বিচারের মুখোমুখি ...

বিচারের মুখোমুখি এবার যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত সংগঠন জামায়াতে ইসলামীর বিচারের উদ্যোগ নিচ্ছে নতুন সরকার। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সমকালকে জানিয়েছেন আর বিলম্ব নয় জামায়াতকে বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। এ লক্ষ্যে আইন সংশোধন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। একাত্তরে স্বাধীনতা সংগ্রামে যুদ্ধাপরাধ করার দায়ে এরই মধ্যে জামায়াতে ইসলামীর বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতার সাজা কার্যকর হয়েছে। অভিযুক্ত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলমান। এই বিচারকালেই একাধিক বিচারক জামায়াতে ইসলামীকে একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করেন। কিন্তু কোনো নির্বাহী আদেশে সরকার এই সংগঠনকে নিষিদ্ধ করেনি। আইনের আলোকে বিচারের মাধ্যমে সরকার এই সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ করতে চায় বলে সরকারি সূত্রে জানা গেছে। টানা দ্বিতীয়বার আইনমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর গতকাল মঙ্গলবার আনিসুল হক সমকালকে জানিয়েছেন, 'দল হিসেবে জামায়াতের বিচার করতে দ্রুত আইন সংশোধন করা হবে। বিভিন্ন কারণে আমরা জামায়াতের বিচার এতদিন করতে পারিনি। এবার অবশ্যই করা হবে। জামায়াতের বিচার করতে যেটুকু আইনি সংশোধনের প্রয়োজন, সেটা নিশ্চয়ই করা হবে।' তিনি আরও বলেন, জামায়াতের বিরুদ্ধে শুধু বাংলাদেশের আদালতে নয়, বিদেশি আদালতেও এই সংগঠনটিকে সন্ত্রাসী দল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।'জামায়াতের বিচারের লক্ষ্যে কবে নাগাদ আইন সংশোধনের উদ্যোগ নেওয়া হবে- জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, 'কোনো সময় বেঁধে দেওয়া যাবে না। তবে যথাসম্ভব তাড়াতাড়িই করা হবে।' আইনমন্ত্রীর বক্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশিষ্টজন। তারাও মনে করেন আর বিলম্ব না করে দ্রুত বিচার হওয়া উচিত। মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পর দল হিসেবেও জামায়াতের বিচার করা প্রয়োজন। সে জন্য দরকার সরকারের সদিচ্ছা। মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যরা দীর্ঘদিন ধরে অধীর অপেক্ষা করছেন। তারা মনে করেন, জামায়াতের বিচার না হলে ত্রিশ লাখ শহীদ পরিবার ন্যায়বিচার পাবে না। স্বাধীনতার ৪৭ বছরেও বিতর্কিত এ দলটি প্রকাশ্যেই তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। সর্বমহল জামায়াতের বিচার নিয়ে সোচ্চার থাকলেও দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি নেই। নির্বাচন কমিশনে এ দলটির নিবন্ধন না থাকলেও সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতের ২৫ জন প্রার্থী বিএনপির প্রতীক ধানের শীষ নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। তবে তাদের মধ্যে কেউ জিততে পারেননি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ সমকালকে বলেন, আইনমন্ত্রীর বক্তব্য ইতিবাচক। এটা ভালো উদ্যোগ। তাকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আশা করব, অতি সত্বর আইনটি পাস করে দল হিসেবে জামায়াতকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে। তবে প্রচলিত আইনে জামায়াতের বিচার করতে কোনো বাধা নেই বলে মনে করেন সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ এই আইনজীবী। রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সমকালকে বলেন, আইনমন্ত্রীর বক্তব্যের সঙ্গে আমিও একমত। অবশ্যই এটা ভালো উদ্যোগ। আইসিটি অ্যাক্ট সংশোধন করে জামায়াতের বিচার করা যেতে পারে। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক সমকালকে বলেন, নতুন প্রজন্মের দাবি জামায়াতকে সব কর্মকাণ্ড থেকে বিরত রাখা। জামায়াতের বিচার করার উদ্যোগ ভালো। আইনমন্ত্রীর বক্তব্যে জনগণের প্রত্যাশার প্রতিফলন বলে মনে করেন তিনি। একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লেখক-সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির সমকালকে বলেন, ২৭ বছর ধরে আমরা জামায়াতের বিচারের দাবি করে আসছি। শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শেষ হয়েছে, এখন সন্ত্রাসী দল জামায়াতের বিচার করতে হবে। দেশ থেকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্র্মূল করতে হলে জামায়াতকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে। এতকাল ধরে কেন তাদের বিচার হচ্ছে না, তা আমার বোধগম্য নয়। তিনি বলেন, এখনই উপযুক্ত সময়। যত দ্রুত সম্ভব আইন সংশোধন করে জামায়াতের পাশাপাশি আলবদর, আলশামসসহ সংশ্নিষ্টদের বিচারের মুখোমুখি করা। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ড. তুরিন আফরোজ সমকালকে বলেন, আইনমন্ত্রীর বক্তব্যের জন্য সাধুবাদ। এই সরকারের ওপর জাতির অগাধ আস্থা রয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ক্ষেত্রে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের যে উদ্যোগ ও সহযোগিতা পেয়েছি, তা নিঃসন্দেহে উল্লেখ করার মতো। সরকার আইনি জটিলতা দূর করে জামায়াতকে বিচারের মুখোমুখি করবে এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি। ২০১৩ সালের ১ আগস্ট হাইকোর্ট এক রায়ে স্বাধীনতাবিরোধী সংগঠন জামায়াতের নিবন্ধন (রেজিস্ট্রেশন) অবৈধ ও কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করেন। উচ্চ আদালতের এ রায়ের পর নির্বাচন কমিশন যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত দলটির নিবন্ধন বাতিল ও নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করে। হাইকোর্টের দেওয়া ওই রায়ের বিরুদ্ধে জামায়াত সর্বোচ্চ আদালতে আপিল দাখিল করলেও গত ছয় বছর ধরে সেই আপিলের শুনানির উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
Romanized Version
বিচারের মুখোমুখি এবার যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত সংগঠন জামায়াতে ইসলামীর বিচারের উদ্যোগ নিচ্ছে নতুন সরকার। আইনমন্ত্রী আনিসুল হক সমকালকে জানিয়েছেন আর বিলম্ব নয় জামায়াতকে বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। এ লক্ষ্যে আইন সংশোধন করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। একাত্তরে স্বাধীনতা সংগ্রামে যুদ্ধাপরাধ করার দায়ে এরই মধ্যে জামায়াতে ইসলামীর বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতার সাজা কার্যকর হয়েছে। অভিযুক্ত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলমান। এই বিচারকালেই একাধিক বিচারক জামায়াতে ইসলামীকে একটি সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে চিহ্নিত করেন। কিন্তু কোনো নির্বাহী আদেশে সরকার এই সংগঠনকে নিষিদ্ধ করেনি। আইনের আলোকে বিচারের মাধ্যমে সরকার এই সংগঠনটিকে নিষিদ্ধ করতে চায় বলে সরকারি সূত্রে জানা গেছে। টানা দ্বিতীয়বার আইনমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর গতকাল মঙ্গলবার আনিসুল হক সমকালকে জানিয়েছেন, 'দল হিসেবে জামায়াতের বিচার করতে দ্রুত আইন সংশোধন করা হবে। বিভিন্ন কারণে আমরা জামায়াতের বিচার এতদিন করতে পারিনি। এবার অবশ্যই করা হবে। জামায়াতের বিচার করতে যেটুকু আইনি সংশোধনের প্রয়োজন, সেটা নিশ্চয়ই করা হবে।' তিনি আরও বলেন, জামায়াতের বিরুদ্ধে শুধু বাংলাদেশের আদালতে নয়, বিদেশি আদালতেও এই সংগঠনটিকে সন্ত্রাসী দল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।'জামায়াতের বিচারের লক্ষ্যে কবে নাগাদ আইন সংশোধনের উদ্যোগ নেওয়া হবে- জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, 'কোনো সময় বেঁধে দেওয়া যাবে না। তবে যথাসম্ভব তাড়াতাড়িই করা হবে।' আইনমন্ত্রীর বক্তব্যকে স্বাগত জানিয়েছেন বিশিষ্টজন। তারাও মনে করেন আর বিলম্ব না করে দ্রুত বিচার হওয়া উচিত। মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের পর দল হিসেবেও জামায়াতের বিচার করা প্রয়োজন। সে জন্য দরকার সরকারের সদিচ্ছা। মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যরা দীর্ঘদিন ধরে অধীর অপেক্ষা করছেন। তারা মনে করেন, জামায়াতের বিচার না হলে ত্রিশ লাখ শহীদ পরিবার ন্যায়বিচার পাবে না। স্বাধীনতার ৪৭ বছরেও বিতর্কিত এ দলটি প্রকাশ্যেই তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। সর্বমহল জামায়াতের বিচার নিয়ে সোচ্চার থাকলেও দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি নেই। নির্বাচন কমিশনে এ দলটির নিবন্ধন না থাকলেও সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামায়াতের ২৫ জন প্রার্থী বিএনপির প্রতীক ধানের শীষ নিয়ে অংশগ্রহণ করেন। তবে তাদের মধ্যে কেউ জিততে পারেননি। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ সমকালকে বলেন, আইনমন্ত্রীর বক্তব্য ইতিবাচক। এটা ভালো উদ্যোগ। তাকে অভিনন্দন জানাচ্ছি। আশা করব, অতি সত্বর আইনটি পাস করে দল হিসেবে জামায়াতকে বিচারের মুখোমুখি করা হবে। তবে প্রচলিত আইনে জামায়াতের বিচার করতে কোনো বাধা নেই বলে মনে করেন সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ এই আইনজীবী। রাষ্ট্রের প্রধান আইন কর্মকর্তা অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম সমকালকে বলেন, আইনমন্ত্রীর বক্তব্যের সঙ্গে আমিও একমত। অবশ্যই এটা ভালো উদ্যোগ। আইসিটি অ্যাক্ট সংশোধন করে জামায়াতের বিচার করা যেতে পারে। জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক সমকালকে বলেন, নতুন প্রজন্মের দাবি জামায়াতকে সব কর্মকাণ্ড থেকে বিরত রাখা। জামায়াতের বিচার করার উদ্যোগ ভালো। আইনমন্ত্রীর বক্তব্যে জনগণের প্রত্যাশার প্রতিফলন বলে মনে করেন তিনি। একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি লেখক-সাংবাদিক শাহরিয়ার কবির সমকালকে বলেন, ২৭ বছর ধরে আমরা জামায়াতের বিচারের দাবি করে আসছি। শীর্ষ যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শেষ হয়েছে, এখন সন্ত্রাসী দল জামায়াতের বিচার করতে হবে। দেশ থেকে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নির্র্মূল করতে হলে জামায়াতকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে। এতকাল ধরে কেন তাদের বিচার হচ্ছে না, তা আমার বোধগম্য নয়। তিনি বলেন, এখনই উপযুক্ত সময়। যত দ্রুত সম্ভব আইন সংশোধন করে জামায়াতের পাশাপাশি আলবদর, আলশামসসহ সংশ্নিষ্টদের বিচারের মুখোমুখি করা। আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের প্রসিকিউটর ড. তুরিন আফরোজ সমকালকে বলেন, আইনমন্ত্রীর বক্তব্যের জন্য সাধুবাদ। এই সরকারের ওপর জাতির অগাধ আস্থা রয়েছে। যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের ক্ষেত্রে আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের যে উদ্যোগ ও সহযোগিতা পেয়েছি, তা নিঃসন্দেহে উল্লেখ করার মতো। সরকার আইনি জটিলতা দূর করে জামায়াতকে বিচারের মুখোমুখি করবে এমন প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন তিনি। ২০১৩ সালের ১ আগস্ট হাইকোর্ট এক রায়ে স্বাধীনতাবিরোধী সংগঠন জামায়াতের নিবন্ধন (রেজিস্ট্রেশন) অবৈধ ও কর্তৃত্ববহির্ভূত ঘোষণা করেন। উচ্চ আদালতের এ রায়ের পর নির্বাচন কমিশন যুদ্ধাপরাধে অভিযুক্ত দলটির নিবন্ধন বাতিল ও নির্বাচনে অযোগ্য ঘোষণা করে। হাইকোর্টের দেওয়া ওই রায়ের বিরুদ্ধে জামায়াত সর্বোচ্চ আদালতে আপিল দাখিল করলেও গত ছয় বছর ধরে সেই আপিলের শুনানির উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।Bicharer Mukhomukhi Ebar Juddhaparadher Daae Abhijukta Sangathan Jamayate Isalamir Bicharer Udyog Nichchhe NATUN Sarkar Ainamantri Anisul Haque Samakalke Janiyechhen Are Bilamba Noy Jamayatke Bicharer Mukhomukhi Karate Habe A Lakshye Ain Sangshodhan Karar Udyog Newa Hayechhe Ble Janan Tini Ekattare Swadhinata Sangrame Juddhaparadh Karar Daae Erai Madhye Jamayate Isalamir Bash Kayekajan Shirsh Netar Saja Karjakar Hayechhe Abhijukta Juddhaparadhider Bichar Calamine AE Bicharkalei Ekadhik Bicharak Jamayate Isalamike Ekati Santrasi Sangathan Hisebe Chihnit Curren Kintu Kono Nirbahi Adeshe Sarkar AE Sangathanake Nishiddha Kareni Ainer Aloke Bicharer Madhyame Sarkar AE Sangathanatike Nishiddha Karate Say Ble Sarakari Sutre Jaana Gechhe Tana Dwitiybar Ainamantri Hisebe Dayitba Grahaner Par Gatakal Mangalabar Anisul Haque Samakalke Janiyechhen Dal Hisebe Jamayater Bichar Karate Drut Ain Sangshodhan Kara Habe Bibhinna Karne Amara Jamayater Bichar Etadin Karate Parini Ebar Abashyai Kara Habe Jamayater Bichar Karate Jetuku Aini Sangshodhner Prayojan SATA Nishchayai Kara Habe Tini RO Baleno Jamayater Biruddhe Shudhu Bangladesher Adalate Noy Bideshi Adalteo AE Sangathanatike Santrasi Dal Hisebe Chihnit Kara Hayechhe Jamayater Bicharer Lakshye Kabe Nagad Ain Sangshodhner Udyog Newa Habe Jante Chaile Ainamantri Baleno Kono Camay Bendhe Dewa Jabe Na Tove Jathasambhab Taratarii Kara Habe Ainamantrir Baktabyake Swaagat Janiyechhen Bishishtajan Tarao Money Curren Are Bilamba Na Kare Drut Bichar Hwa Uchit Manabatabirodhi Aparadher Daae Shirsh Juddhaparadhider Bicharer Par Dal Hisebeo Jamayater Bichar Kara Prayojan Say Janya Darakar Sorcerer Sadichchha Muktijoddha O Shahid Paribarer Sadasyara Dirghadin Dhare Adhir Apeksha Karachhen Tara Money Curren Jamayater Bichar Na Hale Trisha Lac Shahid Paribar Nyayabichar Pabe Na Swadhintar 47 Bachhareo Bitarkit A Dalati Prakashyei Tader Karjakram Chaliye Jachchhe Sarbamahal Jamayater Bichar Niye Sochchar Thakleo Drishyaman Kono Agragati Nei Nirbachan Kamishane A Dalatir Nibandhan Na Thakleo Sadya Samapta Ekadash Jatiya Sansad Nirbachane Jamayater 25 John Prarthi Bienapir Pratik Dhaner Shish Niye Angshagrahan Curren Tove Tader Madhye Keu Jitte Parenani A Vise Jante Chaile Sabek Ainamantri Byaristar Shafik Ahmeda Samakalke Baleno Ainamantrir Baktabya Itibachak Etah Valu Udyog Take Abhinandan Janachchhi Asha Karab Atti Satbar Ainati Pass Kare Dal Hisebe Jamayatke Bicharer Mukhomukhi Kara Habe Tove Prachalit Aine Jamayater Bichar Karate Kono Badha Nei Ble Money Curren Supreme Korter Jyeshtha AE Ainajibi Rashtrer Pradhan Ain Karmakarta Atarni Jenarel Mahbube Alam Samakalke Baleno Ainamantrir Baktabyer Sange Amio Ekamat Abashyai Etah Valu Udyog ICT Act Sangshodhan Kare Jamayater Bichar Kara Jete Pare Jatiya Manbadhikar Kamishner Cheyaramyan Kazi Riyajul Haque Samakalke Baleno NATUN Prajanmer Dabi Jamayatke Sab Karmakand Theke Virat Rakha Jamayater Bichar Karar Udyog Valu Ainamantrir Baktabye Janaganer Pratyashar Pratifalan Ble Money Curren Tini Ekattarer Ghatak Dalal Nirmul Kamitir Bharaprapta Sabhapati Lekhak Sangbadik Shahriyar Kabir Samakalke Baleno 27 Bachhar Dhare Amara Jamayater Bicharer Dabi Kare Assi Shirsh Juddhaparadhider Bichar Sesh Hayechhe Ekhan Santrasi Dal Jamayater Bichar Karate Habe Desh Theke Santras O Jangibad Nirrmul Karate Hale Jamayatke Nishiddha Ghoshna Karate Habe Etakal Dhare Can Tader Bichar Hachchhe Na Ta Amar Bodhagamya Noy Tini Baleno Ekhanai Upajukta Camay Jat Drut Sambhab Ain Sangshodhan Kare Jamayater Pashapashi Alabadar Alashamasasah Sangshnishtader Bicharer Mukhomukhi Kara Antarjatik Aparadh Traibyunaler Prasikiutar D Turin Afaroj Samakalke Baleno Ainamantrir Baktabyer Janya Sadhubad AE Sorcerer Opar Jatir Agadh Aastha Rayechhe Juddhaparadhider Bicharer Xetre Ainamantri Anisul Haker Je Udyog O Sahajogita Peyechhi Ta Nihsandehe Ullekh Karar Mato Sarkar Aini Jatilata Dur Kare Jamayatke Bicharer Mukhomukhi Karabe Eman Pratyasha Byakta Curren Tini 2013 Saler 1 Agasta Haikorta Ec Raye Swadhintabirodhi Sangathan Jamayater Nibandhan Registration Abaidh O Kartritbabahirbhut Ghoshna Curren Uchch Adalter A Rayer Par Nirbachan Commission Juddhaparadhe Abhijukta Dalatir Nibandhan Batil O Nirbachane Ajogya Ghoshna Kare Haikorter Dewa We Rayer Biruddhe Jamayat Sarbochch Adalate Apil Dakhil Karaleo Gata Chhay Bachhar Dhare Sei Apiler Shunanir Udyog Newa Hayani
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon
500000+ दिलचस्प सवाल जवाब सुनिये 😊

Similar Questions

More Answers


ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট নিকোলা সারকোজি অর্থ কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন। ২০১২ সালের নির্বাচনী প্রচারাভিযানে অবৈধ উপায়ে অর্থ ব্যয়ের মুখোমুখি অভিযোগের ভিত্তিতে একজন বিচারক এই নির্দেশ দিয়েছেন। অভিযোক্তারা গত মঙ্গলবার বলেন, সারকোজি নির্ধারিত নির্বাচনী ব্যয়ের সীমা (২ কোটি ৪০ লাখ মার্কিন ডলারের সমমূল্যের) অতিক্রম করেছিলেন। এ জন্য তিনি ভুয়া কাগজপত্র ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এএফপি
Romanized Version
ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট নিকোলা সারকোজি অর্থ কেলেঙ্কারিতে জড়িত থাকার অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হচ্ছেন। ২০১২ সালের নির্বাচনী প্রচারাভিযানে অবৈধ উপায়ে অর্থ ব্যয়ের মুখোমুখি অভিযোগের ভিত্তিতে একজন বিচারক এই নির্দেশ দিয়েছেন। অভিযোক্তারা গত মঙ্গলবার বলেন, সারকোজি নির্ধারিত নির্বাচনী ব্যয়ের সীমা (২ কোটি ৪০ লাখ মার্কিন ডলারের সমমূল্যের) অতিক্রম করেছিলেন। এ জন্য তিনি ভুয়া কাগজপত্র ব্যবহার করেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এএফপি Franser Sabek Presidenta Nikola Sarkoji Earth Kelenkarite Jarit Thakur Abhijoge Bicharer Mukhomukhi Hssen 2012 Saler Nirbachani Pracharabhijane Abaidh Upaye Earth Byayer Mukhomukhi Abhijoger Bhittite Ekajan Bicharak AE Nirdesh Diyechhen Abhijoktara Gata Mangalabar Baleno Sarkoji Nirdharit Nirbachani Byayer Seema 2 Koti 40 Lac Markin Dalarer Samamulyer Atikram Karechhilen A Janya Tini Bhuya Kagajapatra Byabahar Curren Ble Abhijog Rayechhe AFP
Likes  0  Dislikes
WhatsApp_icon

Vokal is India's Largest Knowledge Sharing Platform. Send Your Questions to Experts.

Related Searches:Bicharer Mukhomukhi,Face Trial,


vokalandroid