ্চারণে গ এর প্রাধান্য থাকে। তবে এখানে গ এর সাথে গ এর সংযুক্ত রূপে উচ্চারিত হয়। যেমন ঃ বিজ্ঞ, অজ্ঞ, বিজ্ঞান ইত্যাদি। ৩) ঞ্জ = ঞ ও জ বর্ণের যুক্তরূপ। এই বর্ণটি কখনও শব্দের শুরুতে ব্যবহৃত হয়না। উচ্চারণে জ এর অস্তিত্ব অটুট থাকলে ঞ এর কোন অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় না। ঞ বর্ণটি এখানে ন এর মতো উচ্চারিত হয়ে থাকে। যেমন ঃ অঞ্জন, ব্যঞ্জন ইত্যাদি।৪) হ্ম = হ ও ম বর্ণের যুক্তরূপ। কিন্তু উচ্চারণে হ বর্ণের জোড় কম। বরং ম বর্ণের উপর বেশি জোড় দেয়া হয়ে থাকে। শব্দের শুরুতে কখনও এই বর্ণটি ব্যবহৃত হয়না। যেমন ঃ ব্রাহ্মণ, ব্রহ্মপুত্র ইত্যাদি। ৫) দ্ম= দ ও ম এর মিলিত রূপ দ্ম কিন্তু উচ্চারনের সময় ম এর কোন উচ্চারণ হয়না। বরং দ দুই বার অর্থাৎ দ এর সাথে দ সংযুক্তরূপে উচ্চারিত হয়। যেমন ঃ পদ্মফুল, পদ্মানদী। ইত্যাদি। সম্ভবত এই বর্ণটিও শব্দের শুরুতে কখনও উচ্চারিত হয়না।Amara Sadharanat Koun Shabd Ba Bakya Likhte Giye Juktabarna Likhe Thaki Ba Byabahar Kare Thaki Jeman : Uno Ekhane A Aare Pare Na Aare Sathe Arekati Na Aare Juktabarna Kara Hayechhe Kintu Bangla Barnamalay Eman Katakagulo Burn Ache Jegulo Gathanagat Dik Thekei Du Te Barner Sangjukta Roopa Ekatu Kheyal Karalei Dekha Jay Je AE Barnagulor Uchcharan Evan Byabahare Kichhu Bhinnamatrikata Rayechhe Say Samparke Ekhane Kichhu Alochana Tule Dhara Holo 1 X = Barnati Ca O Sh Barner Juktarup Amara AE Barnatake Bali Khiyo Kintu Shabder Madhye Aare Byabahar Khiyo Rupe Noy Wrong Anya Dui Prakar Uchcharane Etar Byabahar Huye Thake Jeman H Shabder Prathame Aare Uchcharan Kh Aare Mato Arthat Xama Xamata Ba AE Jatiya Shabdagulo Likhte Khiyo Byabahrit Hay Abar Shabder Madhye Ba Sheshe Aare Uchcharan Anyarakam Jeman H Daksh Rukh Lakshan Ityadi 2 Gy = Jaw O Ny Barner Juktarup Kintu Uchcharane AE Dui Barner Kontake Powa Jayna Shabder Shuru Evan Sheshe Dui Rupe Uchcharit Huye Thake Shabder Shurur Uchcharane Ete G Aare Pradhanya Thake Jeman H Gyan Gyapan Ityadi Shabder Shesheo Aare Uchcharane G Aare Pradhanya Thake Tove Ekhane G Aare Sathe G Aare Sangjukta Rupe Uchcharit Hay Jeman H Bigya Agya Bigyan Ityadi 3 Nyj = Ny O Jaw Barner Juktarup AE Barnati Kakhanao Shabder Shurute Byabahrit Hayana Uchcharane Jaw Aare Astitva Atut Thakle Ny Aare Koun Astitva Khunje Powa Jay Na Ny Barnati Ekhane Na Aare Mato Uchcharit Huye Thake Jeman H Anjan Byanjan Ityadi 4 Hma = H O Mo Barner Juktarup Kintu Uchcharane H Barner Jodda Com Wrong Mo Barner Upar Bedshee Jodda Dea Huye Thake Shabder Shurute Kakhanao AE Barnati Byabahrit Hayana Jeman H Brahman Brahmaputra Ityadi 5 Dma The O Mo Aare Milit Roopa Dma Kintu Uchcharaner Camay Mo Aare Koun Uchcharan Hayana Wrong The Dui Bar Arthat The Aare Sathe The Sangjuktarupe Uchcharit Hay Jeman H Padmaful Padmanadi Ityadi Sambhabat AE Barnatio Shabder Shurute Kakhanao Uchcharit Hayana
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


বাংলা বর্ণমালার কয়েকটি যুক্তবর্ণ এবং তাদের বিশেষ চরিত্রাভিধান। ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ দুপুর ২:০২. এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে : ... যেমন ঃ বিজ্ঞ, অজ্ঞ, বিজ্ঞান ইত্যাদি। ৩) ঞ্জ = ঞ ও জ বর্ণের যুক্তরূপ। এই বর্ণটি কখনও শব্দের শুরুতে ব্যবহৃত হয়না। উচ্চারণে জ এর অস্তিত্ব অটুট থাকলে ঞ এর কোন অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় না। বিসিএস এবং ব্যাংক সরকারি চাকরি প্রিপারেশনদের জন্য যুক্তবর্ণ ২৮৪টি। এখান থেকে একটি প্রশ্ন হয়ে থাকে: 1. ক্ক = ক + ক; যেমন- আক্কেল, টেক্কা. 2. ক্ট = ক + ট; যেমন- ডক্টর (মন্তব্য: এই যুক্তাক্ষরটি মূলত ইংরেজী/ বিদেশী কৃতঋণ শব্দে ব্যবহৃত). 3. ক্ট্র = ক + ট + র; যেমন- অক্ট্রয়. 4. ক্ত = ক + ত; যেমন- রক্ত. 5. ক্ত্র = ক + ত + র; ।
Romanized Version
বাংলা বর্ণমালার কয়েকটি যুক্তবর্ণ এবং তাদের বিশেষ চরিত্রাভিধান। ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ দুপুর ২:০২. এই পোস্টটি শেয়ার করতে চাইলে : ... যেমন ঃ বিজ্ঞ, অজ্ঞ, বিজ্ঞান ইত্যাদি। ৩) ঞ্জ = ঞ ও জ বর্ণের যুক্তরূপ। এই বর্ণটি কখনও শব্দের শুরুতে ব্যবহৃত হয়না। উচ্চারণে জ এর অস্তিত্ব অটুট থাকলে ঞ এর কোন অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় না। বিসিএস এবং ব্যাংক সরকারি চাকরি প্রিপারেশনদের জন্য যুক্তবর্ণ ২৮৪টি। এখান থেকে একটি প্রশ্ন হয়ে থাকে: 1. ক্ক = ক + ক; যেমন- আক্কেল, টেক্কা. 2. ক্ট = ক + ট; যেমন- ডক্টর (মন্তব্য: এই যুক্তাক্ষরটি মূলত ইংরেজী/ বিদেশী কৃতঋণ শব্দে ব্যবহৃত). 3. ক্ট্র = ক + ট + র; যেমন- অক্ট্রয়. 4. ক্ত = ক + ত; যেমন- রক্ত. 5. ক্ত্র = ক + ত + র; ।Bangla Barnamalar Kayekati Juktabarna Evan Tader Vishesha Charitrabhidhan 24 She Februyari 2015 Dupur 2 02 AE Postati Sheyar Karate Chaile : ... Jeman H Bigya Agya Bigyan Ityadi 3 Nyj = Ny O Jaw Barner Juktarup AE Barnati Kakhanao Shabder Shurute Byabahrit Hayana Uchcharane Jaw Aare Astitva Atut Thakle Ny Aare Koun Astitva Khunje Pawa Jay Na BCS Evan Bank Sarakari Chakri Pripareshanader Janya Juktabarna 284ti Ekhan Theke Ekati Prashna Haye Thake 1. Kk = Ca + Ca Jeman Akkala Tekka 2. Kta = Ca + T Jeman Doctor Mantabya AE Juktaksharati Mulat Ingreji Bideshi Kritrin Shabde Byabahrit 3. Ktra = Ca + T + Ra Jeman Aktray 4. Kta = Ca + To Jeman Rakta 5. Ktra = Ca + To + Ra
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bigyan Juktabarna,Science Is Additive?,


vokalandroid