বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন সম্পর্কে বল। ...

বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন : শিলার যে কোন ধরনের প্রাকৃতিক গঠন (যেমন, একটি ঊর্ধ্বভাঁজ অথবা শৈলশিরা), যেখানে তেল বা গ্যাসের সঞ্চয় থাকতে পারে। বাংলাদেশে বেশ কিছুসংখ্যক সম্ভাবনাপূর্ণ ভূতাত্ত্বিক গঠন রয়েছে, যেমন: রশিদপুর ভূতাত্ত্বিক গঠন হবিগঞ্জ জেলায় অবস্থিত একটি ঊর্ধ্বভাঁজ। এটি উত্তর-দক্ষিণে বিন্যস্ত এবং ৩৫ কিমি লন্বা ও ৭ কিমি চওড়া। এটি অসম যার পূর্বপার্শ্ব অপেক্ষাকৃত অধিক ঢালু (২২°-২৫°) এবং পশ্চিমপার্শ্ব আলতো (৮° থেকে ১২°)। ঊর্ধ্বভাঁজটির অক্ষ ত্রিপুরার তেলিয়ামুরা পৃষ্ঠ ঊর্ধ্বভাঁজের সঙ্গে গাঠনিকভাবে সমান্তরাল। রশিদপুর ভূতাত্ত্বিক গঠনে প্রকটিত ডুপিটিলা স্তরসমষ্টির পার্শ্বীয় ওলটপালট দেখা যায়। এটি সম্ভবত অক্ষীয় বিস্তৃতি নির্দেশ করে। ঊর্ধ্বভাঁজটির পূর্বপার্শ্ব একটি বড় ধরনের উত্তর-দক্ষিণ বিন্যস্ত চ্যুতি দ্বারা বেষ্টিত। চ্যুতির ফলে ঊর্ধ্বভাঁজটির নিম্নের অংশটি এর পূর্বপার্শ্বে অবস্থিত। কিছু আড়াআড়ি চ্যুতিও আছে এবং তাদের মধ্যে একটি ভূতাত্ত্বিক গঠনের মাঝ বরাবর চলে গেছে। রশিদপুর ভূতাত্ত্বিক গঠনে শেল অয়েল কোম্পানি অনুসন্ধানমূলক কূপ খনন করে এবং ১৯৬০ সালে গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কার করে। এটি ছিল ষাটের দশকের দিকে শেল অয়েল কোম্পানি কর্তৃক আবিষ্কৃত পাঁচটি বড় গ্যাসক্ষেত্রের মধ্যে প্রথমটি। রশিদপুর গ্যাসক্ষেত্রে গ্যাসের মোট প্রমাণিত ও সম্ভাব্য মজুত ২,২৪২ বিলিয়ন ঘনফুট, যার মধ্যে ১,৩০৯ বিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য। এই ভূতাত্ত্বিক গঠনে প্রায় ১,৩৮০ মিটার থেকে ২,৭৮৭ মিটার গভীরতার মধ্যে মোট ২টি গ্যাস জোন রয়েছে। গ্যাস জোনসমূহ মায়োসিন-প্লায়োসিন সময়ের অগভীর সামুদ্রিক পরিবেশে সৃষ্ট বেলেপাথরের আধারে গঠিত। বেলেপাথর আধারের ফাঁকা স্থান ও প্রবেশ্যতা খুব ভাল। খনন কাজ চলাকালে রশিদপুর গ্যাসক্ষেত্রের অনেক গভীরে অধিচাপ অঞ্চল ধরা পড়েছে।
Romanized Version
বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন : শিলার যে কোন ধরনের প্রাকৃতিক গঠন (যেমন, একটি ঊর্ধ্বভাঁজ অথবা শৈলশিরা), যেখানে তেল বা গ্যাসের সঞ্চয় থাকতে পারে। বাংলাদেশে বেশ কিছুসংখ্যক সম্ভাবনাপূর্ণ ভূতাত্ত্বিক গঠন রয়েছে, যেমন: রশিদপুর ভূতাত্ত্বিক গঠন হবিগঞ্জ জেলায় অবস্থিত একটি ঊর্ধ্বভাঁজ। এটি উত্তর-দক্ষিণে বিন্যস্ত এবং ৩৫ কিমি লন্বা ও ৭ কিমি চওড়া। এটি অসম যার পূর্বপার্শ্ব অপেক্ষাকৃত অধিক ঢালু (২২°-২৫°) এবং পশ্চিমপার্শ্ব আলতো (৮° থেকে ১২°)। ঊর্ধ্বভাঁজটির অক্ষ ত্রিপুরার তেলিয়ামুরা পৃষ্ঠ ঊর্ধ্বভাঁজের সঙ্গে গাঠনিকভাবে সমান্তরাল। রশিদপুর ভূতাত্ত্বিক গঠনে প্রকটিত ডুপিটিলা স্তরসমষ্টির পার্শ্বীয় ওলটপালট দেখা যায়। এটি সম্ভবত অক্ষীয় বিস্তৃতি নির্দেশ করে। ঊর্ধ্বভাঁজটির পূর্বপার্শ্ব একটি বড় ধরনের উত্তর-দক্ষিণ বিন্যস্ত চ্যুতি দ্বারা বেষ্টিত। চ্যুতির ফলে ঊর্ধ্বভাঁজটির নিম্নের অংশটি এর পূর্বপার্শ্বে অবস্থিত। কিছু আড়াআড়ি চ্যুতিও আছে এবং তাদের মধ্যে একটি ভূতাত্ত্বিক গঠনের মাঝ বরাবর চলে গেছে। রশিদপুর ভূতাত্ত্বিক গঠনে শেল অয়েল কোম্পানি অনুসন্ধানমূলক কূপ খনন করে এবং ১৯৬০ সালে গ্যাসক্ষেত্র আবিষ্কার করে। এটি ছিল ষাটের দশকের দিকে শেল অয়েল কোম্পানি কর্তৃক আবিষ্কৃত পাঁচটি বড় গ্যাসক্ষেত্রের মধ্যে প্রথমটি। রশিদপুর গ্যাসক্ষেত্রে গ্যাসের মোট প্রমাণিত ও সম্ভাব্য মজুত ২,২৪২ বিলিয়ন ঘনফুট, যার মধ্যে ১,৩০৯ বিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য। এই ভূতাত্ত্বিক গঠনে প্রায় ১,৩৮০ মিটার থেকে ২,৭৮৭ মিটার গভীরতার মধ্যে মোট ২টি গ্যাস জোন রয়েছে। গ্যাস জোনসমূহ মায়োসিন-প্লায়োসিন সময়ের অগভীর সামুদ্রিক পরিবেশে সৃষ্ট বেলেপাথরের আধারে গঠিত। বেলেপাথর আধারের ফাঁকা স্থান ও প্রবেশ্যতা খুব ভাল। খনন কাজ চলাকালে রশিদপুর গ্যাসক্ষেত্রের অনেক গভীরে অধিচাপ অঞ্চল ধরা পড়েছে।Bangladesher Bhutattbik Gathan : Shilar Je Koun Dharaner Praakritik Gathan Jeman Ekati Urdhbabhanj Athaba Shailshira Jekhanay Tel Ba Gyaser Sanchay Thakte Pare Bangladeshe Bash Kichhusankhyak Sambhabanapurna Bhutattbik Gathan Rayechhe Jeman Rasidpur Bhutattbik Gathan Habiganj Jelay Abasthit Ekati Urdhbabhanj AT Uttar Dakshine Binyasta Evan 35 Kimi Lanwa O 7 Kimi Chaora AT Acm Jar Purbaparshwa Apekshakrit Adhik Dhaalu 22° 25° Evan Pashchimaparshwa Alto 8° Theke 12° Urdhbabhanjatir Aksh Tripurar Teliyamura Prishtha Urdhbabhanjer Sange Gathnikbhabe Samantaral Rasidpur Bhutattbik Gathane Prakatit Dupitila Starasamashtir Parshwiya Olatapalat Dekha Jay AT Sambhabat Akshiya Bistriti Nirdesh Kare Urdhbabhanjatir Purbaparshwa Ekati Bar Dharaner Uttar Dakhin Binyasta Chyuti Dwara Beshtit Chyutir Fale Urdhbabhanjatir Nimner Angshati Aare Purbaparshwe Abasthit Kichhu Araari Chyutio Ache Evan Tader Madhye Ekati Bhutattbik Gathaner Mujhe Barabar Chale Gechhe Rasidpur Bhutattbik Gathane Sell Ayel Company Anusandhanamulak Coup Khanna Kare Evan 1960 Sale Gyasakshetra Abishkar Kare AT Chhil Shatter Dashaker Dike Sell Ayel Company Kartrik Abishkrit Panchati Bar Gyasakshetrer Madhye Prathamati Rasidpur Gyasakshetre Gyaser Mot Pramanit O Sambhabya Majut 2 242 Biliyan Ghanafut Jar Madhye 1 309 Biliyan Ghanafut Uttolanajogya AE Bhutattbik Gathane Pray 1 380 Meter Theke 2 787 Meter Gabhirtar Madhye Mot 2ti Gas Zone Rayechhe Gas Jonasamuh Mayosin Playosin Samayer Agabhir Samudrik Paribeshe Srishta Belepathrer Adhare Gathit Belepathar Adharer Fanka Sthan O Prabeshyata Khub Bhal Khanna Kaj Chalakale Rasidpur Gyasakshetrer Anek Gabhire Adhichap Anchal Dhara Parechhe
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন : বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন দেশটির অবস্থান দ্বারা প্রভাবিত। বাংলাদেশ মূলত একটি নদীমাতৃক দেশ। বঙ্গোপসাগরের উত্তরে গঙ্গা এবং ব্রহ্মপুত্র নদী দ্বারা গঠিত বদ্বীপের দুই-তৃতীয়াংশ নিয়ে এই অঞ্চল গঠিত। এই অঞ্চলের উত্তর-পশ্চিমে প্রাচীন পলল দ্বারা গঠিত ছোট কিন্তু কিছুটা উঁচু দুটি এলাকা রয়েছে যা বরেন্দ্র ভূমি এবং মধুপুর ট্র্যাক্ট নামে পরিচিত। অপরদিকে পূর্বাঞ্চলের সীমান্ত এলাকায় টারশিয়ারি যুগে সৃষ্ট ভাঁজ পর্বত শ্রেণী পরিলক্ষিত হয়। ভূতাত্ত্বিক গঠনের দিক থেকে বাংলাদেশকে মূলত দুইটি প্রধান ভাগে ভাগ করা হয়। এই দুইটি ভাগকে বিভক্তকারী মধ্যবর্তী সরু অঞ্চলকে হিঞ্জ জোন বলা হয়। প্রাক-ক্যামব্রিয়ান ভারতীয় প্লাটফর্ম সম্পাদনা প্রাক ক্যামব্রিয়ান ভারতীয় প্লাটফর্মটি বাংলাদেশের রংপুর, দিনাজপুর, বগুড়া, রাজশাহী এবং পাবনা অঞ্চল বরাবর বিস্তৃত। ভূগঠনের দিন থেকে অঞ্চলটি অপেক্ষাকৃত স্থিতিশীল। ফলে এর উপরে সৃষ্ট পাললিক শিলা স্তরের পুরুত্ব তুলনামূলক ভাবে অনেক কম। এই ভিত শিলার উপরে পলল মৃত্তিকার পুরুত্ব সর্বনিম্ন প্রায় ১৩০ মিটার এবং এই পললের পুরুত্ব ক্রমাগতভাবে দক্ষিন পূর্ব দিকে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই অঞ্চলটি দক্ষিনে হিঞ্জ জোন এবং উত্তরে সাব হিমালয়ান ফোরডীপ দিয়ে সীমাবদ্ধ। প্রাক-ক্যামব্রিয়ান ভারতীয় প্লাটফর্ম অঞ্চলটি রংপুর স্যাডল বা দিনাজপুর শিল্ড এবং বগুড়া সেলফ এই দুই ভাগে বিভক্ত। বেসিন বা জিওসিনক্লাইন অঞ্চল সম্পাদনা বাংলাদেশে হিঞ্জ জোনের দক্ষিন ও পূর্বাংশে জিওসিনক্লাইন লক্ষ্য করা যায়। সাধারন ভাবে ধারণা করা হয় অতীতে কোন ভূতাত্ত্বিক সময়কালে ভূ-আলোড়নের মাধ্যমে ভাঁজ পর্বত সৃষ্টির সময় বেসিন বা জিওসিনক্লাইন সৃষ্টি হয়েছে। এই অঞ্চলের প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো এখানে পাললিক শিলা স্তরের পুরুত্ব তুলনামূলক ভাবে অনেক বেশি, যা সাধারণত ১২ থে ২০ কিলোমিটারেরও বেশি পুরু। এই অঞ্ছলের আর একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হলো, এই বেসিন অঞ্চলে পাললিক শিলাস্তরের নিচে মহাদেশীয় ভিত শিলার পরিবর্তে মহাসাগরীয় ভিত শিলা উপস্থিত। ধারণা করা হয় এ অঞ্ছলে পাললিক শিলাস্তরের নিচে কিছু ক্রিটেশাস যুগের শিলাস্ত্র রয়েছে। বেসিন বা জিওসিনক্লাইন অঞ্চলকে ফোরডিপ অঞ্ছল এবং ফোল্ড বেল্ট অঞ্চল নামের আরো দুটি উপভাগে ভাগ করা হয়।
Romanized Version
বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন : বাংলাদেশের ভূতাত্ত্বিক গঠন দেশটির অবস্থান দ্বারা প্রভাবিত। বাংলাদেশ মূলত একটি নদীমাতৃক দেশ। বঙ্গোপসাগরের উত্তরে গঙ্গা এবং ব্রহ্মপুত্র নদী দ্বারা গঠিত বদ্বীপের দুই-তৃতীয়াংশ নিয়ে এই অঞ্চল গঠিত। এই অঞ্চলের উত্তর-পশ্চিমে প্রাচীন পলল দ্বারা গঠিত ছোট কিন্তু কিছুটা উঁচু দুটি এলাকা রয়েছে যা বরেন্দ্র ভূমি এবং মধুপুর ট্র্যাক্ট নামে পরিচিত। অপরদিকে পূর্বাঞ্চলের সীমান্ত এলাকায় টারশিয়ারি যুগে সৃষ্ট ভাঁজ পর্বত শ্রেণী পরিলক্ষিত হয়। ভূতাত্ত্বিক গঠনের দিক থেকে বাংলাদেশকে মূলত দুইটি প্রধান ভাগে ভাগ করা হয়। এই দুইটি ভাগকে বিভক্তকারী মধ্যবর্তী সরু অঞ্চলকে হিঞ্জ জোন বলা হয়। প্রাক-ক্যামব্রিয়ান ভারতীয় প্লাটফর্ম সম্পাদনা প্রাক ক্যামব্রিয়ান ভারতীয় প্লাটফর্মটি বাংলাদেশের রংপুর, দিনাজপুর, বগুড়া, রাজশাহী এবং পাবনা অঞ্চল বরাবর বিস্তৃত। ভূগঠনের দিন থেকে অঞ্চলটি অপেক্ষাকৃত স্থিতিশীল। ফলে এর উপরে সৃষ্ট পাললিক শিলা স্তরের পুরুত্ব তুলনামূলক ভাবে অনেক কম। এই ভিত শিলার উপরে পলল মৃত্তিকার পুরুত্ব সর্বনিম্ন প্রায় ১৩০ মিটার এবং এই পললের পুরুত্ব ক্রমাগতভাবে দক্ষিন পূর্ব দিকে বৃদ্ধি পেয়েছে। এই অঞ্চলটি দক্ষিনে হিঞ্জ জোন এবং উত্তরে সাব হিমালয়ান ফোরডীপ দিয়ে সীমাবদ্ধ। প্রাক-ক্যামব্রিয়ান ভারতীয় প্লাটফর্ম অঞ্চলটি রংপুর স্যাডল বা দিনাজপুর শিল্ড এবং বগুড়া সেলফ এই দুই ভাগে বিভক্ত। বেসিন বা জিওসিনক্লাইন অঞ্চল সম্পাদনা বাংলাদেশে হিঞ্জ জোনের দক্ষিন ও পূর্বাংশে জিওসিনক্লাইন লক্ষ্য করা যায়। সাধারন ভাবে ধারণা করা হয় অতীতে কোন ভূতাত্ত্বিক সময়কালে ভূ-আলোড়নের মাধ্যমে ভাঁজ পর্বত সৃষ্টির সময় বেসিন বা জিওসিনক্লাইন সৃষ্টি হয়েছে। এই অঞ্চলের প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো এখানে পাললিক শিলা স্তরের পুরুত্ব তুলনামূলক ভাবে অনেক বেশি, যা সাধারণত ১২ থে ২০ কিলোমিটারেরও বেশি পুরু। এই অঞ্ছলের আর একটি উল্লেখযোগ্য বৈশিষ্ট্য হলো, এই বেসিন অঞ্চলে পাললিক শিলাস্তরের নিচে মহাদেশীয় ভিত শিলার পরিবর্তে মহাসাগরীয় ভিত শিলা উপস্থিত। ধারণা করা হয় এ অঞ্ছলে পাললিক শিলাস্তরের নিচে কিছু ক্রিটেশাস যুগের শিলাস্ত্র রয়েছে। বেসিন বা জিওসিনক্লাইন অঞ্চলকে ফোরডিপ অঞ্ছল এবং ফোল্ড বেল্ট অঞ্চল নামের আরো দুটি উপভাগে ভাগ করা হয়। Bangladesher Bhutattbik Gathan Bangladesher Bhutattbik Gathan Deshtir Abasthan Dwara Prabhabit Bangladesh Mulat Ekati Nadimatrik Desh Bangopasagrer Uttare Ganga Evan Brahmaputra Nadi Dwara Gathit Badwiper Dui Tritiyangsh Niye AE Anchal Gathit AE Anchaler Uttar Pashchime Prachin Palal Dwara Gathit Chhot Kintu Kichhuta Unchu Duti Elaka Rayechhe Ja Barendra Bhoomi Evan Madhupur Tryakta Name Parichit Aparadike Purbanchaler Simanta Elakay Tarshiyari Juge Srishta Bhanj Parbat Shreni Parilakshit Hay Bhutattbik Gathaner Dik Theke Bangladeshke Mulat Duiti Pradhan Bhage Bhag Kara Hay AE Duiti Bhagke Bibhaktakari Madhyabarti Saru Anchalake Hinge Zone Bala Hay Prak Kyamabriyan Bhartiya Platform Sampadana Prak Kyamabriyan Bhartiya Platafarmati Bangladesher Rangpur Dinajpur Bagura Rajshahi Evan Pabna Anchal Barabar Bistrita Bhugathaner Dinh Theke Anchalati Apekshakrit Sthitishil Fale Aare Upare Srishta Pallik Sila Starer Purutba Tulnamulak Bhabe Anek Com AE Vita Shilar Upare Palal Mrittikar Purutba Sarbanimna Pray 130 Meter Evan AE Palaler Purutba Kramagatabhabe Dakshin Purba Dike Briddhi Peyechhe AE Anchalati Dakshine Hinge Zone Evan Uttare Sub Himalyan Fordip Diye Simabaddha Prak Kyamabriyan Bhartiya Platform Anchalati Rangpur Syadal Ba Dinajpur Shild Evan Bagura Selaf AE Dui Bhage Bibhakta Bassien Ba Jiosinaklain Anchal Sampadana Bangladeshe Hinge Joner Dakshin O Purbangshe Jiosinaklain Lakshya Kara Jay Sadharan Bhabe Dharna Kara Hay Atite Koun Bhutattbik Samayakale Voo Alorner Madhyame Bhanj Parbat Srishtir Samay Bassien Ba Jiosinaklain Srishti Hayechhe AE Anchaler Pradhan Baishishtya Holo Ekhane Pallik Sila Starer Purutba Tulnamulak Bhabe Anek Bedshee Ja Sadharanat 12 The 20 Kilomitarerao Bedshee Puru AE Anchhaler Are Ekati Ullekhajogya Baishishtya Holo AE Bassien Anchale Pallik Shilastarer Niche Mahadeshiya Vita Shilar Paribarte Mahasagriya Vita Sila Upasthit Dharna Kara Hay A Anchhale Pallik Shilastarer Niche Kichhu Kriteshas Juger Shilastra Rayechhe Bassien Ba Jiosinaklain Anchalake Fordip Anchhal Evan Fold Belt Anchal Namer Aro Duti Upabhage Bhag Kara Hay
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bangladesher Bhutattbik Gathan Samparke Ball,Speak About Geological Structure Of Bangladesh.,


vokalandroid