বিজ্ঞান নিয়ে রচনা? ...

বিজ্ঞান নিয়ে রচনা : দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান / বিজ্ঞান ও মানব সভ্যতা ভূমিকা:- বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ । বিজ্ঞানের নব নব আবিষ্কার মানুষের জীবনধারাকে আমূল পাল্টে দিয়েছে । মানুষের ব্যবহারিক জীবনে এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন । প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে বাঁচার জন্য মানুষ আর মন্দিরে গিয়ে মাথা ঠোকে না বা অপদেবতার হাত থেকে মুক্তির জন্য ওঝার কাছে ছোটে না । অন্ধকার থেকে আলোয় ফিরিয়েছে বিজ্ঞান । বিজ্ঞানীদের অনলস সাধনায় আজ আমরা সভ্যতার শীর্ষে উন্নীত হতে পেরেছি ।দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান:- আধুনিক জীবনের চরম উৎকর্ষের এবং অফুরন্ত ঐশ্বর্যের মূলে রয়েছে বিজ্ঞান । সকালের ঘুম ভাঙ্গে এলার্ম ঘড়ির ক্রিং ক্রিং শব্দে, বিছানা ছাড়ার পর যে টুথব্রাশ ও পেষ্ট নিই সেটাও বিজ্ঞানের অবদান । রান্নাঘরের গ্যাস ওভেন, ইলেকট্রিক কেটলি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনের প্রতিটি সাজ সরঞ্জাম সবই বিজ্ঞানের অবদান । এছাড়া বিনোদনের সামগ্রী রেডিও, টেলিভিশন, খবরের কাগজ, টেলিফোন থেকে শুরু করে টেপরেকর্ডার, ক্যালকুলেটর, সবই বিজ্ঞান দিয়েছে । নানা রকমের আধুনিক যানবাহনের আবিষ্কারের ফলে আমাদের জীবন যাত্রায় এসেছে গতি । দ্রুতগামী বাস, মোটর, ট্রেন, এরোপ্লেন, সবই বিজ্ঞানের অবদান । আজকের কর্মব্যস্ত মানুষ বিজ্ঞান ছাড়া একপাও এগোতে পারে না ।প্রযুক্তিবিজ্ঞান ও মানব জীবনের অগ্রগতি:- প্রযুক্তিবিজ্ঞানের সাহায্যে কৃষিক্ষেত্রে সবুজ বিপ্লব এসেছে । আজকের ভারত খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ । চিকিৎসায় এসেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । দুরারোগ্য কঠিন ব্যাধির চিকিৎসা করে নিরাময় করা হচ্ছে নিত্য নতুন বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতির সাহায্যে । প্রযুক্তিবিজ্ঞানের আবিষ্কার আমাদের রোজকার জীবনযাত্রায় এনেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরী মোবাইলের সাহায্যে পথ চলতে চলতেও প্রয়োজনীয় অনেক কাজ করে ফেলা যাচ্ছে । প্রচন্ড গরমেও এসি ঘরে বসে অনেক কঠিন কাজ করে ফেলা সম্ভব হচ্ছে । মোট কথা বিজ্ঞান আমাদের জীবনে যেমন আরাম এনে দিয়েছে তেমনি জীবনের চলার পথকেও অনেক সহজ ও গতিময় করেছে ।বিজ্ঞানের অপকারিতা:- বর্তমান জগতের মানুষ বিজ্ঞান নির্ভর । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে করতে মানুষ নিজেও অনেক যান্ত্রিক হয়ে পড়েছে । নিজের স্বাভাবিকত্ব হারিয়ে ফেলেছে । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি মানুষের জীবনে যেমন আয়াস ও বিলাসিতা এনে দিয়েছে তেমনি অপর দিকে চাহিদাও বাড়িয়ে দিয়েছে । কিন্তু দরিদ্র মানুষের তো সব চাহিদা পূরণ হয় না । তাই অনেকেই অসুখী ও অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে । কৃত্রিম হয়ে পড়েছে মানুষের জীবন ।উপসংহার:- অসুখী বা অসহিষ্ণুতা নিজেদের অজ্ঞতা থেকে জন্ম নেয় । এগুলো বাদ দিলে বিজ্ঞান আমাদের পরম বন্ধুর মতো । একে বাদ দিয়ে মানব সভ্যতা অচল । প্রযুক্তিবিজ্ঞানকে আরো বেশি করে কাজে লাগিয়ে তার সুফল প্রত্যেক মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে । তবেই একটা দেশ স্বয়ং সম্পূর্ণ হয়ে উঠবে । বিজ্ঞান সত্য নির্ভর জ্ঞান । এই জ্ঞানই পারে সমস্ত কুসংস্কার বা অন্ধবিশ্বাসকে দূরে সরিয়ে দিতে । আর সেই অজ্ঞতার অচলায়তন যেদিন ভারতের বুক থেকে সরে যাবে সেদিন হবে নির্মল ভারত ।
Romanized Version
বিজ্ঞান নিয়ে রচনা : দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান / বিজ্ঞান ও মানব সভ্যতা ভূমিকা:- বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ । বিজ্ঞানের নব নব আবিষ্কার মানুষের জীবনধারাকে আমূল পাল্টে দিয়েছে । মানুষের ব্যবহারিক জীবনে এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন । প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে বাঁচার জন্য মানুষ আর মন্দিরে গিয়ে মাথা ঠোকে না বা অপদেবতার হাত থেকে মুক্তির জন্য ওঝার কাছে ছোটে না । অন্ধকার থেকে আলোয় ফিরিয়েছে বিজ্ঞান । বিজ্ঞানীদের অনলস সাধনায় আজ আমরা সভ্যতার শীর্ষে উন্নীত হতে পেরেছি ।দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান:- আধুনিক জীবনের চরম উৎকর্ষের এবং অফুরন্ত ঐশ্বর্যের মূলে রয়েছে বিজ্ঞান । সকালের ঘুম ভাঙ্গে এলার্ম ঘড়ির ক্রিং ক্রিং শব্দে, বিছানা ছাড়ার পর যে টুথব্রাশ ও পেষ্ট নিই সেটাও বিজ্ঞানের অবদান । রান্নাঘরের গ্যাস ওভেন, ইলেকট্রিক কেটলি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনের প্রতিটি সাজ সরঞ্জাম সবই বিজ্ঞানের অবদান । এছাড়া বিনোদনের সামগ্রী রেডিও, টেলিভিশন, খবরের কাগজ, টেলিফোন থেকে শুরু করে টেপরেকর্ডার, ক্যালকুলেটর, সবই বিজ্ঞান দিয়েছে । নানা রকমের আধুনিক যানবাহনের আবিষ্কারের ফলে আমাদের জীবন যাত্রায় এসেছে গতি । দ্রুতগামী বাস, মোটর, ট্রেন, এরোপ্লেন, সবই বিজ্ঞানের অবদান । আজকের কর্মব্যস্ত মানুষ বিজ্ঞান ছাড়া একপাও এগোতে পারে না ।প্রযুক্তিবিজ্ঞান ও মানব জীবনের অগ্রগতি:- প্রযুক্তিবিজ্ঞানের সাহায্যে কৃষিক্ষেত্রে সবুজ বিপ্লব এসেছে । আজকের ভারত খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ । চিকিৎসায় এসেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । দুরারোগ্য কঠিন ব্যাধির চিকিৎসা করে নিরাময় করা হচ্ছে নিত্য নতুন বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতির সাহায্যে । প্রযুক্তিবিজ্ঞানের আবিষ্কার আমাদের রোজকার জীবনযাত্রায় এনেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরী মোবাইলের সাহায্যে পথ চলতে চলতেও প্রয়োজনীয় অনেক কাজ করে ফেলা যাচ্ছে । প্রচন্ড গরমেও এসি ঘরে বসে অনেক কঠিন কাজ করে ফেলা সম্ভব হচ্ছে । মোট কথা বিজ্ঞান আমাদের জীবনে যেমন আরাম এনে দিয়েছে তেমনি জীবনের চলার পথকেও অনেক সহজ ও গতিময় করেছে ।বিজ্ঞানের অপকারিতা:- বর্তমান জগতের মানুষ বিজ্ঞান নির্ভর । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে করতে মানুষ নিজেও অনেক যান্ত্রিক হয়ে পড়েছে । নিজের স্বাভাবিকত্ব হারিয়ে ফেলেছে । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি মানুষের জীবনে যেমন আয়াস ও বিলাসিতা এনে দিয়েছে তেমনি অপর দিকে চাহিদাও বাড়িয়ে দিয়েছে । কিন্তু দরিদ্র মানুষের তো সব চাহিদা পূরণ হয় না । তাই অনেকেই অসুখী ও অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে । কৃত্রিম হয়ে পড়েছে মানুষের জীবন ।উপসংহার:- অসুখী বা অসহিষ্ণুতা নিজেদের অজ্ঞতা থেকে জন্ম নেয় । এগুলো বাদ দিলে বিজ্ঞান আমাদের পরম বন্ধুর মতো । একে বাদ দিয়ে মানব সভ্যতা অচল । প্রযুক্তিবিজ্ঞানকে আরো বেশি করে কাজে লাগিয়ে তার সুফল প্রত্যেক মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে । তবেই একটা দেশ স্বয়ং সম্পূর্ণ হয়ে উঠবে । বিজ্ঞান সত্য নির্ভর জ্ঞান । এই জ্ঞানই পারে সমস্ত কুসংস্কার বা অন্ধবিশ্বাসকে দূরে সরিয়ে দিতে । আর সেই অজ্ঞতার অচলায়তন যেদিন ভারতের বুক থেকে সরে যাবে সেদিন হবে নির্মল ভারত । Bigyan Niye Rachana : Dainandin Jibne Bigyan / Bigyan O Menabe Sabhyata Bhumika Bartaman Jug Bigyaner Jug Bigyaner Nav Nav Abishkar Manusher Jibanadharake Amul Palte Diyechhe Manusher Byabaharik Jibne Esechhe Jugantakari Parivartan Praakritik Durjoger Haut Theke Banchar Janya Manus Are Mandire Giye Matha Thoke Na Ba Apadebtar Haut Theke Muktir Janya Ojhar Kachhe Chhote Na Andhakar Theke Aloy Firiyechhe Bigyan Bigyanider Analas Sadhnay Az Amara Sabhyatar Shirshe Unnit Hate Perechhi Dainandin Jibne Bigyan Adhunik Jibner Charam Utkarsher Evan Afuranta Aishwarjer Mule Rayechhe Bigyan Sakaler Ghum Bhange Elarma Gharir Kring Kring Shabde Bichhana Chharar Par Je Tuthabrash O Peshta Nii Setao Bigyaner Abadan Rannagharer Gas Oven Electric Ketli Theke Shuru Kare Nityaprayojner Pratiti Saj Saranjam Sabai Bigyaner Abadan Echhara Binodner Samagri Radio Television Khabarer Kaagaz Telephone Theke Shuru Kare Teprekardar Kyalakuletar Sabai Bigyan Diyechhe Nana Rakamer Adhunik Janbahner Abishkarer Fale Amader Jeevan Jatray Esechhe Gatti Drutagami Bass Motor Train Eroplen Sabai Bigyaner Abadan Ajaker Karmabyasta Manus Bigyan Chhara Ekapao Egote Pare Na Prajuktibigyan O Menabe Jibner Agragati Prajuktibigyaner Sahajye Krishikshetre Sabuj Biplob Esechhe Ajaker Bharat Khadya Utpadne Swayansampurna Chikitsay Esechhe Abhutpurba Safalya Durarogya Kathin Byadhir Chikitsa Kare Niramay Kara Hachchhe Nithya NATUN Baigyanik Jantrapatir Sahajye Prajuktibigyaner Abishkar Amader Rojkar Jibanajatray Enechhe Abhutpurba Safalya Adhunik Prajuktite Tairi Mobailer Sahajye Path Chalate Chalateo Prayojniya Anek Kaj Kare Fela Jachchhe Prachand Garameo AC Ghare Base Anek Kathin Kaj Kare Fela Sambhab Hachchhe Mot Katha Bigyan Amader Jibne Jeman Aram Ene Diyechhe Temni Jibner Chalar Pathakeo Anek Suhaj O Gatimay Karechhe Bigyaner Apakarita Bartaman Jagater Manus Bigyan Nirbhar Baigyanik Jantrapati Byabahar Karate Karate Manus Nijeo Anek Jantrik Huye Parechhe Nizar Swabhabikatba Hariye Felechhe Baigyanik Jantrapati Manusher Jibne Jeman Ayas O Bilasita Ene Diyechhe Temni Apr Dike Chahidao Bariye Diyechhe Kintu Daridra Manusher Toh Sab Sahida Puran Hay Na Tai Anekei Asukhi O Asahishnu Huye Uthechhe Kritrim Huye Parechhe Manusher Jeevan Upasanghar Asukhi Ba Asahishnuta Nijeder Agyata Theke Janma Ney Egulo Baad Dile Bigyan Amader Param Bandhur Mato Aka Baad Diye Menabe Sabhyata Oslo Prajuktibigyanake Aro Bedshee Kare Kaje Lagiye Taur Sufal Pratyek Manusher Kachhe Paunchhe Dite Habe Tabei Ekata Desh Swayang Sampurna Huye Uthabe Bigyan SATHYA Nirbhar Gyan AE Gyanai Pare Samasta Kusanskar Ba Andhabishwasake Dure Sariye Dite Are Sei Agyatar Achalayatan Jedin Bharter Book Theke Sare Jabe Sedin Habe Nirmal Bharat
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান রচনা- ভূমিকা:- বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ । বিজ্ঞানের নব নব আবিষ্কার মানুষের জীবনধারাকে আমূল পাল্টে দিয়েছে । মানুষের ব্যবহারিক জীবনে এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন । প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে বাঁচার জন্য মানুষ আর মন্দিরে গিয়ে মাথা ঠোকে না বা অপদেবতার হাত থেকে মুক্তির জন্য ওঝার কাছে ছোটে না । অন্ধকার থেকে আলোয় ফিরিয়েছে বিজ্ঞান । বিজ্ঞানীদের অনলস সাধনায় আজ আমরা সভ্যতার শীর্ষে উন্নীত হতে পেরেছি । দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান:- আধুনিক জীবনের চরম উৎকর্ষের এবং অফুরন্ত ঐশ্বর্যের মূলে রয়েছে বিজ্ঞান । সকালের ঘুম ভাঙ্গে এলার্ম ঘড়ির ক্রিং ক্রিং শব্দে, বিছানা ছাড়ার পর যে টুথব্রাশ ও পেষ্ট নিই সেটাও বিজ্ঞানের অবদান । রান্নাঘরের গ্যাস ওভেন, ইলেকট্রিক কেটলি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনের প্রতিটি সাজ সরঞ্জাম সবই বিজ্ঞানের অবদান । এছাড়া বিনোদনের সামগ্রী রেডিও, টেলিভিশন, খবরের কাগজ, টেলিফোন থেকে শুরু করে টেপরেকর্ডার, ক্যালকুলেটর, সবই বিজ্ঞান দিয়েছে । নানা রকমের আধুনিক যানবাহনের আবিষ্কারের ফলে আমাদের জীবন যাত্রায় এসেছে গতি । দ্রুতগামী বাস, মোটর, ট্রেন, এরোপ্লেন, সবই বিজ্ঞানের অবদান । আজকের কর্মব্যস্ত মানুষ বিজ্ঞান ছাড়া একপাও এগোতে পারে না । প্রযুক্তিবিজ্ঞান ও মানব জীবনের অগ্রগতি:- প্রযুক্তিবিজ্ঞানের সাহায্যে কৃষিক্ষেত্রে সবুজ বিপ্লব এসেছে । আজকের ভারত খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ । চিকিৎসায় এসেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । দুরারোগ্য কঠিন ব্যাধির চিকিৎসা করে নিরাময় করা হচ্ছে নিত্য নতুন বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতির সাহায্যে । প্রযুক্তিবিজ্ঞানের আবিষ্কার আমাদের রোজকার জীবনযাত্রায় এনেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরী মোবাইলের সাহায্যে পথ চলতে চলতেও প্রয়োজনীয় অনেক কাজ করে ফেলা যাচ্ছে । প্রচন্ড গরমেও এসি ঘরে বসে অনেক কঠিন কাজ করে ফেলা সম্ভব হচ্ছে । মোট কথা বিজ্ঞান আমাদের জীবনে যেমন আরাম এনে দিয়েছে তেমনি জীবনের চলার পথকেও অনেক সহজ ও গতিময় করেছে । বিজ্ঞানের অপকারিতা:- বর্তমান জগতের মানুষ বিজ্ঞান নির্ভর । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে করতে মানুষ নিজেও অনেক যান্ত্রিক হয়ে পড়েছে । নিজের স্বাভাবিকত্ব হারিয়ে ফেলেছে । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি মানুষের জীবনে যেমন আয়াস ও বিলাসিতা এনে দিয়েছে তেমনি অপর দিকে চাহিদাও বাড়িয়ে দিয়েছে । কিন্তু দরিদ্র মানুষের তো সব চাহিদা পূরণ হয় না । তাই অনেকেই অসুখী ও অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে । কৃত্রিম হয়ে পড়েছে মানুষের জীবন ।
Romanized Version
দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান রচনা- ভূমিকা:- বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ । বিজ্ঞানের নব নব আবিষ্কার মানুষের জীবনধারাকে আমূল পাল্টে দিয়েছে । মানুষের ব্যবহারিক জীবনে এসেছে যুগান্তকারী পরিবর্তন । প্রাকৃতিক দুর্যোগের হাত থেকে বাঁচার জন্য মানুষ আর মন্দিরে গিয়ে মাথা ঠোকে না বা অপদেবতার হাত থেকে মুক্তির জন্য ওঝার কাছে ছোটে না । অন্ধকার থেকে আলোয় ফিরিয়েছে বিজ্ঞান । বিজ্ঞানীদের অনলস সাধনায় আজ আমরা সভ্যতার শীর্ষে উন্নীত হতে পেরেছি । দৈনন্দিন জীবনে বিজ্ঞান:- আধুনিক জীবনের চরম উৎকর্ষের এবং অফুরন্ত ঐশ্বর্যের মূলে রয়েছে বিজ্ঞান । সকালের ঘুম ভাঙ্গে এলার্ম ঘড়ির ক্রিং ক্রিং শব্দে, বিছানা ছাড়ার পর যে টুথব্রাশ ও পেষ্ট নিই সেটাও বিজ্ঞানের অবদান । রান্নাঘরের গ্যাস ওভেন, ইলেকট্রিক কেটলি থেকে শুরু করে নিত্যপ্রয়োজনের প্রতিটি সাজ সরঞ্জাম সবই বিজ্ঞানের অবদান । এছাড়া বিনোদনের সামগ্রী রেডিও, টেলিভিশন, খবরের কাগজ, টেলিফোন থেকে শুরু করে টেপরেকর্ডার, ক্যালকুলেটর, সবই বিজ্ঞান দিয়েছে । নানা রকমের আধুনিক যানবাহনের আবিষ্কারের ফলে আমাদের জীবন যাত্রায় এসেছে গতি । দ্রুতগামী বাস, মোটর, ট্রেন, এরোপ্লেন, সবই বিজ্ঞানের অবদান । আজকের কর্মব্যস্ত মানুষ বিজ্ঞান ছাড়া একপাও এগোতে পারে না । প্রযুক্তিবিজ্ঞান ও মানব জীবনের অগ্রগতি:- প্রযুক্তিবিজ্ঞানের সাহায্যে কৃষিক্ষেত্রে সবুজ বিপ্লব এসেছে । আজকের ভারত খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ । চিকিৎসায় এসেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । দুরারোগ্য কঠিন ব্যাধির চিকিৎসা করে নিরাময় করা হচ্ছে নিত্য নতুন বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতির সাহায্যে । প্রযুক্তিবিজ্ঞানের আবিষ্কার আমাদের রোজকার জীবনযাত্রায় এনেছে অভূতপূর্ব সাফল্য । আধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরী মোবাইলের সাহায্যে পথ চলতে চলতেও প্রয়োজনীয় অনেক কাজ করে ফেলা যাচ্ছে । প্রচন্ড গরমেও এসি ঘরে বসে অনেক কঠিন কাজ করে ফেলা সম্ভব হচ্ছে । মোট কথা বিজ্ঞান আমাদের জীবনে যেমন আরাম এনে দিয়েছে তেমনি জীবনের চলার পথকেও অনেক সহজ ও গতিময় করেছে । বিজ্ঞানের অপকারিতা:- বর্তমান জগতের মানুষ বিজ্ঞান নির্ভর । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করতে করতে মানুষ নিজেও অনেক যান্ত্রিক হয়ে পড়েছে । নিজের স্বাভাবিকত্ব হারিয়ে ফেলেছে । বৈজ্ঞানিক যন্ত্রপাতি মানুষের জীবনে যেমন আয়াস ও বিলাসিতা এনে দিয়েছে তেমনি অপর দিকে চাহিদাও বাড়িয়ে দিয়েছে । কিন্তু দরিদ্র মানুষের তো সব চাহিদা পূরণ হয় না । তাই অনেকেই অসুখী ও অসহিষ্ণু হয়ে উঠেছে । কৃত্রিম হয়ে পড়েছে মানুষের জীবন ।Dainandin Jibne Bigyan Rachana Bhumika Bartaman Jug Bigyaner Jug Bigyaner Nav Nav Abishkar Manusher Jibanadharake Amul Palte Diyechhe Manusher Byabaharik Jibne Esechhe Jugantakari Parivartan Praakritik Durjoger Haut Theke Banchar Janya Manus Are Mandire Giye Matha Thoke Na Ba Apadebtar Haut Theke Muktir Janya Ojhar Kachhe Chhote Na Andhakar Theke Aloy Firiyechhe Bigyan Bigyanider Analas Sadhnay Az Amara Sabhyatar Shirshe Unnit Hate Perechhi Dainandin Jibne Bigyan Adhunik Jibner Charam Utkarsher Evan Afuranta Aishwarjer Mule Rayechhe Bigyan Sakaler Ghum Bhange Elarma Gharir Kring Kring Shabde Bichhana Chharar Par Je Tuthabrash O Peshta Nii Setao Bigyaner Abadan Rannagharer Gas Oven Electric Ketli Theke Shuru Kare Nityaprayojner Pratiti Saj Saranjam Sabai Bigyaner Abadan Echhara Binodner Samagri Radio Television Khabarer Kaagaz Telephone Theke Shuru Kare Teprekardar Kyalakuletar Sabai Bigyan Diyechhe Nana Rakamer Adhunik Janbahner Abishkarer Fale Amader Jeevan Jatray Esechhe Gatti Drutagami Bass Motor Train Eroplen Sabai Bigyaner Abadan Ajaker Karmabyasta Manus Bigyan Chhara Ekapao Egote Pare Na Prajuktibigyan O Menabe Jibner Agragati Prajuktibigyaner Sahajye Krishikshetre Sabuj Biplob Esechhe Ajaker Bharat Khadya Utpadne Swayansampurna Chikitsay Esechhe Abhutpurba Safalya Durarogya Kathin Byadhir Chikitsa Kare Niramay Kara Hachchhe Nithya NATUN Baigyanik Jantrapatir Sahajye Prajuktibigyaner Abishkar Amader Rojkar Jibanajatray Enechhe Abhutpurba Safalya Adhunik Prajuktite Tairi Mobailer Sahajye Path Chalate Chalateo Prayojniya Anek Kaj Kare Fela Jachchhe Prachand Garameo AC Ghare Base Anek Kathin Kaj Kare Fela Sambhab Hachchhe Mot Katha Bigyan Amader Jibne Jeman Aram Ene Diyechhe Temni Jibner Chalar Pathakeo Anek Suhaj O Gatimay Karechhe Bigyaner Apakarita Bartaman Jagater Manus Bigyan Nirbhar Baigyanik Jantrapati Byabahar Karate Karate Manus Nijeo Anek Jantrik Huye Parechhe Nizar Swabhabikatba Hariye Felechhe Baigyanik Jantrapati Manusher Jibne Jeman Ayas O Bilasita Ene Diyechhe Temni Apr Dike Chahidao Bariye Diyechhe Kintu Daridra Manusher Toh Sab Sahida Puran Hay Na Tai Anekei Asukhi O Asahishnu Huye Uthechhe Kritrim Huye Parechhe Manusher Jeevan
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bigyan Niye Rachana,Writing About Science?,


vokalandroid