বিজ্ঞান নিয়ে মজার তথ্য? ...

বিজ্ঞান নিয়ে ১০ মজার তথ্য বিজ্ঞানী হওয়া কিন্তু চারটি খানি কথা নয়! এরজন্য প্রয়োজন আগ্রহ পরিশ্রম ও মেধা।ঢাকা: তোমরা যারা বড় হয়ে বিজ্ঞানী হবে, তাদের মজাই আলাদা! কারণ, গবেষণার ফলে কতোইনা মজার মজার তথ্য জানতে পারেন বিজ্ঞানীরা। তবে বিজ্ঞানী হওয়া কিন্তু চারটি খানি কথা নয়! এরজন্য প্রয়োজন নিষ্ঠা, মেধা। বিজ্ঞানের মজারও যেন শেষ নেই। চলো জেনে নেই বিজ্ঞানের কিছু মজার তথ্য- ১. খরগোশ ও তোতাপাখিকে কখনো পেছন ফিরে তাকানোর দরকার হয় না। তারা মাথা সোজা রেখেও পেছনের দৃশ্য দেখতে পায়। ২. প্রজাপতি কোনো খাবারের উপর বসলেই ওই খাবারটির স্বাদ অনুভব করতে পারে। কারণ প্রজাপতির ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে এর পায়ের তালুতে। আর মানুষের ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে জিহ্বায়। ৩. ঘরের বেশিরভাগ ধুলাবালিই আমাদের দেহের মৃত চামড়া।৪. স্টেগাসোরাস ডায়নোসোরদের দৈর্ঘ্য ৯ মিটার পর্যন্ত হয়, কিন্তু এদের মস্তিষ্ক একটা আখরোটের সমান। ৫. মহাশূন্যে গেলে মানুষ কিছুটা লম্বা হয়। সেখানে মাধ্যাকর্ষণ না থাকায় মেরুদণ্ডের উপর কোনো চাপ থাকে না। ফলে মেরুদণ্ডের দৈর্ঘ্য কিছুটা বাড়ে। ৬. ক্যাংগারু এবং ইমু পিছন দিকে যেতে পারে না। পায়ের বিচিত্র গঠনের কারণে পিছন দিকে হাঁটা তাদের জন্য ঝামেলার।৭. বেঢপ আকৃতির জলহস্তীকে দেখলে বোঝা যায় না আসলে এরা মানুষের চেয়েও জোরে দৌড়াতে পারে।৮. একটা অ্যানালগ ঘড়ি যদি নষ্টও হয়ে থাকে তা দিনে দু’বার সঠিক সময় দেখাবে। ৯. চোখ খোলা রেখে হাঁচি দেওয়া অসম্ভব। ১০. পৃথিবীতে প্রতিবছর ১০ লাখেরও বেশি ভূমিকম্প হয়। কিন্তু এর বেশিরভাগই আমরা টের পাই না। তবে রিখটার স্কেলে তা ঠিকই ধরা পড়ে।
Romanized Version
বিজ্ঞান নিয়ে ১০ মজার তথ্য বিজ্ঞানী হওয়া কিন্তু চারটি খানি কথা নয়! এরজন্য প্রয়োজন আগ্রহ পরিশ্রম ও মেধা।ঢাকা: তোমরা যারা বড় হয়ে বিজ্ঞানী হবে, তাদের মজাই আলাদা! কারণ, গবেষণার ফলে কতোইনা মজার মজার তথ্য জানতে পারেন বিজ্ঞানীরা। তবে বিজ্ঞানী হওয়া কিন্তু চারটি খানি কথা নয়! এরজন্য প্রয়োজন নিষ্ঠা, মেধা। বিজ্ঞানের মজারও যেন শেষ নেই। চলো জেনে নেই বিজ্ঞানের কিছু মজার তথ্য- ১. খরগোশ ও তোতাপাখিকে কখনো পেছন ফিরে তাকানোর দরকার হয় না। তারা মাথা সোজা রেখেও পেছনের দৃশ্য দেখতে পায়। ২. প্রজাপতি কোনো খাবারের উপর বসলেই ওই খাবারটির স্বাদ অনুভব করতে পারে। কারণ প্রজাপতির ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে এর পায়ের তালুতে। আর মানুষের ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে জিহ্বায়। ৩. ঘরের বেশিরভাগ ধুলাবালিই আমাদের দেহের মৃত চামড়া।৪. স্টেগাসোরাস ডায়নোসোরদের দৈর্ঘ্য ৯ মিটার পর্যন্ত হয়, কিন্তু এদের মস্তিষ্ক একটা আখরোটের সমান। ৫. মহাশূন্যে গেলে মানুষ কিছুটা লম্বা হয়। সেখানে মাধ্যাকর্ষণ না থাকায় মেরুদণ্ডের উপর কোনো চাপ থাকে না। ফলে মেরুদণ্ডের দৈর্ঘ্য কিছুটা বাড়ে। ৬. ক্যাংগারু এবং ইমু পিছন দিকে যেতে পারে না। পায়ের বিচিত্র গঠনের কারণে পিছন দিকে হাঁটা তাদের জন্য ঝামেলার।৭. বেঢপ আকৃতির জলহস্তীকে দেখলে বোঝা যায় না আসলে এরা মানুষের চেয়েও জোরে দৌড়াতে পারে।৮. একটা অ্যানালগ ঘড়ি যদি নষ্টও হয়ে থাকে তা দিনে দু’বার সঠিক সময় দেখাবে। ৯. চোখ খোলা রেখে হাঁচি দেওয়া অসম্ভব। ১০. পৃথিবীতে প্রতিবছর ১০ লাখেরও বেশি ভূমিকম্প হয়। কিন্তু এর বেশিরভাগই আমরা টের পাই না। তবে রিখটার স্কেলে তা ঠিকই ধরা পড়ে।Bigyan Niye 10 Majar Tathya Bigyani Hwa Kintu Charti Khani Katha Noy Erajanya Prayojan Agrah Parishram O Medha Dhaka Tomra Jara Bar Huye Bigyani Habe Tader Majai Alada Karan Gabeshnar Fale Katoina Majar Majar Tathya Jante Paren Bigyanira Tove Bigyani Hwa Kintu Charti Khani Katha Noy Erajanya Prayojan Nistha Medha Bigyaner Majarao Jen Sesh Nei Chalo Jene Nei Bigyaner Kichhu Majar Tathya 1 Kharagosh O Totapakhike Kakhano Passion Fire Takanor Darakar Hay Na Tara Matha Soja Rekheo Pechhner Drishya Dekhte Pay 2 Prajapati Kono Khabarer Upar Basalei We Khabartir Swad Anubhav Karate Pare Karan Prajaptir ‘testa Riseptaro Thake Aare Payer Talute Are Manusher ‘testa Riseptaro Thake Jihbay 3 Gharer Beshirbhag Dhulabalii Amader Deher Mrit Chamra 4 Stegasoras Daynosorder Dairghya 9 Meter Parjanta Hay Kintu Eder Mastishk Ekata Akharoter Saman 5 Mahashunye Gele Manus Kichhuta Lamba Hay Sekhane Madhyakarshan Na Thakay Merudander Upar Kono Chap Thake Na Fale Merudander Dairghya Kichhuta Bare 6 Kyangaru Evan Imu Pichhan Dike Jete Pare Na Payer Bichitra Gathaner Karne Pichhan Dike Hanta Tader Janya Jhamelar 7 Bedhap Akritir Jalahastike Dekhle Bojha Jay Na Ashley Era Manusher Cheyeo Jore Daurate Pare 8 Ekata Analogue Ghadi Jodi Nashtao Huye Thake Ta Dine Duobar Sathik Camay Dekhabe 9 Chokh Khola Rekhe Hanchi Dewa Asambhab 10 Prithibite Pratibachhar 10 Lakherao Bedshee Bhumikampa Hay Kintu Aare Beshirbhagai Amara Ter Pai Na Tove Rikhtar Skele Ta Thikai Dhara Pare
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


বিজ্ঞানের ১০ মজার তথ্য- ১. খরগোশ ও তোতাপাখিকে কখনো পেছন ফিরে তাকানোর দরকার হয় না। তারা মাথা সোজা রেখেও পেছনের দৃশ্য দেখতে পায়। ২. প্রজাপতি কোনো খাবারের উপর বসলেই ওই খাবারটির স্বাদ অনুভব করতে পারে। কারণ প্রজাপতির ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে এর পায়ের তালুতে। আর মানুষের ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে জিহ্বায়। ৩. ঘরের বেশিরভাগ ধুলাবালিই আমাদের দেহের মৃত চামড়া। ৪. স্টেগাসোরাস ডায়নোসোরদের দৈর্ঘ্য ৯ মিটার পর্যন্ত হয়, কিন্তু এদের মস্তিষ্ক একটা আখরোটের সমান। ৫. মহাশূন্যে গেলে মানুষ কিছুটা লম্বা হয়। সেখানে মাধ্যাকর্ষণ না থাকায় মেরুদণ্ডের উপর কোনো চাপ থাকে না। ফলে মেরুদণ্ডের দৈর্ঘ্য কিছুটা বাড়ে। ৬. ক্যাংগারু এবং ইমু পিছন দিকে যেতে পারে না। পায়ের বিচিত্র গঠনের কারণে পিছন দিকে হাঁটা তাদের জন্য ঝামেলার। ৭. বেঢপ আকৃতির জলহস্তীকে দেখলে বোঝা যায় না আসলে এরা মানুষের চেয়েও জোরে দৌড়াতে পারে। ৮. একটা অ্যানালগ ঘড়ি যদি নষ্টও হয়ে থাকে তা দিনে দু’বার সঠিক সময় দেখাবে। ৯. চোখ খোলা রেখে হাঁচি দেওয়া অসম্ভব। ১০. পৃথিবীতে প্রতিবছর ১০ লাখেরও বেশি ভূমিকম্প হয়। কিন্তু এর বেশিরভাগই আমরা টের পাই না। তবে রিখটার স্কেলে তা ঠিকই ধরা পড়ে।
Romanized Version
বিজ্ঞানের ১০ মজার তথ্য- ১. খরগোশ ও তোতাপাখিকে কখনো পেছন ফিরে তাকানোর দরকার হয় না। তারা মাথা সোজা রেখেও পেছনের দৃশ্য দেখতে পায়। ২. প্রজাপতি কোনো খাবারের উপর বসলেই ওই খাবারটির স্বাদ অনুভব করতে পারে। কারণ প্রজাপতির ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে এর পায়ের তালুতে। আর মানুষের ‘টেস্ট রিসেপ্টর’ থাকে জিহ্বায়। ৩. ঘরের বেশিরভাগ ধুলাবালিই আমাদের দেহের মৃত চামড়া। ৪. স্টেগাসোরাস ডায়নোসোরদের দৈর্ঘ্য ৯ মিটার পর্যন্ত হয়, কিন্তু এদের মস্তিষ্ক একটা আখরোটের সমান। ৫. মহাশূন্যে গেলে মানুষ কিছুটা লম্বা হয়। সেখানে মাধ্যাকর্ষণ না থাকায় মেরুদণ্ডের উপর কোনো চাপ থাকে না। ফলে মেরুদণ্ডের দৈর্ঘ্য কিছুটা বাড়ে। ৬. ক্যাংগারু এবং ইমু পিছন দিকে যেতে পারে না। পায়ের বিচিত্র গঠনের কারণে পিছন দিকে হাঁটা তাদের জন্য ঝামেলার। ৭. বেঢপ আকৃতির জলহস্তীকে দেখলে বোঝা যায় না আসলে এরা মানুষের চেয়েও জোরে দৌড়াতে পারে। ৮. একটা অ্যানালগ ঘড়ি যদি নষ্টও হয়ে থাকে তা দিনে দু’বার সঠিক সময় দেখাবে। ৯. চোখ খোলা রেখে হাঁচি দেওয়া অসম্ভব। ১০. পৃথিবীতে প্রতিবছর ১০ লাখেরও বেশি ভূমিকম্প হয়। কিন্তু এর বেশিরভাগই আমরা টের পাই না। তবে রিখটার স্কেলে তা ঠিকই ধরা পড়ে।Bigyaner 10 Majar Tathya 1 Kharagosh O Totapakhike Kakhano Passion Fire Takanor Darakar Hay Na Tara Matha Soja Rekheo Pechhner Drishya Dekhte Pay 2 Prajapati Kono Khabarer Upar Basalei We Khabartir Swad Anubhav Karate Pare Karan Prajaptir ‘testa Riseptaro Thake Aare Payer Talute Are Manusher ‘testa Riseptaro Thake Jihbay 3 Gharer Beshirbhag Dhulabalii Amader Deher Mrit Chamra 4 Stegasoras Daynosorder Dairghya 9 Meter Parjanta Hay Kintu Eder Mastishk Ekata Akharoter Saman 5 Mahashunye Gele Manus Kichhuta Lamba Hay Sekhane Madhyakarshan Na Thakay Merudander Upar Kono Chap Thake Na Fale Merudander Dairghya Kichhuta Bare 6 Kyangaru Evan Imu Pichhan Dike Jete Pare Na Payer Bichitra Gathaner Karne Pichhan Dike Hanta Tader Janya Jhamelar 7 Bedhap Akritir Jalahastike Dekhle Bojha Jay Na Ashley Era Manusher Cheyeo Jore Daurate Pare 8 Ekata Analogue Ghadi Jodi Nashtao Huye Thake Ta Dine Duobar Sathik Camay Dekhabe 9 Chokh Khola Rekhe Hanchi Dewa Asambhab 10 Prithibite Pratibachhar 10 Lakherao Bedshee Bhumikampa Hay Kintu Aare Beshirbhagai Amara Ter Pai Na Tove Rikhtar Skele Ta Thikai Dhara Pare
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bigyan Niye Majar Tathya,Interesting Information About Science?,


vokalandroid