বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা কি? ...

বিচার পর্যালোচনা বাংলাদেশের বিচার বিভাগ, শাসন বিভাগ থেকে পৃথক তথাপিও এ কথা বলা যেতে পারে যে, সত্যিকারের স্বাধীনতার জন্য আমাদের হয়তো আরো কিছুকাল অপেক্ষা করতেই হবে। বিচার পর্যালোচনা কি বিভাগের স্বাধীনতা ও পৃথকীকরণের মধ্যে মৌলিক কিছু পার্থক্য বিদ্যমান। বিচার বিভাগ পৃথক হওয়ার পর্যালোচনা কি অর্থ হতে পারে অবকাঠামোগত কিছু পার্থক্য। এই পৃথকীকরণে সাধারণ বিচারপ্রার্থীদের কতটুকু অর্জন হয়েছে সে কি বিষয়টি আপেক্ষিক। অন্যদিকে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার জন্য শুধু শাসন বিভাগ থেকে পৃথকীকরণ বুঝায় না বরং বিচারকদের দক্ষতা, দুর্নীতিমুক্ত এবং মুক্ত চেতনার বিষয়টি প্রাসঙ্গিক বলে বিবেচনা করা যেতে পারে। বাংলাদেশ উন্নয়নশীল বিশ্বের একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। আমাদের দেশে নির্বাচিত সরকার, আইন পরিষদ ও দীর্ঘদিনের প্রতিষ্ঠিত বিচার ব্যবস্থার বিচারে দেশে গণতন্ত্রকামী জনগণের মনের আকাক্সক্ষা পূর্ণ করার উপযোগী পরিবেশ বিদ্যমান তথাপিও বাস্তবে এ রাষ্ট্রে আইনের শাসনের প্রতিফলন ঠিক সে রকম ফলাও করে লেখার মতো নয়। বোধ করি সে কারণে এশিয়া ও ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলোকে এঁহহবৎ গুৎফধষ এক কথায় বলেছিলেন ঝড়ভঃ ঝড়পরবঃু। তিনি মনে করেন আমাদের মতো দেশে রাষ্ট্রিয় ক্ষমতা ও কৃতিত্ব¡ যাদের কাছে থাকে তারা প্রায়শই ভুলে যান যে তাদের সে ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব দেশের প্রচলিত আইন ও আইন প্রতিষ্ঠানের অধীনে। যদি বিচার বিভাগ স্বাধীন হয় তবে গণতন্ত্র শক্তিশালী ভিত্তির ওপর সুপ্রতিষ্ঠিত হতে পারে। সেদিক বিবেচনায় বিচার বিভাগের স্বাধীনতা আমাদের রাষ্ট্রের জন্য ইতিবাচক পদক্ষেপ। বাংলাদেশের মতো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে দেশটির সার্বিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখা ও ন্যায়নীতি প্রতিষ্ঠা করা শুধুমাত্র স্বাধীন বিচার বিভাগের একার পক্ষে সম্ভব নয়। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরকারের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি থাকতে হবে। শাসন বিভাগের থেকে বিচার বিভাগের পৃথকীকরণ হওয়ার কারণে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত হওয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী ধাপ অতিক্রম করেছে মাত্র। বিচার বিভাগের নিকট থেকে ন্যায়বিচার পাওয়ার বিষয় যে সকল উদ্যোগের ওপর নির্ভর করে তার মধ্যে অন্যতম একটি অনুসঙ্গ হলো বিচারকদের সৎ ও দুর্নীতিমুক্ত মানসিকতা। বিচারকগণ যদি ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার সংকল্পে শক্ত অবস্থান গ্রহণ করেন তবে পরিবর্তন আসবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।
Romanized Version
বিচার পর্যালোচনা বাংলাদেশের বিচার বিভাগ, শাসন বিভাগ থেকে পৃথক তথাপিও এ কথা বলা যেতে পারে যে, সত্যিকারের স্বাধীনতার জন্য আমাদের হয়তো আরো কিছুকাল অপেক্ষা করতেই হবে। বিচার পর্যালোচনা কি বিভাগের স্বাধীনতা ও পৃথকীকরণের মধ্যে মৌলিক কিছু পার্থক্য বিদ্যমান। বিচার বিভাগ পৃথক হওয়ার পর্যালোচনা কি অর্থ হতে পারে অবকাঠামোগত কিছু পার্থক্য। এই পৃথকীকরণে সাধারণ বিচারপ্রার্থীদের কতটুকু অর্জন হয়েছে সে কি বিষয়টি আপেক্ষিক। অন্যদিকে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করার জন্য শুধু শাসন বিভাগ থেকে পৃথকীকরণ বুঝায় না বরং বিচারকদের দক্ষতা, দুর্নীতিমুক্ত এবং মুক্ত চেতনার বিষয়টি প্রাসঙ্গিক বলে বিবেচনা করা যেতে পারে। বাংলাদেশ উন্নয়নশীল বিশ্বের একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। আমাদের দেশে নির্বাচিত সরকার, আইন পরিষদ ও দীর্ঘদিনের প্রতিষ্ঠিত বিচার ব্যবস্থার বিচারে দেশে গণতন্ত্রকামী জনগণের মনের আকাক্সক্ষা পূর্ণ করার উপযোগী পরিবেশ বিদ্যমান তথাপিও বাস্তবে এ রাষ্ট্রে আইনের শাসনের প্রতিফলন ঠিক সে রকম ফলাও করে লেখার মতো নয়। বোধ করি সে কারণে এশিয়া ও ল্যাটিন আমেরিকার দেশগুলোকে এঁহহবৎ গুৎফধষ এক কথায় বলেছিলেন ঝড়ভঃ ঝড়পরবঃু। তিনি মনে করেন আমাদের মতো দেশে রাষ্ট্রিয় ক্ষমতা ও কৃতিত্ব¡ যাদের কাছে থাকে তারা প্রায়শই ভুলে যান যে তাদের সে ক্ষমতা ও কর্তৃত্ব দেশের প্রচলিত আইন ও আইন প্রতিষ্ঠানের অধীনে। যদি বিচার বিভাগ স্বাধীন হয় তবে গণতন্ত্র শক্তিশালী ভিত্তির ওপর সুপ্রতিষ্ঠিত হতে পারে। সেদিক বিবেচনায় বিচার বিভাগের স্বাধীনতা আমাদের রাষ্ট্রের জন্য ইতিবাচক পদক্ষেপ। বাংলাদেশের মতো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে দেশটির সার্বিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখা ও ন্যায়নীতি প্রতিষ্ঠা করা শুধুমাত্র স্বাধীন বিচার বিভাগের একার পক্ষে সম্ভব নয়। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে সরকারের ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি থাকতে হবে। শাসন বিভাগের থেকে বিচার বিভাগের পৃথকীকরণ হওয়ার কারণে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত হওয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী ধাপ অতিক্রম করেছে মাত্র। বিচার বিভাগের নিকট থেকে ন্যায়বিচার পাওয়ার বিষয় যে সকল উদ্যোগের ওপর নির্ভর করে তার মধ্যে অন্যতম একটি অনুসঙ্গ হলো বিচারকদের সৎ ও দুর্নীতিমুক্ত মানসিকতা। বিচারকগণ যদি ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠার সংকল্পে শক্ত অবস্থান গ্রহণ করেন তবে পরিবর্তন আসবে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।Bichar Parjalochna Bangladesher Bichar Bibhag Hasn Bibhag Theke Prithak Tathapio A Katha Bala Jete Pare Je Satyikarer Swadhintar Janya Amader Hayato Aro Kichhukal Apeksha Karatei Habe Bichar Parjalochna Ki Bibhager Swadhinata O Prithkikaraner Madhye Maulik Kichhu Parthakya Bidyaman Bichar Bibhag Prithak Hwar Parjalochna Ki Earth Hate Pare Abakathamogat Kichhu Parthakya AE Prithkikarane Sadharan Bicharaprarthider Katatuku Arjan Hayechhe Say Ki Bishayati Apekshik Anyadike Bichar Bibhager Swadhinata Nishchit Karar Janya Shudhu Hasn Bibhag Theke Prithkikaran Bujhay Na Wrong Bicharakader Dakshata Durnitimukta Evan Mukta Chetnar Bishayati Prasangik Ble Bibechana Kara Jete Pare Bangladesh Unnayanashil Bishwer Ekati Ganatantrik Rashtra Amader Deshe Nirbachit Sarkar Ain Parishad O Dirghadiner Pratishthit Bichar Byabasthar Bichare Deshe Ganatantrakami Janaganer Maner Akaksaksha Purna Karar Upajogi Paribesh Bidyaman Tathapio Bastabe A Rashtre Ainer Shasner Pratifalan Thik Say Rakam Falao Kare Lekhar Mato Noy Bodha Kari Say Karne Asia O Lyatin Amerikar Deshguloke Enhahabt Gutfadhash Ec Kathay Balechhilen Jharabhah Jharaparabahu Tini Money Curren Amader Mato Deshe Rashtriya Xamata O Krititba¡ Jader Kachhe Thake Tara Prayashai Bhule Jan Je Tader Say Xamata O Kartritba Desher Prachalit Ain O Ain Pratishthaner Adhine Jodi Bichar Bibhag Sweden Hya Tove Ganatantra Shaktishali Bhittir Opar Supratishthit Hate Pare Sadiq Bibechnay Bichar Bibhager Swadhinata Amader Rashtrer Janya Itibachak Padakshep Bangladesher Mato Ganatantrik Rashtre Deshtir Sarbik Sthitishilta Bajay Rakha O Nyayaniti Pratishtha Kara Shudhumatra Sweden Bichar Bibhager Ekar Pakshe Sambhab Noy Nyayabichar Pratishthar Lakshye Sorcerer Itibachak Drishtibhangi Thakte Habe Hasn Bibhager Theke Bichar Bibhager Prithkikaran Hwar Karne Bichar Bibhager Swadhinata Nishchit Hwar Sabacheye Shaktishali Dhap Atikram Karechhe Maatr Bichar Bibhager Nikat Theke Nyayabichar Power Vysya Je Sakal Udyoger Opar Nirbhar Kare Taur Madhye Anyatam Ekati Anusanga Holo Bicharakader St O Durnitimukta Mansikta Bicharakagan Jodi Nyayabichar Pratishthar Sankalpe Shakta Abasthan Grahan Curren Tove Parivartan Asabe Tate Kono Sandeh Nei
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা কি : বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা বিভিন্নভাবে পরিবর্তিত হয়েছে। সংবিধানের মাধ্যমে সেই স্বাধীনতাকে নানাভাবে পরিবর্তিত করেছে। আমাদের বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা করলে বলতে পারি বাংলাদেশের বিচারপতিরা ১৯৭২ সালের গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সংবিধান অনুযায়ী (৯৪ অনুচ্ছেদের ৪ দফা) বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেত্রে বিশেষ স্বাধীনতা ভোগ করে থাকেন। এখানে বলা হয়েছে এ সংবিধানের বিধানাবলী সাপেক্ষে প্রধান বিচারপতি এবং অন্যান্য বিচারকগণ বিচার পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাধীন হবেন। বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা স্বাধীনতা বিষয়ক নীতিটিকে ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশ সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনী এবং ১৯৭৯ সালে পঞ্চম সংশোধনীর মাধ্যমে একধরণের পরিবর্তন করা হয়েছে। বাংলাদেশের বিচারকদের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য সংবিধানে চতুর্থ সংশোধনীতে ১১৬(ক) নামে একটি নতুন অনুচ্ছেদ সংযোজন করা করা হয়েছে। বাংলাদেশ সংবিধানে চতুর্থ সংশোধনীর ১১৬(ক) নামে এ নতুন অনুচ্ছেদটি বিচার বিভাগীয় কর্মচারীগণকে বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেতে বিশেষ স্বাধীনতা প্রদান করা হয়েছে। এতে বলা আছে, এ সংবিধানের বিধানাবলী সাপেক্ষে বিচারকাজে নিযুক্ত ব্যক্তিগণ এবং ম্যাজিস্ট্রেটগণ বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাধীন হবেন।
Romanized Version
বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা কি : বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা বিভিন্নভাবে পরিবর্তিত হয়েছে। সংবিধানের মাধ্যমে সেই স্বাধীনতাকে নানাভাবে পরিবর্তিত করেছে। আমাদের বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা করলে বলতে পারি বাংলাদেশের বিচারপতিরা ১৯৭২ সালের গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সংবিধান অনুযায়ী (৯৪ অনুচ্ছেদের ৪ দফা) বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেত্রে বিশেষ স্বাধীনতা ভোগ করে থাকেন। এখানে বলা হয়েছে এ সংবিধানের বিধানাবলী সাপেক্ষে প্রধান বিচারপতি এবং অন্যান্য বিচারকগণ বিচার পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাধীন হবেন। বিচার বিভাগীয় পর্যালোচনা স্বাধীনতা বিষয়ক নীতিটিকে ১৯৭৫ সালে বাংলাদেশ সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনী এবং ১৯৭৯ সালে পঞ্চম সংশোধনীর মাধ্যমে একধরণের পরিবর্তন করা হয়েছে। বাংলাদেশের বিচারকদের স্বাধীনতা রক্ষার জন্য সংবিধানে চতুর্থ সংশোধনীতে ১১৬(ক) নামে একটি নতুন অনুচ্ছেদ সংযোজন করা করা হয়েছে। বাংলাদেশ সংবিধানে চতুর্থ সংশোধনীর ১১৬(ক) নামে এ নতুন অনুচ্ছেদটি বিচার বিভাগীয় কর্মচারীগণকে বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেতে বিশেষ স্বাধীনতা প্রদান করা হয়েছে। এতে বলা আছে, এ সংবিধানের বিধানাবলী সাপেক্ষে বিচারকাজে নিযুক্ত ব্যক্তিগণ এবং ম্যাজিস্ট্রেটগণ বিচারকাজ পরিচালনার ক্ষেত্রে স্বাধীন হবেন। Bichar Bibhagiya Parjalochna Ki Bichar Bibhagiya Parjalochna Bibhinnabhabe Paribartit Hayechhe Sangbidhaner Madhyame Sei Swadhintake Nanabhabe Paribartit Karechhe Amader Bichar Bibhagiya Parjalochna Karale Volte Pari Bangladesher Bicharapatira 1972 Saler Ganaprajatantri Bangladesh Sangbidhan Anujayi 94 Anuchchheder 4 Dafa Bicharkaj Parichalnar Xetre Vishesha Swadhinata Bhog Kare Thaken Ekhane Bala Hayechhe A Sangbidhaner Bidhanabli Sapekshe Pradhan Bicharapati Evan Anyanya Bicharakagan Bichar Parichalnar Xetre Sweden Haben Bichar Bibhagiya Parjalochna Swadhinata Bishayak Nititike 1975 Sale Bangladesh Sangbidhaner Chaturtha Sangshodhani Evan 1979 Sale Panchama Sangshodhnir Madhyame Ekadharaner Parivartan Kara Hayechhe Bangladesher Bicharakader Swadhinata Rakshar Janya Sangbidhane Chaturtha Sangshodhnite 116 Ca Name Ekati NATUN Anuchchhed Sangjojan Kara Kara Hayechhe Bangladesh Sangbidhane Chaturtha Sangshodhnir 116 Ca Name A NATUN Anuchchhedati Bichar Bibhagiya Karmachariganake Bicharkaj Parichalnar Xete Vishesha Swadhinata Pradan Kara Hayechhe Ete Bala Ache A Sangbidhaner Bidhanabli Sapekshe Bicharkaje Nijukta Byaktigan Evan Myajistretagan Bicharkaj Parichalnar Xetre Sweden Haben
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bichar Bibhagiya Parjalochna Ki,What Is Judicial Review?,


vokalandroid