বিজ্ঞান জানতে চাই? ...

বিজ্ঞান জানতে চাই বিজ্ঞান কী আর বিজ্ঞান নিয়ে লেখারই বা দরকার কি সেটা বোধহয় আজ আর ব্যাখ্যা করে বলার প্রয়োজন নেই। আমাদের দেশে এক কালে কিশোর-কিশোরী মাত্রই উঠতি বয়সে কিছু না কিছু কবিতা লিখত। সেই কবিতার জানতে চাই চর্চা নিশ্চয়ই এখনও ফুরিয়ে যায় নি; কিন্তু সেই সঙ্গে বিজ্ঞান বিষয়ে কিছু না কিছু লেখা — অন্তত স্কুলের রচনা লেখার জন্য হলেও – আজ প্রায় সব ছেলেমেয়েকেই করতে হচ্ছে। বড়দের মধ্যেও অনেকে, হয়তো পেশার তাগিদে, কখনো বা শখের বশে বিজ্ঞান, কৃষি, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা এসব বিষয় নিয়ে লিখছেন। কারো কারো ধারণা বিজ্ঞান একটা খুব কাঠখোট্টা রকম কঠিন জিনিস; তা নিয়ে জানতে চাই লেখাও প্রায় সে রকমই। আসলে বিজ্ঞান হল প্রকৃতির নিয়ম-কানুন জানার পদ্ধতি; এই পদ্ধতি সম্পর্কে মাদাম কুরী একদিন বলেছিলেন, বিজ্ঞান হলো পরম সুন্দর। আর লেখার সঙ্গে যে শিল্পের একটা সম্বন্ধ আছে সে আর কে না জানে? তাই বিজ্ঞান নিয়ে যিনি লিখবেন তাঁকে যদি পাঠকেরা একই সঙ্গে বিজ্ঞানী আর শিল্পী হিসেবে দেখতে চান তাহলে আশ্চর্যের কিছু নেই। তবু এটুকু বলা যায় যে, আসলে বিজ্ঞান নিয়ে লেখা মোটেই কঠিন নয় – যদি আপনার জানা থাকে আপনি কেন লিখছেন, কার জন্য লিখছেন, আর কী ধাঁচের লেখা আপনি লিখতে চান। ইতিহাসে দেখা যায়, কখনো কখনো খুব গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের কথা মানুষ প্রথম জেনেছে খুব সাদামাটা সংক্ষিপ্ত লেখার মাধ্যমে। এরকম লেখার নমুনা হিসেবে উল্লেখ করা যায়: আইনস্টাইনের বস্তু ও শক্তির অভিন্নতার সূত্র (১৯০৫), সত্যেন্দ্রনাথ বসুর বসু-আইনস্টাইন সংখ্যায়ন (১৯২৪) বা ডি.এন.এ.-র গড়ন সম্পর্কে ওয়াটসন ও ক্রিক-এর যুগান্তকারী নিবন্ধ (১৯৫৩)। এসব নিবন্ধ লেখা হয়েছিল মূলত বিদগ্ধ বিজ্ঞানী সমাজের এক ক্ষুদ্র বিশেষজ্ঞ গোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে। সাধারণ পাঠক সমাজের জন্য সুখপাঠ্য ভাষায় লেখার কোন দায় সে লেখকদের ছিল না। কিন্তু বিজ্ঞান বিষয়ে অনেক লেখালেখির বেলায় এই বিশেষ দায়ের প্রশ্নটি দেখা দেয়; ফলে সে সব লেখার ভাষা আর রচনাশৈলী রীতিমত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে।
Romanized Version
বিজ্ঞান জানতে চাই বিজ্ঞান কী আর বিজ্ঞান নিয়ে লেখারই বা দরকার কি সেটা বোধহয় আজ আর ব্যাখ্যা করে বলার প্রয়োজন নেই। আমাদের দেশে এক কালে কিশোর-কিশোরী মাত্রই উঠতি বয়সে কিছু না কিছু কবিতা লিখত। সেই কবিতার জানতে চাই চর্চা নিশ্চয়ই এখনও ফুরিয়ে যায় নি; কিন্তু সেই সঙ্গে বিজ্ঞান বিষয়ে কিছু না কিছু লেখা — অন্তত স্কুলের রচনা লেখার জন্য হলেও – আজ প্রায় সব ছেলেমেয়েকেই করতে হচ্ছে। বড়দের মধ্যেও অনেকে, হয়তো পেশার তাগিদে, কখনো বা শখের বশে বিজ্ঞান, কৃষি, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা এসব বিষয় নিয়ে লিখছেন। কারো কারো ধারণা বিজ্ঞান একটা খুব কাঠখোট্টা রকম কঠিন জিনিস; তা নিয়ে জানতে চাই লেখাও প্রায় সে রকমই। আসলে বিজ্ঞান হল প্রকৃতির নিয়ম-কানুন জানার পদ্ধতি; এই পদ্ধতি সম্পর্কে মাদাম কুরী একদিন বলেছিলেন, বিজ্ঞান হলো পরম সুন্দর। আর লেখার সঙ্গে যে শিল্পের একটা সম্বন্ধ আছে সে আর কে না জানে? তাই বিজ্ঞান নিয়ে যিনি লিখবেন তাঁকে যদি পাঠকেরা একই সঙ্গে বিজ্ঞানী আর শিল্পী হিসেবে দেখতে চান তাহলে আশ্চর্যের কিছু নেই। তবু এটুকু বলা যায় যে, আসলে বিজ্ঞান নিয়ে লেখা মোটেই কঠিন নয় – যদি আপনার জানা থাকে আপনি কেন লিখছেন, কার জন্য লিখছেন, আর কী ধাঁচের লেখা আপনি লিখতে চান। ইতিহাসে দেখা যায়, কখনো কখনো খুব গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের কথা মানুষ প্রথম জেনেছে খুব সাদামাটা সংক্ষিপ্ত লেখার মাধ্যমে। এরকম লেখার নমুনা হিসেবে উল্লেখ করা যায়: আইনস্টাইনের বস্তু ও শক্তির অভিন্নতার সূত্র (১৯০৫), সত্যেন্দ্রনাথ বসুর বসু-আইনস্টাইন সংখ্যায়ন (১৯২৪) বা ডি.এন.এ.-র গড়ন সম্পর্কে ওয়াটসন ও ক্রিক-এর যুগান্তকারী নিবন্ধ (১৯৫৩)। এসব নিবন্ধ লেখা হয়েছিল মূলত বিদগ্ধ বিজ্ঞানী সমাজের এক ক্ষুদ্র বিশেষজ্ঞ গোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে। সাধারণ পাঠক সমাজের জন্য সুখপাঠ্য ভাষায় লেখার কোন দায় সে লেখকদের ছিল না। কিন্তু বিজ্ঞান বিষয়ে অনেক লেখালেখির বেলায় এই বিশেষ দায়ের প্রশ্নটি দেখা দেয়; ফলে সে সব লেখার ভাষা আর রচনাশৈলী রীতিমত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে।Bigyan Jante Chai Bigyan Key Are Bigyan Niye Lekharai Ba Darakar Ki SATA Bodhahay Az Are Byakhya Kare Balar Prayojan Nei Amader Deshe Ec Kalle Kishore Kishori Matrai Uthati Bayase Kichhu Na Kichhu Kavita Likhat Sei Kabitar Jante Chai Charcha Nishchayai Ekhanao Furiye Jay Ni Kintu Sei Sange Bigyan Vise Kichhu Na Kichhu Lekha — Antat Skuler Rachana Lekhar Janya Haleo – Az Pray Sab Chhelemeyekei Karate Hachchhe Border Madhyeo Aneke Hayato Peshar Tagide Kakhano Ba Shakher Bashe Bigyan Krishi Swasthya Chikitsa Esab Vysya Niye Likhchhen Karo Karo Dharna Bigyan Ekata Khub Kathkhotta Rakam Kathin Zeneca Ta Niye Jante Chai Lekhao Pray Say Rakamai Ashley Bigyan Hall Prakritir Niyam Kanun Janar Paddhati AE Paddhati Samparke Madam Kuri Ekadin Balechhilen Bigyan Holo Param Sundar Are Lekhar Sange Je Shilper Ekata Sambandha Ache Say Are K Na Jaane Tai Bigyan Niye Jini Likhben Tanke Jodi Pathkera Ekai Sange Bigyani Are SHILPI Hisebe Dekhte Sun Tahle Ashcharjer Kichhu Nei Tabu Etuku Bala Jay Je Ashley Bigyan Niye Lekha Motei Kathin Noy – Jodi Apanar Jaana Thake Apni Can Likhchhen Car Janya Likhchhen Are Key Dhancher Lekha Apni Likhte Sun Itihase Dekha Jay Kakhano Kakhano Khub Gurutbapurna Baigyanik Abishkarer Katha Manus Pratham Jenechhe Khub Sadamata Sankshipta Lekhar Madhyame Erakam Lekhar Namuna Hisebe Ullekh Kara Jay Ainastainer Bastu O Shaktir Abhinnatar Sutra 1905 Satyendranath Basur Basu Ainastain Sankhyayan 1924 Ba Di N A Ra Garan Samparke Watasan O Krik Aare Jugantakari Nibandha 1953 Esab Nibandha Lekha Hayechhil Mulat Bidagdha Bigyani Samajer Ec Xudra Bisheshagya Goshthike Lakshya Kare Sadharan Pathak Samajer Janya Sukhpathya Bhashay Lekhar Koun Daya Say Lekhakader Chhil Na Kintu Bigyan Vise Anek Lekhalekhir Belay AE Vishesha Dayer Prashnati Dekha Dey Fale Say Sab Lekhar Bhasha Are Rachanashaili Ritimat Gurutbapurna Huye Othe
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


বিজ্ঞান কী আর বিজ্ঞান নিয়ে লেখারই বা দরকার কি সেটা বোধহয় আজ আর ব্যাখ্যা করে বলার প্রয়োজন নেই। আমাদের দেশে এক কালে কিশোর-কিশোরী মাত্রই উঠতি বয়সে কিছু না কিছু কবিতা লিখত। সেই কবিতার চর্চা নিশ্চয়ই এখনও ফুরিয়ে যায় নি; কিন্তু সেই সঙ্গে বিজ্ঞান বিষয়ে কিছু না কিছু লেখা — অন্তত স্কুলের রচনা লেখার জন্য হলেও – আজ প্রায় সব ছেলেমেয়েকেই করতে হচ্ছে। বড়দের মধ্যেও অনেকে, হয়তো পেশার তাগিদে, কখনো বা শখের বশে বিজ্ঞান, কৃষি, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা এসব বিষয় নিয়ে লিখছেন। কারো কারো ধারণা বিজ্ঞান একটা খুব কাঠখোট্টা রকম কঠিন জিনিস; তা নিয়ে লেখাও প্রায় সে রকমই। আসলে বিজ্ঞান হল প্রকৃতির নিয়ম-কানুন জানার পদ্ধতি; এই পদ্ধতি সম্পর্কে মাদাম কুরী একদিন বলেছিলেন, বিজ্ঞান হলো পরম সুন্দর। আর লেখার সঙ্গে যে শিল্পের একটা সম্বন্ধ আছে সে আর কে না জানে? তাই বিজ্ঞান নিয়ে যিনি লিখবেন তাঁকে যদি পাঠকেরা একই সঙ্গে বিজ্ঞানী আর শিল্পী হিসেবে দেখতে চান তাহলে আশ্চর্যের কিছু নেই। তবু এটুকু বলা যায় যে, আসলে বিজ্ঞান নিয়ে লেখা মোটেই কঠিন নয় – যদি আপনার জানা থাকে আপনি কেন লিখছেন, কার জন্য লিখছেন, আর কী ধাঁচের লেখা আপনি লিখতে চান।
Romanized Version
বিজ্ঞান কী আর বিজ্ঞান নিয়ে লেখারই বা দরকার কি সেটা বোধহয় আজ আর ব্যাখ্যা করে বলার প্রয়োজন নেই। আমাদের দেশে এক কালে কিশোর-কিশোরী মাত্রই উঠতি বয়সে কিছু না কিছু কবিতা লিখত। সেই কবিতার চর্চা নিশ্চয়ই এখনও ফুরিয়ে যায় নি; কিন্তু সেই সঙ্গে বিজ্ঞান বিষয়ে কিছু না কিছু লেখা — অন্তত স্কুলের রচনা লেখার জন্য হলেও – আজ প্রায় সব ছেলেমেয়েকেই করতে হচ্ছে। বড়দের মধ্যেও অনেকে, হয়তো পেশার তাগিদে, কখনো বা শখের বশে বিজ্ঞান, কৃষি, স্বাস্থ্য, চিকিৎসা এসব বিষয় নিয়ে লিখছেন। কারো কারো ধারণা বিজ্ঞান একটা খুব কাঠখোট্টা রকম কঠিন জিনিস; তা নিয়ে লেখাও প্রায় সে রকমই। আসলে বিজ্ঞান হল প্রকৃতির নিয়ম-কানুন জানার পদ্ধতি; এই পদ্ধতি সম্পর্কে মাদাম কুরী একদিন বলেছিলেন, বিজ্ঞান হলো পরম সুন্দর। আর লেখার সঙ্গে যে শিল্পের একটা সম্বন্ধ আছে সে আর কে না জানে? তাই বিজ্ঞান নিয়ে যিনি লিখবেন তাঁকে যদি পাঠকেরা একই সঙ্গে বিজ্ঞানী আর শিল্পী হিসেবে দেখতে চান তাহলে আশ্চর্যের কিছু নেই। তবু এটুকু বলা যায় যে, আসলে বিজ্ঞান নিয়ে লেখা মোটেই কঠিন নয় – যদি আপনার জানা থাকে আপনি কেন লিখছেন, কার জন্য লিখছেন, আর কী ধাঁচের লেখা আপনি লিখতে চান।Bigyan Key Are Bigyan Niye Lekharai Ba Darakar Ki SATA Bodhahay Az Are Byakhya Kare Balar Prayojan Nei Amader Deshe Ec Kalle Kishore Kishori Matrai Uthati Bayase Kichhu Na Kichhu Kavita Likhat Sei Kabitar Charcha Nishchayai Ekhanao Furiye Jay Ni Kintu Sei Sange Bigyan Vise Kichhu Na Kichhu Lekha — Antat Skuler Rachana Lekhar Janya Haleo – Az Pray Sab Chhelemeyekei Karate Hachchhe Border Madhyeo Aneke Hayato Peshar Tagide Kakhano Ba Shakher Bashe Bigyan Krishi Swasthya Chikitsa Esab Vysya Niye Likhchhen Karo Karo Dharna Bigyan Ekata Khub Kathkhotta Rakam Kathin Zeneca Ta Niye Lekhao Pray Say Rakamai Ashley Bigyan Hall Prakritir Niyam Kanun Janar Paddhati AE Paddhati Samparke Madam Kuri Ekadin Balechhilen Bigyan Holo Param Sundar Are Lekhar Sange Je Shilper Ekata Sambandha Ache Say Are K Na Jaane Tai Bigyan Niye Jini Likhben Tanke Jodi Pathkera Ekai Sange Bigyani Are SHILPI Hisebe Dekhte Sun Tahle Ashcharjer Kichhu Nei Tabu Etuku Bala Jay Je Ashley Bigyan Niye Lekha Motei Kathin Noy – Jodi Apanar Jaana Thake Apni Can Likhchhen Car Janya Likhchhen Are Key Dhancher Lekha Apni Likhte Sun
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bigyan Jante Chai,Want To Know Science?,


vokalandroid