আইন অনুমোদন কি ? ...

যুবকল্যাণ তহবিল আইন ২০১৫ অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা। ১৯৮৫ সালে সামরিক শাসন আমলের এ- সংক্রান্ত অধ্যাদেশ পরীক্ষা- নিরীক্ষা করে আইনটি চূড়ান্ত করা বিদ্যমান আইন সময় উপযোগী করার লক্ষ্যে কারাদ- ও জরিমানার বিধান অপরিবর্তিত রেখে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই) আইন, ২০১৬-এর খসড়া নীতিগতভাবে অনুমোদন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, খসড়া আইনে নতুন ধারণা সংযোজন করে সংশোধন এবং বিদ্যমান আইনের মান উন্নয়ন ও আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধান করা হয়েছে। তিনি বলেন, ১৯৮৫ সালে সামরিক শাসনের মেয়াদে একটি অধ্যাদেশের মাধ্যমে আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছিল। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ‘মানসংক্রান্ত’ পরিবর্তিত বিষয়গুলো সন্নিবেশিত করে আইনটি সংশোধন এবং এর আগে সামরিক শাসনামলের সকল আইন অবৈধ ঘোষণাসংক্রান্ত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশাবলী অনুসরণ করা হয়েছে। সাত সদস্যের একটি সম্প্রচার কমিশন গঠনের প্রস্তাব রেখে 'সম্প্রচার আইন ২০১৮' এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আজ সোমবার সচিবালয়ে।
Romanized Version
যুবকল্যাণ তহবিল আইন ২০১৫ অনুমোদন করেছে মন্ত্রিসভা। ১৯৮৫ সালে সামরিক শাসন আমলের এ- সংক্রান্ত অধ্যাদেশ পরীক্ষা- নিরীক্ষা করে আইনটি চূড়ান্ত করা বিদ্যমান আইন সময় উপযোগী করার লক্ষ্যে কারাদ- ও জরিমানার বিধান অপরিবর্তিত রেখে বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ড অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশন (বিএসটিআই) আইন, ২০১৬-এর খসড়া নীতিগতভাবে অনুমোদন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকের পর সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, খসড়া আইনে নতুন ধারণা সংযোজন করে সংশোধন এবং বিদ্যমান আইনের মান উন্নয়ন ও আন্তর্জাতিক আইনের সঙ্গে সামঞ্জস্য বিধান করা হয়েছে। তিনি বলেন, ১৯৮৫ সালে সামরিক শাসনের মেয়াদে একটি অধ্যাদেশের মাধ্যমে আইনটি প্রণয়ন করা হয়েছিল। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ‘মানসংক্রান্ত’ পরিবর্তিত বিষয়গুলো সন্নিবেশিত করে আইনটি সংশোধন এবং এর আগে সামরিক শাসনামলের সকল আইন অবৈধ ঘোষণাসংক্রান্ত সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশাবলী অনুসরণ করা হয়েছে। সাত সদস্যের একটি সম্প্রচার কমিশন গঠনের প্রস্তাব রেখে 'সম্প্রচার আইন ২০১৮' এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আজ সোমবার সচিবালয়ে। Jubakalyan Tahabil Ain 2015 Anumodan Karechhe Mantrisabha 1985 Sale Samrik Hasn Amaler A Sankranta Adhyadesh Pariksha Niriksha Kare Ainati Churanta Kara Bidyaman Ain Camay Upajogi Karar Lakshye Karad O Jarimanar Bidhan Aparibartit Rekhe Bangladesh Styandard And Testing Institution BSTI Ain 2016 Aare Khasara Nitigatabhabe Anumodan Kara Hayechhe Pradhanamantri Shekh Hasinar Sabhaptitbe Gatakal Sombar Bangladesh Sachibalye Anushthit Mantrisabhar Niymit Baithke AE Anumodan Dea Hya Baithker Par Sangbadikder Brifinkale Mantriparishad Sachiv Mohammad Shafiul Alam Baleno Khasara Aine NATUN Dharna Sangjojan Kare Sangshodhan Evan Bidyaman Ainer Maan Unnayan O Antarjatik Ainer Sange Samanjasya Bidhan Kara Hayechhe Tini Baleno 1985 Sale Samrik Shasner Meyade Ekati Adhyadesher Madhyame Ainati Pranayan Kara Hayechhil Mantriparishad Sachiv Baleno Antarjatik Parjaye ‘manasankranto Paribartit Bishayagulo Sannibeshit Kare Ainati Sangshodhan Evan Aare Age Samrik Shasnamler Sakal Ain Abaidh Ghoshnasankranta Supreme Korter Nirdeshabli Anusaran Kara Hayechhe Saat Sadasyer Ekati Samprachar Commission Gathaner Prastab Rekhe Samprachar Ain 2018 Aare Khasara Nitigat Anumodan Diyechhe Mantrisabha Az Sombar Sachibalye
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

বাণিজ্য সার্টিফিকেট এর ক্ষেত্রে মোট কটি বিশ্ববিদ্যালয় অনুমোদন পেল? ...

নতুন ৭ টি বেসরকারি বিশ্ব বিদ্যালয় অনুমোদন পেল বাণিজ্য সার্টফিকেট -এর ক্ষেত্রে। বর্তমানে বাণিজ্য সার্টিফিকেট প্রাপ্ত বেসরকারী বিশ্যবিদ্যালয়ের সংখ্যা হল মোট ৬৩ টি। এর মধ্যে নতুন আরো ৭ টি বাণিজ্য সার্টजवाब पढ़िये
ques_icon

মন্ত্রী সাসংসদ সহ কত জনকে নতুন টিভি চ্যানেল এর অনুমোদন দিয়েছে ? ...

নতুন পাঁচটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। নতুন টিভি চ্যানেল প্রাপকদের তালিকায় একজন মন্ত্রী, একজন সাংসদসহ সরকারঘনিষ্ঠ ব্যক্তিরা আছেন। নতুন টিভি চ্যানেল এর অনুমতির পর দেশে অনুমতিপ্जवाब पढ़िये
ques_icon

More Answers


সম্প্রচার মাধ্যমের জন্য কমিশন গঠনের প্রস্তাব রেখে ‘সম্প্রচার আইন-২০১৮’র খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। পাশাপাশি সব ধরনের গণমাধ্যমকর্মীর জন্য চাকরির শর্ত ঠিক করে ‘গণমাধ্যমকর্মী (চাকরির শর্তাবলি) আইন-২০১৮’র খসড়ায়ও নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে মোট ৬টি আইন ও নীতিমালার অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। বৈঠকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আইনটি সংসদে পাস হওয়ার পর এখন আর কিছু করার নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রী এ তথ্য জানিয়েছেন। কারাদণ্ডের সঙ্গে জরিমানার বিষয়টি যুক্ত করে পাট আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর আগে ওই আইনে শাস্তির বিধান ছিল তিন বছর কারাদণ্ড। নতুন আইনে জেল ছাড়াও এক লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে আইনটির অনুমোদন দেওয়া হয়। পাট নিয়ে বিদ্যমান আইন আরও কার্যকর ও সময় উপযোগী করার লক্ষ্যে আইনটি করার কথা জানিয়েছে সরকার। নতুন আইনে পাট ও পাটজাত পণ্য উৎপাদন, ব্যবহার, গবেষণাসহ এ-সংক্রান্ত আইনের যেকোনো ধারা লঙ্ঘন করলে জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, আগের অধ্যাদেশে আইন লঙ্ঘন করলে তিন বছর কারাদণ্ডের বিধান থাকলেও কত টাকা জরিমানা করা যাবে, তা নির্ধারিত ছিল না। তিনি বলেন, খসড়া আইনের ২১ ধারা অনুযায়ী, মিথ্যা বিবৃতি প্রদান অথবা আইন লঙ্ঘন করার জন্য সরকার কোনো ব্যক্তি বা সংস্থাকে শাস্তি প্রদান করতে পারবে। বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে দুর্ঘটনার মাধ্যমে গুরুতর আহত করলে বা প্রাণহানি ঘটালে চালকের সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ডের বিধান রেখে ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। তবে খসড়া আইন অনুযায়ী প্রাণহানির ক্ষেত্রে দুর্ঘটনার কারণ ইচ্ছাকৃত ছিল তদন্তে তা প্রমাণিত হলে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা অনুযায়ী চালকের শাস্তি হবে মৃত্যুদণ্ড। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বহুল আলোচিত সড়ক পরিবহন আইন অনুমোদন দেয়া হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ে এই অনুমোদনের কথা জানান। গত বছরের ২৭ মার্চ খসড়াটি নীতিগত অনুমোদন দিয়েছিল মন্ত্রিসভা। গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নের দাবিতে রাজধানীজুড়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী আইনটি মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর আইন মন্ত্রণালয় খসড়া আইনটি দ্রুত ভেটিং (পরীক্ষা-নিরীক্ষা) করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে পাঠায়।
Romanized Version
সম্প্রচার মাধ্যমের জন্য কমিশন গঠনের প্রস্তাব রেখে ‘সম্প্রচার আইন-২০১৮’র খসড়ায় নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। পাশাপাশি সব ধরনের গণমাধ্যমকর্মীর জন্য চাকরির শর্ত ঠিক করে ‘গণমাধ্যমকর্মী (চাকরির শর্তাবলি) আইন-২০১৮’র খসড়ায়ও নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়েছে। সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার বৈঠকে মোট ৬টি আইন ও নীতিমালার অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান। বৈঠকে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। আইনটি সংসদে পাস হওয়ার পর এখন আর কিছু করার নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রী এ তথ্য জানিয়েছেন। কারাদণ্ডের সঙ্গে জরিমানার বিষয়টি যুক্ত করে পাট আইনের খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এর আগে ওই আইনে শাস্তির বিধান ছিল তিন বছর কারাদণ্ড। নতুন আইনে জেল ছাড়াও এক লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। গতকাল সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে আইনটির অনুমোদন দেওয়া হয়। পাট নিয়ে বিদ্যমান আইন আরও কার্যকর ও সময় উপযোগী করার লক্ষ্যে আইনটি করার কথা জানিয়েছে সরকার। নতুন আইনে পাট ও পাটজাত পণ্য উৎপাদন, ব্যবহার, গবেষণাসহ এ-সংক্রান্ত আইনের যেকোনো ধারা লঙ্ঘন করলে জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, আগের অধ্যাদেশে আইন লঙ্ঘন করলে তিন বছর কারাদণ্ডের বিধান থাকলেও কত টাকা জরিমানা করা যাবে, তা নির্ধারিত ছিল না। তিনি বলেন, খসড়া আইনের ২১ ধারা অনুযায়ী, মিথ্যা বিবৃতি প্রদান অথবা আইন লঙ্ঘন করার জন্য সরকার কোনো ব্যক্তি বা সংস্থাকে শাস্তি প্রদান করতে পারবে। বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে দুর্ঘটনার মাধ্যমে গুরুতর আহত করলে বা প্রাণহানি ঘটালে চালকের সর্বোচ্চ পাঁচ বছরের কারাদণ্ড বা অর্থদণ্ডের বিধান রেখে ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। তবে খসড়া আইন অনুযায়ী প্রাণহানির ক্ষেত্রে দুর্ঘটনার কারণ ইচ্ছাকৃত ছিল তদন্তে তা প্রমাণিত হলে দণ্ডবিধির ৩০২ ধারা অনুযায়ী চালকের শাস্তি হবে মৃত্যুদণ্ড। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে বহুল আলোচিত সড়ক পরিবহন আইন অনুমোদন দেয়া হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম প্রেস ব্রিফিংয়ে এই অনুমোদনের কথা জানান। গত বছরের ২৭ মার্চ খসড়াটি নীতিগত অনুমোদন দিয়েছিল মন্ত্রিসভা। গত ২৯ জুলাই রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর নিরাপদ সড়ক বাস্তবায়নের দাবিতে রাজধানীজুড়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী আইনটি মন্ত্রিসভায় উপস্থাপনের নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশের পর আইন মন্ত্রণালয় খসড়া আইনটি দ্রুত ভেটিং (পরীক্ষা-নিরীক্ষা) করে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। Samprachar Madhyamer Janya Commission Gathaner Prastab Rekhe ‘samprachar Ain 2018or Khasaray Nitigat Anumodan Diyechhe Mantrisabha Pashapashi Sab Dharaner Ganamadhyamakarmir Janya Chakrir Sharta Thik Kare ‘ganamadhyamakarmi Chakrir Shartabali Ain 2018or Khasarayao Nitigat Anumodan Dea Hayechhe Sombar Sachibalye Pradhanamantri Shekh Hasinar Sabhaptitbe Anushthit Mantrisabhar Baithke Mot 6ti Ain O Nitimalar Anumodan Dea Hya Baithak Sheshe Mantriparishad Sachiv Mohammad Shafiul Alam Sangbadikder Esab Tathya Janan Baithke Digital Nirapatta Ain Niye Alochana Hayechhe Ainati Sansade Pass Hwar Par Ekhan Are Kichhu Karar Nei Ble Mantabya Karechhen Pradhanamantri Shekh Hasina Mantrisabhar Baithke Upasthit Ekadhik Mantri A Tathya Janiyechhen Karadander Sange Jarimanar Bishayati Jukta Kare Pete Ainer Khasara Churanta Anumodan Diyechhe Mantrisabha Aare Age We Aine Shastir Bidhan Chhil Tin Bachhar Karadand NATUN Aine Gel Chharao Ec Lac Taka Jarimana Ba Ubhay Dunder Bidhan Rakha Hayechhe Gatakal Sombar Pradhanamantri Shekh Hasinar Sabhaptitbe Mantrisabhar Niymit Baithke Ainatir Anumodan Dewa Hya Pete Niye Bidyaman Ain RO Karjakar O Camay Upajogi Karar Lakshye Ainati Karar Katha Janiyechhe Sarkar NATUN Aine Pete O Patjat Panya Utpadan Byabahar Gabeshnasah A Sankranta Ainer Jekono Dhara Langhan Karale Jarimanar Bidhan Rakha Hayechhe Baithker Par Mantriparishad Sachiv Mohammad Shafiul Alam Sangbadikder Baleno Ager Adhyadeshe Ain Langhan Karale Tin Bachhar Karadander Bidhan Thakleo Kat Taka Jarimana Kara Jabe Ta Nirdharit Chhil Na Tini Baleno Khasara Ainer 21 Dhara Anujayi Mithya Bibriti Pradan Athaba Ain Langhan Karar Janya Sarkar Kono Byakti Ba Sansthake Shasti Pradan Karate Parbe Beprwa Gari Chaliye Durghatanar Madhyame Gurutar Ahat Karale Ba Pranahani Ghatale Chalker Sarbochch Paanch Bachharer Karadand Ba Arthadander Bidhan Rekhe ‘sadak Paribahan Ain 2018o Aare Khasara Churanta Anumodan Diyechhe Mantrisabha Tove Khasara Ain Anujayi Pranahanir Xetre Durghatanar Karan Ichchhakrit Chhil Tadante Ta Pramanit Hale Dandabidhir 302 Dhara Anujayi Chalker Shasti Habe Mrityudand Gatakal Sombar Sachibalye Pradhanamantri Shekh Hasinar Sabhaptitbe Mantrisabhar Baithke Bahul Alochit Cadc Paribahan Ain Anumodan Dea Hya Mantriparishad Sachiv Mohammad Shafiul Alam Press Brifingye AE Anumodner Katha Janan Gata Bachharer 27 Marsa Khasarati Nitigat Anumodan Diyechhil Mantrisabha Gata 29 Gooli Rajdhanir Bimanabandar Sadqay Baschapay Dui Shiksharthi Nihat Hwar Par Nirapada Cadc Bastabayner Dabite Rajdhanijure Shiksharthider Andolaner Pariprekshite Pradhanamantri Ainati Mantrisabhay Upasthapaner Nirdesh Than Pradhanamantrir Nirdesher Par Ain Mantranalay Khasara Ainati Drut Bheting Pariksha Niriksha Kare Cadc Paribahan O Satu Mantranalye Pathay
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Ain Anumodan Ki ?,What Is The Law Approval?,


vokalandroid