বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ কে করেন? ...

বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ করেন ষাট গম্বুজ মসজিদ বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ। মসজিদটির গায়ে কোনো শিলালিপি নেই। তাই এটি কে নির্মাণ করেছিলেন বা কোন সময়ে নির্মাণ করা হয়েছিল সে সম্বন্ধে সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া যায় না। তবে মসজিদটির স্থাপত্যশৈলী দেখলে এটি যে খান জাহান আলী নির্মাণ করেছিলেন সে সম্বন্ধে কোনো সন্দেহ থাকে না। ধারণা করা হয় তিনি ১৫শ শতাব্দীতে এটি নির্মাণ করেন। এ মসজিদটি বহু বছর ধরে ও বহু অর্থ খরচ করে নির্মাণ করা হয়েছিল। পাথরগুলো আনা হয়েছিল রাজমহল থেকে। এটি বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটির মধ্যে অবস্থিত; বাগেরহাট শহরটিকেই বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। ১৯৮৩ খ্রিষ্টাব্দে ইউনেস্কো এই সম্মান প্রদান করে। সুলতান নসিরউদ্দিন মাহমুদ শাহের (১৪৩৫-৫৯) আমলে খান আল-আজম উলুগ খানজাহান সুন্দরবনের কোল ঘেঁষে খলিফাবাদ রাজ্য গড়ে তোলেন। খানজাহান বৈঠক করার জন্য একটি দরবার হল গড়ে তোলেন, যা পরে ষাট গম্বুজ মসজিদ হয়।[১] এ মসজিদটি বহু বছর ধরে ও বহু অর্থ খরচ করে নির্মাণ করা হয়েছিল। পাথরগুলো আনা হয়েছিল রাজমহল থেকে। তুঘলকি ও জৌনপুরী নির্মাণশৈলী এতে সুস্পষ্ট।
Romanized Version
বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ করেন ষাট গম্বুজ মসজিদ বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ। মসজিদটির গায়ে কোনো শিলালিপি নেই। তাই এটি কে নির্মাণ করেছিলেন বা কোন সময়ে নির্মাণ করা হয়েছিল সে সম্বন্ধে সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া যায় না। তবে মসজিদটির স্থাপত্যশৈলী দেখলে এটি যে খান জাহান আলী নির্মাণ করেছিলেন সে সম্বন্ধে কোনো সন্দেহ থাকে না। ধারণা করা হয় তিনি ১৫শ শতাব্দীতে এটি নির্মাণ করেন। এ মসজিদটি বহু বছর ধরে ও বহু অর্থ খরচ করে নির্মাণ করা হয়েছিল। পাথরগুলো আনা হয়েছিল রাজমহল থেকে। এটি বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটির মধ্যে অবস্থিত; বাগেরহাট শহরটিকেই বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। ১৯৮৩ খ্রিষ্টাব্দে ইউনেস্কো এই সম্মান প্রদান করে। সুলতান নসিরউদ্দিন মাহমুদ শাহের (১৪৩৫-৫৯) আমলে খান আল-আজম উলুগ খানজাহান সুন্দরবনের কোল ঘেঁষে খলিফাবাদ রাজ্য গড়ে তোলেন। খানজাহান বৈঠক করার জন্য একটি দরবার হল গড়ে তোলেন, যা পরে ষাট গম্বুজ মসজিদ হয়।[১] এ মসজিদটি বহু বছর ধরে ও বহু অর্থ খরচ করে নির্মাণ করা হয়েছিল। পাথরগুলো আনা হয়েছিল রাজমহল থেকে। তুঘলকি ও জৌনপুরী নির্মাণশৈলী এতে সুস্পষ্ট। Bikhyat Saat Gambuj Masajid Nirman Curren Saat Gambuj Masajid Bangladesher Bagerhat Jelar Dakhin Pashchime Abasthit Ekati Prachin Masajid Masajidtir Gaye Kono Shilalipi Nei Tai AT K Nirman Karechhilen Ba Koun Samaye Nirman Kara Hayechhil Say Sambandhe Sathik Kono Tathya Pawa Jay Na Tove Masajidtir Sthapatyashaili Dekhle AT Je Khan Jahan Ali Nirman Karechhilen Say Sambandhe Kono Sandeh Thake Na Dharna Kara Hay Tini 15sh Shatabdite AT Nirman Curren A Masajidti Bahu Bachhar Dhare O Bahu Earth Kharach Kare Nirman Kara Hayechhil Patharagulo Ana Hayechhil Rajamahal Theke AT Bangladesher Tinti Biswa Aitihyabahi Sthaner Ekatir Madhye Abasthit Bagerhat Shaharatikei Biswa Aitihyabahi Sthaner Marjada Dewa Hayechhe 1983 Khrishtabde Yunesko AE Samman Pradan Kare Sultan Nasirauddin Mahmud Shaher 1435 59 Amole Khan Al Azam Ulug Khanjahan Sundarabaner Coll Ghenshe Khalifabad Rajya Gare Tolen Khanjahan Baithak Karar Janya Ekati Darbar Hall Gare Tolen Ja Pare Saat Gambuj Masajid Hay 1 A Masajidti Bahu Bachhar Dhare O Bahu Earth Kharach Kare Nirman Kara Hayechhil Patharagulo Ana Hayechhil Rajamahal Theke Tughalaki O Jaunpuri Nirmanashaili Ete Suspashta
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ করেন : বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ করেন পীর খান জাহান আলী। বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ। মসজিদটির গায়ে কোনো শিলালিপি নেই। তাই এটি কে নির্মাণ করেছিলেন বা কোন সময়ে নির্মাণ করা হয়েছিল সে সম্বন্ধে সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া যায় না। তবে মসজিদটির স্থাপত্যশৈলী দেখলে এটি যে খান জাহান আলী নির্মাণ করেছিলেন সে সম্বন্ধে কোনো সন্দেহ থাকে না। ধারণা করা হয় তিনি ১৫শ শতাব্দীতে এটি নির্মাণ করেন। এ মসজিদটি বহু বছর ধরে ও বহু অর্থ খরচ করে নির্মাণ করা হয়েছিল। পাথরগুলো আনা হয়েছিল রাজমহল থেকে। এটি বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটির মধ্যে অবস্থিত; বাগেরহাট শহরটিকেই বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। ১৯৮৩ খ্রিষ্টাব্দে ইউনেস্কো এই সম্মান প্রদান করে।
Romanized Version
বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ করেন : বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ নির্মাণ করেন পীর খান জাহান আলী। বিখ্যাত ষাট গম্বুজ মসজিদ বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ। মসজিদটির গায়ে কোনো শিলালিপি নেই। তাই এটি কে নির্মাণ করেছিলেন বা কোন সময়ে নির্মাণ করা হয়েছিল সে সম্বন্ধে সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া যায় না। তবে মসজিদটির স্থাপত্যশৈলী দেখলে এটি যে খান জাহান আলী নির্মাণ করেছিলেন সে সম্বন্ধে কোনো সন্দেহ থাকে না। ধারণা করা হয় তিনি ১৫শ শতাব্দীতে এটি নির্মাণ করেন। এ মসজিদটি বহু বছর ধরে ও বহু অর্থ খরচ করে নির্মাণ করা হয়েছিল। পাথরগুলো আনা হয়েছিল রাজমহল থেকে। এটি বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটির মধ্যে অবস্থিত; বাগেরহাট শহরটিকেই বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের মর্যাদা দেওয়া হয়েছে। ১৯৮৩ খ্রিষ্টাব্দে ইউনেস্কো এই সম্মান প্রদান করে।Bikhyat Saat Gambuj Masajid Nirman Curren : Bikhyat Saat Gambuj Masajid Nirman Curren Peer Khan Jahan Ali Bikhyat Saat Gambuj Masajid Bangladesher Bagerhat Jelar Dakhin Pashchime Abasthit Ekati Prachin Masajid Masajidtir Gaye Kono Shilalipi Nei Tai AT K Nirman Karechhilen Ba Koun Samaye Nirman Kara Hayechhil Say Sambandhe Sathik Kono Tathya Pawa Jay Na Tove Masajidtir Sthapatyashaili Dekhle AT Je Khan Jahan Ali Nirman Karechhilen Say Sambandhe Kono Sandeh Thake Na Dharna Kara Hay Tini 15sh Shatabdite AT Nirman Curren A Masajidti Bahu Bachhar Dhare O Bahu Earth Kharach Kare Nirman Kara Hayechhil Patharagulo Ana Hayechhil Rajamahal Theke AT Bangladesher Tinti Biswa Aitihyabahi Sthaner Ekatir Madhye Abasthit Bagerhat Shaharatikei Biswa Aitihyabahi Sthaner Marjada Dewa Hayechhe 1983 Khrishtabde Yunesko AE Samman Pradan Kare
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bikhyat Saat Gambuj Masajid Nirman K Curren,Who Built The Famous 60-dome Mosque?,


vokalandroid